ঢাকা , রবিবার, ১৬ জুন ২০২৪, ১ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম
Logo উপজেলা নির্বাচন পরবর্তী হামলা-ভাংচুরের অভিযোগ, আসামী গ্রেপ্তারের দাবি Logo খাগড়াছড়িতে জেলা পুলিশের উদ্যোগে বৃক্ষরোপন কর্মসূচী উদ্বোধন Logo ঈদকে সামনে রেখে হাতিয়ার গুরুত্বপূর্ণ ঘাটে কোস্টগার্ডের নিরাপত্তার জোরদার Logo সদরপুর ক্যাডেট স্কিম মাদরাসায় কুরআনের সবক Logo বোয়ালমারীতে ট্রাকের সংঘর্ষে মোটরসাইকেল চালক নিহত Logo জাতীয় সাংবাদিক সংস্থা নাগরপুর উপজেলা ইউনিটের নতুন কার্যালয় উদ্বোধন Logo সদরপুরে ঠেঙ্গামারী আলিয়া মাদরাসা ও এতিমখানার শুভ উদ্বোধন Logo ডাকাত সর্দারকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব Logo নড়াইলে মোটরসাইকেলের বেপরোয়া গতি কেঁড়ে নিলো কিশোরের প্রাণ Logo ভুয়া পরিচয়ে চার বছর ধরে দন্ত চিকিৎসকের জেল ও জরিমানা
প্রতিনিধি নিয়োগ
দৈনিক সময়ের প্রত্যাশা পত্রিকার জন্য সারা দেশে জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে প্রতিনিধি নিয়োগ করা হচ্ছে। আপনি আপনার এলাকায় সাংবাদিকতা পেশায় আগ্রহী হলে যোগাযোগ করুন।

বোয়ালমারীতে চেয়ারম্যান প্রার্থী লিটু শরীফের গণমাধ্যম কর্মীদের সাথে মতবিনিময়

ফরিদপুরের বোয়ালমারীতে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান প্রার্থী শরীফ মো. সেলিমুজ্জামান লিটু স্থানীয় গণমাধ্যম কর্মীদের সাথে মতবিনিময় করেছেন। বৃহস্পতিবার (২৩ মে) দুপুরে স্টেশন রোডস্থ একটি চাইনিজ রেস্টুরেন্টে তিনি এ মতবিনিময় করেন।

উপজেলা চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতাকারী চতুল ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক এ চেয়ারম্যান মতবিনিময়কালে বলেন, আমি যখন ছাত্র রাজনীতি করি তখন থেকেই বিভিন্ন প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি হয়েছে আমাকে নিয়ে৷ প্রতিকূল রাজনীতির ভেতর দিয়ে আমার বেড়ে ওঠা বা এ পর্যন্ত আসা। প্রতিকূল রাজনীতির ভেতর দিয়েই আমার ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হওয়া।

তিনি আরো বলেন, শাহ মো. আবু জাফর বাংলাদেশের রাজনীতিতে একটি শক্তিশালী নাম। তার পরিবারের সন্তান শাহ মো. মঞ্জু ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান পদে আমার সাথে নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। তখন আমি আওয়ামী লীগ করি, আমার আওয়ামী লীগের লোকেরাই তখন আমাকে পরাজিত করার জন্য, আমাকে দাবায়ে রাখার জন্য শাহ মঞ্জু ভাইর পক্ষ নিয়ে আমার বিরোধিতা করে, আমার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করে আমাকে হারায়।

 

আমি যেবার চেয়ারম্যান নির্বাচিত হই আমি দলীয় মনোনয়ন পেয়ে নির্বাচনে অংশগ্রহণ করি। আমি দলের সবাইকে নিয়েই নির্বাচনে অংশগ্রহণ করে, প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে চেয়ারম্যান হতে চেয়েছিলাম।

 

আমি সবার দ্বারে দ্বারে গিয়েছিলাম। তখনো আওয়ামী লীগের একটা বড় অংশ বিশেষ করে আমাদের যিনি উপজেলা চেয়ারম্যান সাহেব আছেন, আজকে যিনি পর পর তিনবার নির্বাচিত চেয়ারম্যান- উনি এবং উনার সমর্থক যারা আওয়ামী লীগের পদ-পদবীধারী তারা প্রকাশ্যে আমার বিরুদ্ধে গিয়ে শাহ মো. মঞ্জুর পক্ষ নেন। তারপরও আপনাদের সকলের সহযোগিতায় এবং আল্লাহর রহমতে আমি সেবার চেয়ারম্যান নির্বাচিত হই।

 

আমি আবার যখন এই যে উপজেলা নির্বাচন করতে চাই তখনও আমার বিরুদ্ধে বিভিন্নভাবে ষড়যন্ত্র করা হয়েছে। আপনাদের দোয়া ও সহযোগিতায় আমি সকল ষড়যন্ত্রের মোকাবিলা করে মনোনয়ন পত্র জমা দিয়েছি এবং বৈধ হয়েছে।

বোয়ালমারী সরকারি কলেজের সাবেক ভিপি, জিএস, এজিএস এবং যুবলীগ নেতা শরীফ মো. সেলিমুজ্জামান লিটু গণমাধ্যম কর্মীদের উদ্দেশ্যে আরো বলেন, আমি আপনাদের সহযোগিতা চাই। আপনাদের সবাইকে নিয়েই একটি সুন্দর বোয়ালমারী গড়তে চাই।

 

 

