ঢাকা , রবিবার, ০৪ জুন ২০২৩, ২১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম
খোকসায় ভূমি সেবা সপ্তাহ উপলক্ষে সমাপনী অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত বাসররাতেই বর-কনের মৃত্যু, রহস্য খুলল ময়নাতদন্তে ফ্রান্সে জঙ্গল থেকে বাংলাদেশির মরদেহ উদ্ধার ফরিদপুরে বাংলাদেশ মহিলা পরিষদের মানববন্ধন অনুষ্ঠিত ইতালির পাদোভায় বাংলাদেশ কমিউনিটির নির্বাচনে স্বপন – শাখাওয়াত প্যানেল বিজয়ী ভেড়ামারায় বেড়েছে শিশু শ্রম কৃষ্ণপুরকে ফরিদপুর-৪ আসনে যুক্ত করায় ইউনিয়নবাসীর বিজয় উল্লাস মাগুরায় ৪৪ তম জাতীয় বিজ্ঞান-প্রযুক্তি সপ্তাহের অলিম্পিয়াড উদ্বোধন ও পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠান ভেড়ামারায় কাঁচা মরিচের দাম দ্বিগুণ: প্রচণ্ড রোদ গরমে ক্ষেতেই মরিচ নষ্ট হচ্ছে নড়াইলে জেলা পর্যায়ের দুদিন ব্যাপী ৪৪ তম জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি সপ্তাহ এর উদ্বোধন

গোপালগঞ্জে রাস্তার কাজে বাঁধা দেওয়ায় নারী নির্যাতন

গোপালগঞ্জে অন্যের যায়গা দখল করে প্রভাবশালীদের রাস্তা তৈরির কাজে বাঁধা দেওয়ায় সালমা বেগম (৩৫) নামের এক গৃহবধূকে শারীরিক নির্যাতন করার অভিযোগ উঠেছে। নির্যাতনের শিকার হওয়া ওই গৃহবধূ গোপালগঞ্জ ২৫০ শর্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালের ৪র্থ তলার জেনারেল সার্জারির মহিলা ওয়ার্ডে ভর্তি হয়ে চিকিৎসা নিচ্ছেন।

ঘটনাটি ঘটেছে গোপালগঞ্জ সদর উপজেলার ৩ নং শুকতাইল ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ডের মোল্লা পাড়া গ্ৰামে। এবিষয়ে ভুক্তভোগী নারীর স্বামী লেবু মোল্লা বাদী হয়ে গোপালগঞ্জ সদর থানায় খায়ের মোল্লা, মতি মোল্লা, মেহেদী মোল্লা ও রোমান মোল্লাসহ অজ্ঞাত ৮/১০ জনকে আসামি করে একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন।

অভিযোগের বর্ননা ও সরজমিনে গিয়ে এলাকাবাসীর সাথে কথা বলে জানা যায়, গত ২৮ এপ্রিল শুক্রবার বিকালে শুকতাইল মোল্লা পাড়া গ্ৰামের প্রভাবশালী খায়ের মোল্লা ও মতি মোল্লার চাচাতো ভাই শুকতাইল ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ রানা মোল্লার মাধ্যমে পরিষদের উন্নয়ন বরাদ্দ এডিবির অর্থায়ন দিয়ে এলজিইডির রাস্তা হতে নিজেদের বাড়ি পর্যন্ত ইটের রাস্তা নির্মাণ করতে যায়।

এসময় পূর্বের মাটির রাস্তা হতে সরে গিয়ে লেবু মোল্লা ও তারুক মোল্লাদের দখলিয় যায়গার ভিতরে প্রবেশ করে ইট বিছাতে গেলে লেবু মোল্লার স্ত্রী সালমা বেগম (৩৫) বাঁধা দেয়। কাজে বাঁধা দেওয়ায় ক্ষিপ্তহয় খায়ের, মতি ও মেহেদী মোল্লাসহ তাদের লাঠিয়াল বাহিনী সালমা বেগমের ওপর হামলা চালায়।

এসময় গৃহবধূ সালমা মারাত্মকভাবে শারীরিক নির্যাতনের শিকার হয়। কয়েকজন পুরুষের দ্বারা একজন নারীর নির্যাতিত হওয়ার খবর এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে এলাকাবাসী ও সালমা বেগমের বাড়ীর লোকজন নির্যাতনকারী খায়ের মোল্লা (৫০)কে বাড়ি থেকে ধরে নিয়ে গনধোলাই দেয়। পরে সন্ধা ৬ টা ৩০ মিনিটের সময় খায়ের মোল্লার লোকজন দেশীয় অস্ত্র নিয়ে তারুক মোল্লার বসত ঘর লেবু মোল্লার দোকানসহ বাড়ির বিভিন্ন স্থাপনা ও আসবাবপত্র ভাঙচুর শুরু করলে পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

এবিষয়ে অভিযুক্ত শিক্ষক মতি মোল্লা সাংবাদিকদের বলেন, আমার ভাই খায়ের মোল্লাকে একা পেয়ে মারপিট করে হাত- পা ভেঙ্গে দিয়েছে। লেবু মোল্লার স্ত্রী সালমা বেগম ভিত্তিহীন ও বানোয়াট ঘটনা সাজিয়ে উল্টো আমাদের নামে মামলা করেছে। আমরা তাদের বাড়িঘরে হামলা করিনি। ওই বাড়ির লোকজন এলাকার চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ী। তাঁদের পুলিশ খুঁজছে।

শুকতাইলয় ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ রানা মোল্লা বলেন, শুক্রবার বিকালে ইটের রাস্তা নির্মাণ নিয়ে খায়ের মোল্লা ও লেবু মোল্লাদের বাড়ীর লোকজনের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়। আমি তাৎক্ষনিকভাবে মিমাংসা করে দেই। পরে সন্ধায় উভয়পক্ষ সংঘর্ষে জড়ায়। রাস্তার কাজ আপাতত বন্ধ রয়েছে। শুনেছি উভয় পক্ষ পাল্টাপাল্টি মামলা করেছে।

Tag :
এই অথরের আরো সংবাদ দেখুন

জনপ্রিয় সংবাদ

খোকসায় ভূমি সেবা সপ্তাহ উপলক্ষে সমাপনী অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত

error: Content is protected !!

