1. somoyerprotyasha@gmail.com : A.S.M. Murshid :
  2. letusikder@gmail.com : Litu Sikder : Litu Sikder
  3. aminhossainetc@gmail.com : Sub Editor-06 : Sub Editor-06
  4. mokterreporter@gmail.com : Mokter Hossain : Mokter Hossain
  5. tussharpress@gmail.com : Tusshar Bhattacharjee : Tusshar Bhattacharjee
ধর্ষণ করেছিলেন স্বামী, ভিডিও করেছিলেন স্ত্রী - দৈনিক সময়ের প্রত্যাশা ডটকম
মঙ্গলবার, ৩১ জানুয়ারী ২০২৩, ০৮:৫৪ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
এলজিইডির কর্মকর্তাকে মারধরের প্রতিবাদে নড়াইলে মানববন্ধন মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার করা না হলে ক্লাস বর্জনের ঘোষনা! শালিখায় কাতলী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শিশু বরণ ২০২৩ উদযাপন  মাইক্রোসফ্ট ইনোভেটিভ এডুকেটর এক্সপার্ট বাংলাদেশ কমিউনিটি মিটআপ ২০২৩ অনুষ্ঠিত ভেড়ামারা সরকারি কলেজ ছাত্রলীগের সম্মেলন অনুষ্ঠিত মাগুরায় পাঠাভ্যাস উন্নয়ন কর্মসূচির উদ্বুদ্ধকরণ কর্মশালা অনুষ্ঠিত কুষ্টিয়ায় ভূমিহীনদের স্বপ্ন প্রধানমন্ত্রী বাস্তবায়ন করেছে বোয়ালমারীতে তিনটি ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক সেন্টারে ভ্রাম্যমাণ আদালতের জরিমানা নড়াইলের ফুলদাহ গ্রামে মোল্যা বংশের হামলার ভয়ে অর্ধশত পরিবার জিম্মি সালথায় উপজেলা আইন-শৃঙ্খলা কমিটির মাসিক সভা অনুষ্ঠিত

ধর্ষণ করেছিলেন স্বামী, ভিডিও করেছিলেন স্ত্রী

অনলাইন ডেস্ক রিপোর্টঃ
  • আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ২৬ জানুয়ারী, ২০২১
  • ৯৬ বার পঠিত

একটি ওয়ার্কশপে অংশ নিতে গিয়েছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়পড়ুয়া জিনতা (ছদ্মনাম)। ওয়ার্কশপটি হচ্ছিল একটি কলেজে। সেখান থেকে ফেরার সময় কলেজের বাইরে আসতেই এক নারী এসে নিজেকে ছাত্রী পরিচয় দেন। একপর্যায়ে কথা বলতে বলতে পাশাপাশি হাঁটতে থাকেন। আচমকা একটি গাড়ি এসে তাঁদের সামনে থামে। এরপর ওই নারী ও গাড়ির চালক তাঁর স্বামী জোর করে ওই শিক্ষার্থীকে গাড়িতে তুলে নেন। নিয়ে যান তাঁদের বাড়িতে। এরপর সেখানে তাঁকে ধর্ষণ করেন ওই ব্যক্তি এবং তা ভিডিও করেন তাঁর স্ত্রী।

ঘটনাটি গত বছরের আগস্টের। পাকিস্তানের আল্লামা ইকবাল ওপেন ইউনিভার্সিটির এমএসসির শিক্ষার্থী এই তরুণী। তাঁকে অপহরণ ও ধর্ষণের অভিযোগে করা মামলায় গতকাল সোমবার রায় ঘোষণা করেন রাওয়ালপিন্ডির একটি আদালত। আজ মঙ্গলবার পাকিস্তানের গণমাধ্যম ডনের খবরে এ তথ্য জানানো হয়।

রাওয়ালপিন্ডির অতিরিক্ত সেশন জজ জাহাঙ্গীর আলী গোন্ডাল মূল আসামি ৩৩ বছর বয়সী কাসিম জাহাঙ্গীরকে ধর্ষণের দায়ে মৃত্যুদণ্ড এবং ৫ লাখ রুপি জরিমানা করেন।

অপহরণের দায়ে তাঁকে (কাসিম) আজীবন কারাদণ্ড ও ১০ লাখ রুপি জরিমানা করা হয়। জরিমানা না দিলে তাঁকে ৬ মাসের কারাদণ্ড ভোগ করতে হবে। এ ছাড়া ইলেকট্রনিক ক্রাইমস অ্যাক্ট, ২০১৬ অনুযায়ী তাঁকে তিন বছরের কারাদণ্ড ও ১০ লাখ রুপি জরিমানা করা হয়।

পাশাপাশি আদালত ক্ষতিপূরণ হিসেবে ওই ছাত্রীকে ১০ লাখ রুপি দিতে কাসিমকে নির্দেশ দিয়েছেন। আর তা দিতে ব্যর্থ হলে তাঁকে আরও ৬ মাসের কারাদণ্ড ভোগ করতে হবে।

অন্যদিকে অপহরণের দায়ে কাসিমের স্ত্রী ২৪ বছরের কিরণ মেহমদুকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড এবং ১০ লাখ রুপি জরিমানা করা হয়। পাশাপাশি ইলেকট্রনিক ক্রাইমস অ্যাক্ট, ২০১৬ অনুযায়ী তাঁকেও তিন বছরের কারাদণ্ড ও ১০ লাখ রুপি জরিমানা করা হয়।

পুলিশের একজন জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা ডনকে বলেন, দণ্ডিত ওই ব্যক্তি প্রযুক্তি বিশেষজ্ঞ। তিনি ৪৫টি অপ্রাপ্তবয়স্ক মেয়েকে যৌন হয়রানি এবং তাদের ছবি ও ভিডিও তৈরি করেছেন বলে স্বীকার করেছেন। তবে পুলিশ যখন ওই শিশু-কিশোরীদের সঙ্গে যোগাযোগ করেছে, তখন কেউই সামাজিক লোকলজ্জার ভয়ে এ বিষয়ে কথা বলতে রাজি হয়নি। পুলিশ এসব ঘটনায় কেন্দ্রীয় তদন্ত সংস্থার সহায়তা চেয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর..

 

 

Copyright August, 2020-2023 @ somoyerprotyasha.com
Website Hosted by: Bdwebs.com
themesbazarsomoyerpr1
error: Content is protected !!