ঢাকা , শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪, ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম
Logo ঢাকায় সংবাদ সম্মেলনে কান্নাজড়িত কণ্ঠে আঞ্জুমান আরা Logo দৌলতপুরে ব্র্যাক শাখা অফিসের উদ্বোধন Logo তানোরে ইউপি চেয়ারম্যানের মৃত্যুতে শোকসভা ও মিলাদ Logo তানোরে গরু মোটাতাজা করণে নিষিদ্ধ ওষুধের রমরমা বাণিজ্যে Logo উচ্চ আদালতে রিট পিটিশন দায়েরঃ ভোট গ্রহণের ৫ দিন আগে যশোর সদর উপজেলা পরিষদ নির্বাচন স্থগিত Logo যশোরে ৭০ লাখ টাকা ফেরত না দিয়ে প্রতারণার অভিযোগে আদালতে মামলা Logo তানোর পোস্ট অফিস থেকে টাকা গায়েবঃ ফেরত পেতে গ্রাহকের আত্মহত্যার হুমকি Logo নড়াইল সদর উপজেলা নির্বাচনকে প্রশ্নবিদ্ধ ও বিতর্কিত করার চেষ্টার প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন Logo বোয়ালমারীতে চেয়ারম্যান প্রার্থী লিটু শরীফের গণমাধ্যম কর্মীদের সাথে মতবিনিময় Logo প্রেম প্রস্তাবে ব্যর্থ হয়ে এডিস নিক্ষেপকারী যুবকের যাবজ্জীবন কারাদন্ড
প্রতিনিধি নিয়োগ
দৈনিক সময়ের প্রত্যাশা পত্রিকার জন্য সারা দেশে জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে প্রতিনিধি নিয়োগ করা হচ্ছে। আপনি আপনার এলাকায় সাংবাদিকতা পেশায় আগ্রহী হলে যোগাযোগ করুন।