গোপালগঞ্জে রাস্তার কাজে বাঁধা দেওয়ায় নারী নির্যাতন

আপডেট টাইম : ০৬:৩৫ অপরাহ্ন, সোমবার, ১ মে ২০২৩

গোপালগঞ্জে অন্যের যায়গা দখল করে প্রভাবশালীদের রাস্তা তৈরির কাজে বাঁধা দেওয়ায় সালমা বেগম (৩৫) নামের এক গৃহবধূকে শারীরিক নির্যাতন করার অভিযোগ উঠেছে। নির্যাতনের শিকার হওয়া ওই গৃহবধূ গোপালগঞ্জ ২৫০ শর্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালের ৪র্থ তলার জেনারেল সার্জারির মহিলা ওয়ার্ডে ভর্তি হয়ে চিকিৎসা নিচ্ছেন।

ঘটনাটি ঘটেছে গোপালগঞ্জ সদর উপজেলার ৩ নং শুকতাইল ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ডের মোল্লা পাড়া গ্ৰামে। এবিষয়ে ভুক্তভোগী নারীর স্বামী লেবু মোল্লা বাদী হয়ে গোপালগঞ্জ সদর থানায় খায়ের মোল্লা, মতি মোল্লা, মেহেদী মোল্লা ও রোমান মোল্লাসহ অজ্ঞাত ৮/১০ জনকে আসামি করে একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন।

অভিযোগের বর্ননা ও সরজমিনে গিয়ে এলাকাবাসীর সাথে কথা বলে জানা যায়, গত ২৮ এপ্রিল শুক্রবার বিকালে শুকতাইল মোল্লা পাড়া গ্ৰামের প্রভাবশালী খায়ের মোল্লা ও মতি মোল্লার চাচাতো ভাই শুকতাইল ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ রানা মোল্লার মাধ্যমে পরিষদের উন্নয়ন বরাদ্দ এডিবির অর্থায়ন দিয়ে এলজিইডির রাস্তা হতে নিজেদের বাড়ি পর্যন্ত ইটের রাস্তা নির্মাণ করতে যায়।

এসময় পূর্বের মাটির রাস্তা হতে সরে গিয়ে লেবু মোল্লা ও তারুক মোল্লাদের দখলিয় যায়গার ভিতরে প্রবেশ করে ইট বিছাতে গেলে লেবু মোল্লার স্ত্রী সালমা বেগম (৩৫) বাঁধা দেয়। কাজে বাঁধা দেওয়ায় ক্ষিপ্তহয় খায়ের, মতি ও মেহেদী মোল্লাসহ তাদের লাঠিয়াল বাহিনী সালমা বেগমের ওপর হামলা চালায়।

এসময় গৃহবধূ সালমা মারাত্মকভাবে শারীরিক নির্যাতনের শিকার হয়। কয়েকজন পুরুষের দ্বারা একজন নারীর নির্যাতিত হওয়ার খবর এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে এলাকাবাসী ও সালমা বেগমের বাড়ীর লোকজন নির্যাতনকারী খায়ের মোল্লা (৫০)কে বাড়ি থেকে ধরে নিয়ে গনধোলাই দেয়। পরে সন্ধা ৬ টা ৩০ মিনিটের সময় খায়ের মোল্লার লোকজন দেশীয় অস্ত্র নিয়ে তারুক মোল্লার বসত ঘর লেবু মোল্লার দোকানসহ বাড়ির বিভিন্ন স্থাপনা ও আসবাবপত্র ভাঙচুর শুরু করলে পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

এবিষয়ে অভিযুক্ত শিক্ষক মতি মোল্লা সাংবাদিকদের বলেন, আমার ভাই খায়ের মোল্লাকে একা পেয়ে মারপিট করে হাত- পা ভেঙ্গে দিয়েছে। লেবু মোল্লার স্ত্রী সালমা বেগম ভিত্তিহীন ও বানোয়াট ঘটনা সাজিয়ে উল্টো আমাদের নামে মামলা করেছে। আমরা তাদের বাড়িঘরে হামলা করিনি। ওই বাড়ির লোকজন এলাকার চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ী। তাঁদের পুলিশ খুঁজছে।

শুকতাইলয় ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ রানা মোল্লা বলেন, শুক্রবার বিকালে ইটের রাস্তা নির্মাণ নিয়ে খায়ের মোল্লা ও লেবু মোল্লাদের বাড়ীর লোকজনের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়। আমি তাৎক্ষনিকভাবে মিমাংসা করে দেই। পরে সন্ধায় উভয়পক্ষ সংঘর্ষে জড়ায়। রাস্তার কাজ আপাতত বন্ধ রয়েছে। শুনেছি উভয় পক্ষ পাল্টাপাল্টি মামলা করেছে।