ঢাকা , সোমবার, ০৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ২৪ মাঘ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম
খোকসায় অবশেষে প্রশাসনের হস্তক্ষেপে অসহায় বৃদ্ধ হারুন-অর-রশিদ প্রধানমন্ত্রীর আশ্রয়নের ঘর ফিরে পেলেন ১ লক্ষ ২৯ হাজার টাকা পরিশোধ না করায় নড়াইলে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষন অধিদপ্তরে প্রতারনার অভিযোগ করে নিজেই প্রতারনায় ফেঁসে গেলেন জামী সাংবাদিক নড়াইলের লোহাগড়ার দুই সন্তানের জননী কে গলা কেটে হত্যার অভিযোগ নড়াইলে দুগ্রুপের সংঘর্ষে অন্তত ১২জন আহত নগরকান্দায় শিশুর জন্ম হলেই উপহার ও মিষ্টি নিয়ে হাজির ইউএনও বাস্তব কাহিনীতে ইউএনও’র লেখায় নির্মিত হচ্ছে নাটক ‘স্বপ্নের ঠিকানা’ সালথায় ঘরের আড়ার সঙ্গে ঝুলছিল গৃহবধূর মরদেহ,পরিবারের দাবি হত্যা ভালোবাসা দিবসে উপহার নিয়ে এলো ইনফিনিক্স লাভ ফেস্ট জাতীয় গ্রন্থগার দিবস উপলক্ষে আলফাডাঙ্গায় গুণীজন সংবর্ধনা সক্ষম সবাইকে কর প্রদানের আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর

সংরক্ষিত আসনে আরও দুইজনকে মনোনয়ন দিল আ.লীগ

ডাকসু নির্বাচনের পরিবেশ নিয়ে সরকারের প্রতি আস্থা রাখতে চান বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান।
সোমবার দুপুরে রাজধানীর চন্দ্রিমা উদ্যানে বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা প্রয়াত জিয়াউর রহমানের সমাধিতে শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, এখনও সহাবস্থান নেই। তবে সরকারি দলের পক্ষ থেকে বলা হচ্ছে, সুষ্ঠু নির্বাচনের পরিবেশ সৃষ্টির পথে তারা বাধা হবে না। আমরা তাদের বিশ্বাস করতে চাই এবং আমরা চাইবো যে, আমাদের ছাত্রসমাজের সংগঠনগুলো যাতে তাদের মত প্রকাশ ও নির্বাচনে সক্রিয়ভাবে অংশগ্রহণের সুযোগ পায় আর ছাত্র-ছাত্রীরা যাতে নির্বিঘ্নে ভোট দিতে পারে ও তাদের পছন্দের প্রার্থীদের নির্বাচিত করতে পারে।

এর আগে বিএনপিপন্থী চিকিৎসকদের সংগঠন ডক্টরস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের নবগঠিত কেন্দ্রীয় কমিটির নেতাদের নিয়ে জিয়ার সমাধিতে পুস্পস্তবক অর্পণ করেন তিনি।

নজরুল বলেন, সারাদেশে যেমন বিএনপিকে রাজনৈতিক কর্মকাণ্ড করতে দেয়া হচ্ছে না, আমাদের নেতাকর্মীরা যেমন তাদের ঘর-বাড়িতে থাকতে পারছেন না, তেমনি এদেশের ছাত্র সমাজ দীর্ঘদিন যাবৎ বিশ্ববিদ্যালয় ও কলেজগুলোতে যেতে পারে না। আমরা যারা বিরোধী দল করি তাদের নানাভাবে হয়রানি করা হচ্ছে, মিথ্যা মামলা দিয়ে গ্রেফতার করা হচ্ছে, খুন ও গুম করা হয়েছে।

তিনি বলেন, এরকম একটা জটিল পরিস্থিতিতে আমাদের বহু প্রতীক্ষীত ডাকসু নির্বাচন হতে যাচ্ছে। আমরা বলেছি, ডাকসু নির্বাচন যাতে জাতীয় ও স্থায়ী সরকার ভোটের মতো না হয়- এটিই সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ।

নজরুল আরও বলেন, আওয়ামী লীগ সরকার ক্ষমতায় এবং বিশ্ববিদ্যালয়ে কর্তৃপক্ষ সরকারের নিয়োজিত। ফলে দুশ্চিন্তার কারণ আছে। কিন্তু আমরা আশা করবো, যে ছাত্রসমাজ আমাদের যুগে যুগে পথ দেখিয়েছে- তাদের সাহসী ভূমিকা দিয়ে আন্দোলন-সংগ্রামের সূচনা করেছে, সেই ছাত্রসমাজ তাদের প্রতিষ্ঠানের নির্বাচন সুষ্ঠু করতে সর্বশক্তি দিয়ে ঝাঁপিয়ে পড়বে।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র সমাজ সুষ্ঠু নির্বাচন করতে সরকারকে বাধ্য করবে বলেও মন্তব্য করেন নজরুল ইসলাম খান।

