ঢাকা , বুধবার, ১৫ মে ২০২৪, ১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
প্রতিনিধি নিয়োগ
দৈনিক সময়ের প্রত্যাশা পত্রিকার জন্য সারা দেশে জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে প্রতিনিধি নিয়োগ করা হচ্ছে। আপনি আপনার এলাকায় সাংবাদিকতা পেশায় আগ্রহী হলে যোগাযোগ করুন।

বোয়ালমারীতে স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা গ্রেপ্তার

ফরিদপুরের বোয়ালমারীতে ময়না ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক শহিদুল ইসলামকে গ্রেপ্তার করেছে বোয়ালমারী থানা পুলিশ। বুধবার (১৫ মে) দুপুরে আসামীকে ফরিদপুর বিজ্ঞ আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।

বেআইনি সংঘবদ্ধ হয়ে হামলার অভিযোগে ময়না ইউনিয়নের কান্দাকুল গ্রামের মৃত খালেক মোল্যার ছেলে ফরিদ মোল্যা দণ্ডবিধির ১৪৩/৩২৩/ ৩২৫/৩০৭/ ৫০৬/ ১১৪ ধারায় ওই স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতার বিরুদ্ধে ১৪ মে বোয়ালমারী থানায় মামলাটি করেন। মামলা দায়েরের পর অভিযুক্ত স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা শহীদুল ইসলাম ও চুন্নু সরদারকে ওই রাতেই গ্রেপ্তার করে থানা পুলিশ।

মামলা সূত্রে জানা যায়, ফরিদ মোল্যার সাথে গ্রাম্য দলাদলি নিয়ে দীর্ঘদিন যাবত স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা শহিদুল ইসলামের বিরোধ চলে আসছে। এর জের ধরে গত ১২ মে রাত আটটার দিকে কান্দকুল গ্রামের আক্তার মেম্বারের দোকানের ভেতর একই গ্রামের হাসেম সরদারের ছেলে চুন্নু সরদার, রহিম মুন্সির ছেলে ছরোয়ার মুন্সি, মৃত আইস সেখের ছেলে স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা মো. শহিদুল, মো. আকরাম মাতুব্বর, রিশন সরদারসহ অজ্ঞাতনামা ৭/৮ জন ফরিদ মোল্যার উপর রড ও লাঠিসোঁটা নিয়ে হামলা চালায়। এতে মারাত্মক আহত হয় ফরিদ মোল্যা। তিনি বর্তমানে বোয়ালমারী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

 

 

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ও বোয়ালমারী থানার উপ-পরিদর্শক তন্ময় চক্রবর্তী বলেন, ১৪ মে মামলা হলে রাতেই তাকে গ্রেফতার করা হয়। আজ (১৫ মে) দুপুরে ফরিদপুর বিজ্ঞ আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।

Tag :
এই অথরের আরো সংবাদ দেখুন

error: Content is protected !!

বোয়ালমারীতে স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা গ্রেপ্তার

আপডেট টাইম : ২ ঘন্টা আগে

ফরিদপুরের বোয়ালমারীতে ময়না ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক শহিদুল ইসলামকে গ্রেপ্তার করেছে বোয়ালমারী থানা পুলিশ। বুধবার (১৫ মে) দুপুরে আসামীকে ফরিদপুর বিজ্ঞ আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।

বেআইনি সংঘবদ্ধ হয়ে হামলার অভিযোগে ময়না ইউনিয়নের কান্দাকুল গ্রামের মৃত খালেক মোল্যার ছেলে ফরিদ মোল্যা দণ্ডবিধির ১৪৩/৩২৩/ ৩২৫/৩০৭/ ৫০৬/ ১১৪ ধারায় ওই স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতার বিরুদ্ধে ১৪ মে বোয়ালমারী থানায় মামলাটি করেন। মামলা দায়েরের পর অভিযুক্ত স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা শহীদুল ইসলাম ও চুন্নু সরদারকে ওই রাতেই গ্রেপ্তার করে থানা পুলিশ।

মামলা সূত্রে জানা যায়, ফরিদ মোল্যার সাথে গ্রাম্য দলাদলি নিয়ে দীর্ঘদিন যাবত স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা শহিদুল ইসলামের বিরোধ চলে আসছে। এর জের ধরে গত ১২ মে রাত আটটার দিকে কান্দকুল গ্রামের আক্তার মেম্বারের দোকানের ভেতর একই গ্রামের হাসেম সরদারের ছেলে চুন্নু সরদার, রহিম মুন্সির ছেলে ছরোয়ার মুন্সি, মৃত আইস সেখের ছেলে স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা মো. শহিদুল, মো. আকরাম মাতুব্বর, রিশন সরদারসহ অজ্ঞাতনামা ৭/৮ জন ফরিদ মোল্যার উপর রড ও লাঠিসোঁটা নিয়ে হামলা চালায়। এতে মারাত্মক আহত হয় ফরিদ মোল্যা। তিনি বর্তমানে বোয়ালমারী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

 

 

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ও বোয়ালমারী থানার উপ-পরিদর্শক তন্ময় চক্রবর্তী বলেন, ১৪ মে মামলা হলে রাতেই তাকে গ্রেফতার করা হয়। আজ (১৫ মে) দুপুরে ফরিদপুর বিজ্ঞ আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।