ছোট ভাই ও বাবা মাকে পিটিয়ে জখম করার অভিযোগ বড় ভাই ও মেজ ভাইয়ের বিরুদ্ধে

৮ সন্তানের জনক রমজান মন্ডল। চার পুত্র চার কন্যা। বয়স ৯০ এর কাছাকাছি। বাড়ি মাগুরা সদর উপজেলার মঘি ইউনিয়নের আরোয়াকান্দি গ্রামে। স্ত্রী লালমতি। বয়স ৮০ ছুই ছুই। উভয়ের শরীরেই বাসা বেধেছে নানান জটিল রোগ । চিকিৎসার জন্য  বেশ কিছু টাকার প্রয়োজন । বাবা মায়ের চিকিৎসা করাতে হবে। পিতা রমজান মন্ডলের বাড়িতে আট ভাই বোন একত্রিত হয় । জমি বিক্রি করে বাবার চিকিৎসা করা যেতে পারে, এ বিষয়ে ছয় ভাই বোন একমত পোষণ করে। কিন্তু বিপত্তিবাদে তখনই যখন বড় ভাই বাবর মেজ ভাই শহীদ জমি বিক্রি করে বাবা মায়ের চিকিৎসা করাতে দ্বিমত পোষণ করে। শুরু হয় কথা কাটাকাটি। একপর্যায়ে কথা কাটাকাটি রূপ নেয় সহিংসতায়। উভয়পক্ষের মধ্যে শুরু হয় মারামারি। পরবর্তীতে পুলিশের হস্তক্ষেপে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ হয়।
এ সময় আহতদেরকে  স্থানীয়রা উদ্ধার করে মাগুরা ২৫০ সজ্জা বিশিষ্ট সদর হাসপাতালে ভর্তি করেন।
ঘটনাটি ঘটেছে গত শুক্রবার ১২ এপ্রিল আনুমানিক সন্ধ্যা সাড়ে সাতটায় মাগুরা সদর উপজেলার মঘী ইউনিয়নের আরোয়াকান্দি গ্রামে রমজান মন্ডলের নিজ বাড়িতে। পিটিয়ে আহত করা হয় রমজান মন্ডল, তার স্ত্রী লালমতি, ছেলে ওহাব মন্ডল, মেয়ে মিতা বেগমকে।
ভুক্তভোগী রমজান মন্ডলের দাবি, তার নিজের এবং তার স্ত্রীর চিকিৎসার জন্য সম্পত্তি বিক্রি করার সিদ্ধান্ত নিলে তার ৬ ছেলে মেয়ে একমত হলেও বাধা দেয় বড় ছেলে বাবর মন্ডল ও মেজো ছেলে শহীদ মন্ডল। শুরু হয় কথা কাটাকাটি । কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে তার বড় ও মেজ ছেলে এবং তাদের ছেলেরা  তাকে সহ তার স্ত্রী, সেজ ছেলে এবং ছোট মেয়েকে পিটিয়ে আহত করে।
রমজান মন্ডলের স্ত্রী লালমতি বেগম  তার স্বামীর বক্তব্যের সত্যতা স্বীকার করেন।
রমজান মন্ডলের সেজো ছেলে ওহাব মন্ডল জানান, বাবা মায়ের চিকিৎসা সংক্রান্ত অর্থ সংগ্রহের জন্য  জমি বিক্রি কে কেন্দ্র করে তার বড় ভাই ও মেজ ভাই এবং তাদের ছেলেরা তাকে তার ছোট বোনকে এবং তার বাবা-মাকে পিটিয়ে আহত করেছে।
রমজান মন্ডলের ছোট মেয়ে মিতা বেগম বলেন, জমি বিক্রির বিষয়ে কথোপকথনের এক পর্যায়ে তার বড় ভাই বাবর মন্ডল তার পিতা কে উদ্দেশ্য করে বলেন, জমি লিখে দিবি তা না হলে লাশ ফেলে দিব।
তিনি আরোও জানান, বাবর আলীর ছেলে জসিম ও আলমগীর তার পিতা কে উদ্দেশ্য করে বলেন আগে জমি লিখে দিতে হবে তারপরে চিকিৎসা।
 ১২ এপ্রিল  (শুক্রবার)  সন্ধ্যার এই ঘটনার জেরে  শনিবার আনুমানিক সকাল সাড়ে সাতটায় বাবর মন্ডল শহীদ মন্ডল এবং তার ছেলেরা দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে ছোট ভাই ইউনুস এর উপর অতর্কিত হামলা করেন এবং তাকে গুরুতর জখম  করেন বলে জানিয়েছেন রমজান মন্ডলের ছোট ছেলে ইউনুছ মন্ডল।
এ ঘটনায় অভিযুক্ত শহীদ মন্ডল এবং সাগর মন্ডল কে মাগুরা ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট সদর হাসপাতালে পাওয়া যায়। অভিযোগের বিষয়ে  জানতে চাইলে তারা ক্যামেরার সামনে আনুষ্ঠানিক কোন বক্তব্য দিতে রাজি হননি ।
Tag :
এই অথরের আরো সংবাদ দেখুন

ঢাকায় সংবাদ সম্মেলনে কান্নাজড়িত কণ্ঠে আঞ্জুমান আরা

error: Content is protected !!

