ঢাকা , শুক্রবার, ১৪ জুন ২০২৪, ৩১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
প্রতিনিধি নিয়োগ
দৈনিক সময়ের প্রত্যাশা পত্রিকার জন্য সারা দেশে জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে প্রতিনিধি নিয়োগ করা হচ্ছে। আপনি আপনার এলাকায় সাংবাদিকতা পেশায় আগ্রহী হলে যোগাযোগ করুন।

যশোরে ৭০ লাখ টাকা ফেরত না দিয়ে প্রতারণার অভিযোগে আদালতে মামলা

যশোরে ৭০ লাখ টাকা ধার নিয়ে ফেরত না দিয়ে প্রতারণার করার অভিযোগে সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট কোতোয়ালি আমলী আদালত, যশোরে মামলা হয়েছে। মামলায় তিন ভাইসহ ৫ জনকে আসামি করা হয়েছে। মামলার আসামিরা হলো, যশোর শহরের সিটি কলেজ পাড়ার বলাই চন্দ্র করের ছেলে তারক চন্দ্র কর, গোবিন্দ কর, বিশ্বজিৎ কর, একই এলাকার বলাইয়ের ছেলে করুনা হুই ও রিপন হুই। তাদের গ্রামের বাড়ি বাগেরহাটের চিতলমারী থানার দুর্গাপুর গ্রামে।
মামলাটি করেছেন, যশোর শহরের ষষ্ঠিতলা পাড়ার বিপি রোডের মৃত আব্দুস সাত্তারের ছেলে নিজাম উদ্দিন অমিত।
মামলায় অমিত উল্লেখ করেছেন, ২০২৩ সালের ৫ নভেম্বর ৩শ টাকার নন জুডিসিয়াল স্ট্যাম্পে একটি অঙ্গীকার নামায় স্বাক্ষর করে ৭০ লাখ টাকা ধার গ্রহণের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। ৩০ নভেম্বর তারক চন্দ্র কর, গোবিন্দ কর, বিশ্বজিৎ কর ৭০ লাখ টাকা ধারণ গ্রহণ করেন।
এরপর নির্ধারিত সময়ে তারা টাকা পরিশোধ না করে ঘোরাতে থাকে। এক পর্যায়ে ২০২৪ সালের ২ ফেব্রুয়ারি তাদের বাসায় ডেকে নিয়ে ধার দেওয়া টাকা চান। সেখানে তারা টাকা দিতে পারবে না বলে চলে যায়। এরপর তারা টাকা না দেয়ায় যশোর আদালতে মামলা করেন।
মামলার আইনজীবী আবু মোর্তজা ছোট জানান, ৭০ লাখ টাকা ধার নিয়ে ফেরত না দিয়ে প্রতারণা করার অভিযোগে আদালতে মামলা হয়েছে। যার নম্বর জিআর ১২৪২/২৪,  মামলার ধার্য্য তারিখ ২৫ আগস্ট ২০২৪।
Tag :
এই অথরের আরো সংবাদ দেখুন

জনপ্রিয় সংবাদ
error: Content is protected !!

যশোরে ৭০ লাখ টাকা ফেরত না দিয়ে প্রতারণার অভিযোগে আদালতে মামলা

আপডেট টাইম : ০৯:৩৩ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০২৪
যশোরে ৭০ লাখ টাকা ধার নিয়ে ফেরত না দিয়ে প্রতারণার করার অভিযোগে সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট কোতোয়ালি আমলী আদালত, যশোরে মামলা হয়েছে। মামলায় তিন ভাইসহ ৫ জনকে আসামি করা হয়েছে। মামলার আসামিরা হলো, যশোর শহরের সিটি কলেজ পাড়ার বলাই চন্দ্র করের ছেলে তারক চন্দ্র কর, গোবিন্দ কর, বিশ্বজিৎ কর, একই এলাকার বলাইয়ের ছেলে করুনা হুই ও রিপন হুই। তাদের গ্রামের বাড়ি বাগেরহাটের চিতলমারী থানার দুর্গাপুর গ্রামে।
মামলাটি করেছেন, যশোর শহরের ষষ্ঠিতলা পাড়ার বিপি রোডের মৃত আব্দুস সাত্তারের ছেলে নিজাম উদ্দিন অমিত।
মামলায় অমিত উল্লেখ করেছেন, ২০২৩ সালের ৫ নভেম্বর ৩শ টাকার নন জুডিসিয়াল স্ট্যাম্পে একটি অঙ্গীকার নামায় স্বাক্ষর করে ৭০ লাখ টাকা ধার গ্রহণের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। ৩০ নভেম্বর তারক চন্দ্র কর, গোবিন্দ কর, বিশ্বজিৎ কর ৭০ লাখ টাকা ধারণ গ্রহণ করেন।
এরপর নির্ধারিত সময়ে তারা টাকা পরিশোধ না করে ঘোরাতে থাকে। এক পর্যায়ে ২০২৪ সালের ২ ফেব্রুয়ারি তাদের বাসায় ডেকে নিয়ে ধার দেওয়া টাকা চান। সেখানে তারা টাকা দিতে পারবে না বলে চলে যায়। এরপর তারা টাকা না দেয়ায় যশোর আদালতে মামলা করেন।
মামলার আইনজীবী আবু মোর্তজা ছোট জানান, ৭০ লাখ টাকা ধার নিয়ে ফেরত না দিয়ে প্রতারণা করার অভিযোগে আদালতে মামলা হয়েছে। যার নম্বর জিআর ১২৪২/২৪,  মামলার ধার্য্য তারিখ ২৫ আগস্ট ২০২৪।