আমি যেখানে যাচ্ছি, যে গ্রামে যাচ্ছি, যে পাড়া-মহল্লায় যাচ্ছি, যে ইউনিয়নে যাচ্ছি সকলেই একটা পরিবর্তন চাচ্ছে। সবখানেই একটা পরিবর্তনের হাওয়া। এই পরিবর্তন করতে হলে আমার একার দ্বারা সম্ভব নয়। সব শ্রেণি-পেশার মানুষকে একসাথে ঐক্যবদ্ধভাবে পরিবর্তন করতে হবে। আমি সবাইকে নিয়েই একটি সুন্দর বোয়ালমারী গড়তে চাই। আমি মানুষের পাশে থাকতে চাই।

Tag :
এই অথরের আরো সংবাদ দেখুন

জনপ্রিয় সংবাদ

উপজেলা নির্বাচন পরবর্তী হামলা-ভাংচুরের অভিযোগ, আসামী গ্রেপ্তারের দাবি

error: Content is protected !!

বোয়ালমারীতে চেয়ারম্যান প্রার্থী লিটু শরীফের গণমাধ্যম কর্মীদের সাথে মতবিনিময়

আপডেট টাইম : ০৬:২৭ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০২৪

ফরিদপুরের বোয়ালমারীতে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান প্রার্থী শরীফ মো. সেলিমুজ্জামান লিটু স্থানীয় গণমাধ্যম কর্মীদের সাথে মতবিনিময় করেছেন। বৃহস্পতিবার (২৩ মে) দুপুরে স্টেশন রোডস্থ একটি চাইনিজ রেস্টুরেন্টে তিনি এ মতবিনিময় করেন।

উপজেলা চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতাকারী চতুল ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক এ চেয়ারম্যান মতবিনিময়কালে বলেন, আমি যখন ছাত্র রাজনীতি করি তখন থেকেই বিভিন্ন প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি হয়েছে আমাকে নিয়ে৷ প্রতিকূল রাজনীতির ভেতর দিয়ে আমার বেড়ে ওঠা বা এ পর্যন্ত আসা। প্রতিকূল রাজনীতির ভেতর দিয়েই আমার ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হওয়া।

তিনি আরো বলেন, শাহ মো. আবু জাফর বাংলাদেশের রাজনীতিতে একটি শক্তিশালী নাম। তার পরিবারের সন্তান শাহ মো. মঞ্জু ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান পদে আমার সাথে নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। তখন আমি আওয়ামী লীগ করি, আমার আওয়ামী লীগের লোকেরাই তখন আমাকে পরাজিত করার জন্য, আমাকে দাবায়ে রাখার জন্য শাহ মঞ্জু ভাইর পক্ষ নিয়ে আমার বিরোধিতা করে, আমার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করে আমাকে হারায়।

 

আমি যেবার চেয়ারম্যান নির্বাচিত হই আমি দলীয় মনোনয়ন পেয়ে নির্বাচনে অংশগ্রহণ করি। আমি দলের সবাইকে নিয়েই নির্বাচনে অংশগ্রহণ করে, প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে চেয়ারম্যান হতে চেয়েছিলাম।

 

আমি সবার দ্বারে দ্বারে গিয়েছিলাম। তখনো আওয়ামী লীগের একটা বড় অংশ বিশেষ করে আমাদের যিনি উপজেলা চেয়ারম্যান সাহেব আছেন, আজকে যিনি পর পর তিনবার নির্বাচিত চেয়ারম্যান- উনি এবং উনার সমর্থক যারা আওয়ামী লীগের পদ-পদবীধারী তারা প্রকাশ্যে আমার বিরুদ্ধে গিয়ে শাহ মো. মঞ্জুর পক্ষ নেন। তারপরও আপনাদের সকলের সহযোগিতায় এবং আল্লাহর রহমতে আমি সেবার চেয়ারম্যান নির্বাচিত হই।

 

আমি আবার যখন এই যে উপজেলা নির্বাচন করতে চাই তখনও আমার বিরুদ্ধে বিভিন্নভাবে ষড়যন্ত্র করা হয়েছে। আপনাদের দোয়া ও সহযোগিতায় আমি সকল ষড়যন্ত্রের মোকাবিলা করে মনোনয়ন পত্র জমা দিয়েছি এবং বৈধ হয়েছে।

বোয়ালমারী সরকারি কলেজের সাবেক ভিপি, জিএস, এজিএস এবং যুবলীগ নেতা শরীফ মো. সেলিমুজ্জামান লিটু গণমাধ্যম কর্মীদের উদ্দেশ্যে আরো বলেন, আমি আপনাদের সহযোগিতা চাই। আপনাদের সবাইকে নিয়েই একটি সুন্দর বোয়ালমারী গড়তে চাই।

 

 

আমি যেখানে যাচ্ছি, যে গ্রামে যাচ্ছি, যে পাড়া-মহল্লায় যাচ্ছি, যে ইউনিয়নে যাচ্ছি সকলেই একটা পরিবর্তন চাচ্ছে। সবখানেই একটা পরিবর্তনের হাওয়া। এই পরিবর্তন করতে হলে আমার একার দ্বারা সম্ভব নয়। সব শ্রেণি-পেশার মানুষকে একসাথে ঐক্যবদ্ধভাবে পরিবর্তন করতে হবে। আমি সবাইকে নিয়েই একটি সুন্দর বোয়ালমারী গড়তে চাই। আমি মানুষের পাশে থাকতে চাই।