ছোট ভাই ও বাবা মাকে পিটিয়ে জখম করার অভিযোগ বড় ভাই ও মেজ ভাইয়ের বিরুদ্ধে

আপডেট টাইম : ১২:২৯ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৪ এপ্রিল ২০২৪
৮ সন্তানের জনক রমজান মন্ডল। চার পুত্র চার কন্যা। বয়স ৯০ এর কাছাকাছি। বাড়ি মাগুরা সদর উপজেলার মঘি ইউনিয়নের আরোয়াকান্দি গ্রামে। স্ত্রী লালমতি। বয়স ৮০ ছুই ছুই। উভয়ের শরীরেই বাসা বেধেছে নানান জটিল রোগ । চিকিৎসার জন্য  বেশ কিছু টাকার প্রয়োজন । বাবা মায়ের চিকিৎসা করাতে হবে। পিতা রমজান মন্ডলের বাড়িতে আট ভাই বোন একত্রিত হয় । জমি বিক্রি করে বাবার চিকিৎসা করা যেতে পারে, এ বিষয়ে ছয় ভাই বোন একমত পোষণ করে। কিন্তু বিপত্তিবাদে তখনই যখন বড় ভাই বাবর মেজ ভাই শহীদ জমি বিক্রি করে বাবা মায়ের চিকিৎসা করাতে দ্বিমত পোষণ করে। শুরু হয় কথা কাটাকাটি। একপর্যায়ে কথা কাটাকাটি রূপ নেয় সহিংসতায়। উভয়পক্ষের মধ্যে শুরু হয় মারামারি। পরবর্তীতে পুলিশের হস্তক্ষেপে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ হয়।
এ সময় আহতদেরকে  স্থানীয়রা উদ্ধার করে মাগুরা ২৫০ সজ্জা বিশিষ্ট সদর হাসপাতালে ভর্তি করেন।
ঘটনাটি ঘটেছে গত শুক্রবার ১২ এপ্রিল আনুমানিক সন্ধ্যা সাড়ে সাতটায় মাগুরা সদর উপজেলার মঘী ইউনিয়নের আরোয়াকান্দি গ্রামে রমজান মন্ডলের নিজ বাড়িতে। পিটিয়ে আহত করা হয় রমজান মন্ডল, তার স্ত্রী লালমতি, ছেলে ওহাব মন্ডল, মেয়ে মিতা বেগমকে।
ভুক্তভোগী রমজান মন্ডলের দাবি, তার নিজের এবং তার স্ত্রীর চিকিৎসার জন্য সম্পত্তি বিক্রি করার সিদ্ধান্ত নিলে তার ৬ ছেলে মেয়ে একমত হলেও বাধা দেয় বড় ছেলে বাবর মন্ডল ও মেজো ছেলে শহীদ মন্ডল। শুরু হয় কথা কাটাকাটি । কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে তার বড় ও মেজ ছেলে এবং তাদের ছেলেরা  তাকে সহ তার স্ত্রী, সেজ ছেলে এবং ছোট মেয়েকে পিটিয়ে আহত করে।
রমজান মন্ডলের স্ত্রী লালমতি বেগম  তার স্বামীর বক্তব্যের সত্যতা স্বীকার করেন।
রমজান মন্ডলের সেজো ছেলে ওহাব মন্ডল জানান, বাবা মায়ের চিকিৎসা সংক্রান্ত অর্থ সংগ্রহের জন্য  জমি বিক্রি কে কেন্দ্র করে তার বড় ভাই ও মেজ ভাই এবং তাদের ছেলেরা তাকে তার ছোট বোনকে এবং তার বাবা-মাকে পিটিয়ে আহত করেছে।
রমজান মন্ডলের ছোট মেয়ে মিতা বেগম বলেন, জমি বিক্রির বিষয়ে কথোপকথনের এক পর্যায়ে তার বড় ভাই বাবর মন্ডল তার পিতা কে উদ্দেশ্য করে বলেন, জমি লিখে দিবি তা না হলে লাশ ফেলে দিব।
তিনি আরোও জানান, বাবর আলীর ছেলে জসিম ও আলমগীর তার পিতা কে উদ্দেশ্য করে বলেন আগে জমি লিখে দিতে হবে তারপরে চিকিৎসা।
 ১২ এপ্রিল  (শুক্রবার)  সন্ধ্যার এই ঘটনার জেরে  শনিবার আনুমানিক সকাল সাড়ে সাতটায় বাবর মন্ডল শহীদ মন্ডল এবং তার ছেলেরা দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে ছোট ভাই ইউনুস এর উপর অতর্কিত হামলা করেন এবং তাকে গুরুতর জখম  করেন বলে জানিয়েছেন রমজান মন্ডলের ছোট ছেলে ইউনুছ মন্ডল।
এ ঘটনায় অভিযুক্ত শহীদ মন্ডল এবং সাগর মন্ডল কে মাগুরা ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট সদর হাসপাতালে পাওয়া যায়। অভিযোগের বিষয়ে  জানতে চাইলে তারা ক্যামেরার সামনে আনুষ্ঠানিক কোন বক্তব্য দিতে রাজি হননি ।