ঢাকা , রবিবার, ০৩ মার্চ ২০২৪, ২০ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
প্রতিনিধি নিয়োগ
দৈনিক সময়ের প্রত্যাশা পত্রিকার জন্য সারা দেশে জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে প্রতিনিধি নিয়োগ করা হচ্ছে। আপনি আপনার এলাকায় সাংবাদিকতা পেশায় আগ্রহী হলে যোগাযোগ করুন।

সালথার বিভাগদী আব্বাসিয়া দাখিল মাদ্রাসার সভাপতি হলেন সাংবাদিক সাইফুল

ফরিদপুরের সালথা উপজেলার আটঘর ইউনিয়নের পশ্চিম বিভাগদী আব্বাসিয়া দাখিল মাদ্রাসার পরিচালনা পর্ষদ কমিটির সভাপতি নির্বাচিত হয়েছেন সাংবাদিক সাইফুল ইসলাম। তিনি ৫ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার প্রতিদ্বন্দ্বী ম‌র্জিনা বেগম পেয়েছেন ৩ ভোট।

রবিবার (১৮ ডিসেম্বর) দুপুরে সালথা উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসারের কার্যালয়ে এই নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। নির্বাচিত সাইফুল ইসলাম সালথা মডেল প্রেসক্লাবের সহসভাপতি ও দৈ‌নিক সমকালের সালথা উপ‌জেলা প্রতিনিধি।

সালথা উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার বিনয় কুমার চাকী বলেন, নির্বাচনে সভাপতি পদে দুই জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বীতা করেন। মোট ৮ জন ভোটার ব্যালটের মাধ্যমে তাদের ভোট প্রয়োগ করেন। এরমধ্যে সাইফুল ইসলাম ৫ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন।

প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী ম‌র্জিনা বেগম ৩ ভোট পেয়ে পরাজিত হন। গত ১৪ ডিসেম্বর সদস্য পদে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। ওই নির্বাচনে চারজন পুরুষ অভিভাবক সদস্য, একজন সংরক্ষিত মহিলা সদস্য ও তিন শিক্ষক সদস্য নির্বাচিত হয়।

Tag :
এই অথরের আরো সংবাদ দেখুন

জনপ্রিয় সংবাদ
error: Content is protected !!

সালথার বিভাগদী আব্বাসিয়া দাখিল মাদ্রাসার সভাপতি হলেন সাংবাদিক সাইফুল

আপডেট টাইম : ০৬:০৭ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৮ ডিসেম্বর ২০২২

ফরিদপুরের সালথা উপজেলার আটঘর ইউনিয়নের পশ্চিম বিভাগদী আব্বাসিয়া দাখিল মাদ্রাসার পরিচালনা পর্ষদ কমিটির সভাপতি নির্বাচিত হয়েছেন সাংবাদিক সাইফুল ইসলাম। তিনি ৫ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার প্রতিদ্বন্দ্বী ম‌র্জিনা বেগম পেয়েছেন ৩ ভোট।

রবিবার (১৮ ডিসেম্বর) দুপুরে সালথা উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসারের কার্যালয়ে এই নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। নির্বাচিত সাইফুল ইসলাম সালথা মডেল প্রেসক্লাবের সহসভাপতি ও দৈ‌নিক সমকালের সালথা উপ‌জেলা প্রতিনিধি।

সালথা উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার বিনয় কুমার চাকী বলেন, নির্বাচনে সভাপতি পদে দুই জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বীতা করেন। মোট ৮ জন ভোটার ব্যালটের মাধ্যমে তাদের ভোট প্রয়োগ করেন। এরমধ্যে সাইফুল ইসলাম ৫ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন।

প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী ম‌র্জিনা বেগম ৩ ভোট পেয়ে পরাজিত হন। গত ১৪ ডিসেম্বর সদস্য পদে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। ওই নির্বাচনে চারজন পুরুষ অভিভাবক সদস্য, একজন সংরক্ষিত মহিলা সদস্য ও তিন শিক্ষক সদস্য নির্বাচিত হয়।