অনুষ্ঠানে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদু, এ জেড এম জাহিদ হোসেন, যুগ্ম মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, প্রচার সম্পাদক শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানী, ড্যাবের আহ্বায়ক ডা. ফরহাদ হালিম ডোনার, সদস্য সচিব ডা. মো. ওবায়দুল কবির খান, স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি শফিউল বারী বাবু, যুবদলের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক নুরুল ইসলাম নয়ন, কৃষকদলের সহ-দফতর সম্পাদক এসকে সাদী, কেন্দ্রীয় নেতা মাইনুল ইসলাম প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

Tag :

এই অথরের আরো সংবাদ দেখুন

খোকসায় অবশেষে প্রশাসনের হস্তক্ষেপে অসহায় বৃদ্ধ হারুন-অর-রশিদ প্রধানমন্ত্রীর আশ্রয়নের ঘর ফিরে পেলেন

error: Content is protected !!

সংরক্ষিত আসনে আরও দুইজনকে মনোনয়ন দিল আ.লীগ

আপডেট টাইম : ১০:২২ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ১১ ফেব্রুয়ারী ২০১৯

ডাকসু নির্বাচনের পরিবেশ নিয়ে সরকারের প্রতি আস্থা রাখতে চান বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান।
সোমবার দুপুরে রাজধানীর চন্দ্রিমা উদ্যানে বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা প্রয়াত জিয়াউর রহমানের সমাধিতে শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, এখনও সহাবস্থান নেই। তবে সরকারি দলের পক্ষ থেকে বলা হচ্ছে, সুষ্ঠু নির্বাচনের পরিবেশ সৃষ্টির পথে তারা বাধা হবে না। আমরা তাদের বিশ্বাস করতে চাই এবং আমরা চাইবো যে, আমাদের ছাত্রসমাজের সংগঠনগুলো যাতে তাদের মত প্রকাশ ও নির্বাচনে সক্রিয়ভাবে অংশগ্রহণের সুযোগ পায় আর ছাত্র-ছাত্রীরা যাতে নির্বিঘ্নে ভোট দিতে পারে ও তাদের পছন্দের প্রার্থীদের নির্বাচিত করতে পারে।

এর আগে বিএনপিপন্থী চিকিৎসকদের সংগঠন ডক্টরস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের নবগঠিত কেন্দ্রীয় কমিটির নেতাদের নিয়ে জিয়ার সমাধিতে পুস্পস্তবক অর্পণ করেন তিনি।

নজরুল বলেন, সারাদেশে যেমন বিএনপিকে রাজনৈতিক কর্মকাণ্ড করতে দেয়া হচ্ছে না, আমাদের নেতাকর্মীরা যেমন তাদের ঘর-বাড়িতে থাকতে পারছেন না, তেমনি এদেশের ছাত্র সমাজ দীর্ঘদিন যাবৎ বিশ্ববিদ্যালয় ও কলেজগুলোতে যেতে পারে না। আমরা যারা বিরোধী দল করি তাদের নানাভাবে হয়রানি করা হচ্ছে, মিথ্যা মামলা দিয়ে গ্রেফতার করা হচ্ছে, খুন ও গুম করা হয়েছে।

তিনি বলেন, এরকম একটা জটিল পরিস্থিতিতে আমাদের বহু প্রতীক্ষীত ডাকসু নির্বাচন হতে যাচ্ছে। আমরা বলেছি, ডাকসু নির্বাচন যাতে জাতীয় ও স্থায়ী সরকার ভোটের মতো না হয়- এটিই সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ।

নজরুল আরও বলেন, আওয়ামী লীগ সরকার ক্ষমতায় এবং বিশ্ববিদ্যালয়ে কর্তৃপক্ষ সরকারের নিয়োজিত। ফলে দুশ্চিন্তার কারণ আছে। কিন্তু আমরা আশা করবো, যে ছাত্রসমাজ আমাদের যুগে যুগে পথ দেখিয়েছে- তাদের সাহসী ভূমিকা দিয়ে আন্দোলন-সংগ্রামের সূচনা করেছে, সেই ছাত্রসমাজ তাদের প্রতিষ্ঠানের নির্বাচন সুষ্ঠু করতে সর্বশক্তি দিয়ে ঝাঁপিয়ে পড়বে।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র সমাজ সুষ্ঠু নির্বাচন করতে সরকারকে বাধ্য করবে বলেও মন্তব্য করেন নজরুল ইসলাম খান।

অনুষ্ঠানে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদু, এ জেড এম জাহিদ হোসেন, যুগ্ম মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, প্রচার সম্পাদক শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানী, ড্যাবের আহ্বায়ক ডা. ফরহাদ হালিম ডোনার, সদস্য সচিব ডা. মো. ওবায়দুল কবির খান, স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি শফিউল বারী বাবু, যুবদলের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক নুরুল ইসলাম নয়ন, কৃষকদলের সহ-দফতর সম্পাদক এসকে সাদী, কেন্দ্রীয় নেতা মাইনুল ইসলাম প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।