ঢাকা , শুক্রবার, ১৪ জুন ২০২৪, ৩১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
প্রতিনিধি নিয়োগ
দৈনিক সময়ের প্রত্যাশা পত্রিকার জন্য সারা দেশে জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে প্রতিনিধি নিয়োগ করা হচ্ছে। আপনি আপনার এলাকায় সাংবাদিকতা পেশায় আগ্রহী হলে যোগাযোগ করুন।

সালথায় স্ত্রীর স্বীকৃতি চাওয়ায় নববধূকে হাতুড়ি পেটা, পুলিশের সহায়তায় উদ্ধার

ফরিদপুরের সালথা উপজেলায় স্ত্রীর স্বীকৃতি চাওয়ায় এক নববধূকে হাতুড়ি পেটা করেছে শ্বশুর বাড়ীর লোকেরা। পরে পুলিশের সহায়তায় নববধূ মোরশেদা খানমকে গুরুত্বর আহত অবস্থায় উদ্ধার করে নগরকান্দা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

 

ঘটনাটি ঘটেছে বুধবার সন্ধ্যায় সালথা উপজেলার বল্লভদী ইউনিয়নের পূর্বফুলবাড়িয়া গ্রামে।

জানা গেছে, সালথা উপজেলার বল্লভদী ইউনিয়নের পূর্বফুলবাড়ীয়া গ্রামের দুলাল শেখের ছেলে নিশাত শেখের (২১) সঙ্গে মাঝারদিয়া ইউনিয়নের চান্দাখোলা গ্রামের সিদ্দিক সরদারের মেয়ে মোরশেদা খানমের (১৯) প্রেমের সম্পর্ক ছিল। এই সম্পর্কের জের ধরে গত ৯ এপ্রিল তারা নিজেরাই বিয়ে করেন। বিয়ের পর থেকে স্ত্রীর সঙ্গে সব ধরনের যোগাযোগ বন্ধ করে দেয় স্বামী নিশাত। মোরশেদা বাধ্য হয়ে বুধবার স্বামীর বাড়িতে অবস্থান নেয় এবং স্ত্রীর স্বীকৃতির দাবিতে স্বামীর বাড়ীতে অনশন শুরু করে। স্ত্রীর স্বীকৃতির দাবিতে স্বামীর বাড়িতে যাওয়ার পর, শ্বশুর বাড়ীর লোকেরা নববধূকে হাতুড়ি পেটা করে গুরুত্বর আহত করে। মোরশেদার বড় বোন এসময় ৯৯৯ এ ফোন দিলে, পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে মোরশেদাকে উদ্ধার করে।

 

নববধু মোরশেদা খানম বলেন, “নিশাতের সাথে আমার ফেইসবুকের মাধ্যমে পরিচয়। দীর্ঘ নয় মাস ধরে তার সাথে আমার প্রেমের সম্পর্ক চলছিল। আমাদের বাড়িতে সে যাওয়া আসা করতো নিয়মিত। গত ৯ এপ্রিল নিশাতের সম্মতিতে আমাদের বাড়িতে আমরা বিয়ে করি। সে আমার সাথে রাত্রি যাপন করে সকালে পালিয়ে চলে আসে। এর পর এক সপ্তাহ পার হয়ে গেলেও আমার সাথে বা আমার পরিবারের সাথে কোন যোগাযোগ করেনি। এজন্য আমি আমার স্বামীর বাড়িতে চলে আসি। কিন্তু আমার স্বামী ও শ্বশুর বাড়ীর লোকেরা আমাকে হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে মেরে ফেলার চেষ্টা করে।”

 

 

সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার (নগরকান্দা সার্কেল) আসাদুজ্জামান শাকিল বলেন, মেয়েটিকে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। লিখিত অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন।

Tag :
এই অথরের আরো সংবাদ দেখুন

জনপ্রিয় সংবাদ
error: Content is protected !!

সালথায় স্ত্রীর স্বীকৃতি চাওয়ায় নববধূকে হাতুড়ি পেটা, পুলিশের সহায়তায় উদ্ধার

আপডেট টাইম : ০২:৫৭ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২৪

ফরিদপুরের সালথা উপজেলায় স্ত্রীর স্বীকৃতি চাওয়ায় এক নববধূকে হাতুড়ি পেটা করেছে শ্বশুর বাড়ীর লোকেরা। পরে পুলিশের সহায়তায় নববধূ মোরশেদা খানমকে গুরুত্বর আহত অবস্থায় উদ্ধার করে নগরকান্দা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

 

ঘটনাটি ঘটেছে বুধবার সন্ধ্যায় সালথা উপজেলার বল্লভদী ইউনিয়নের পূর্বফুলবাড়িয়া গ্রামে।

জানা গেছে, সালথা উপজেলার বল্লভদী ইউনিয়নের পূর্বফুলবাড়ীয়া গ্রামের দুলাল শেখের ছেলে নিশাত শেখের (২১) সঙ্গে মাঝারদিয়া ইউনিয়নের চান্দাখোলা গ্রামের সিদ্দিক সরদারের মেয়ে মোরশেদা খানমের (১৯) প্রেমের সম্পর্ক ছিল। এই সম্পর্কের জের ধরে গত ৯ এপ্রিল তারা নিজেরাই বিয়ে করেন। বিয়ের পর থেকে স্ত্রীর সঙ্গে সব ধরনের যোগাযোগ বন্ধ করে দেয় স্বামী নিশাত। মোরশেদা বাধ্য হয়ে বুধবার স্বামীর বাড়িতে অবস্থান নেয় এবং স্ত্রীর স্বীকৃতির দাবিতে স্বামীর বাড়ীতে অনশন শুরু করে। স্ত্রীর স্বীকৃতির দাবিতে স্বামীর বাড়িতে যাওয়ার পর, শ্বশুর বাড়ীর লোকেরা নববধূকে হাতুড়ি পেটা করে গুরুত্বর আহত করে। মোরশেদার বড় বোন এসময় ৯৯৯ এ ফোন দিলে, পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে মোরশেদাকে উদ্ধার করে।

 

নববধু মোরশেদা খানম বলেন, “নিশাতের সাথে আমার ফেইসবুকের মাধ্যমে পরিচয়। দীর্ঘ নয় মাস ধরে তার সাথে আমার প্রেমের সম্পর্ক চলছিল। আমাদের বাড়িতে সে যাওয়া আসা করতো নিয়মিত। গত ৯ এপ্রিল নিশাতের সম্মতিতে আমাদের বাড়িতে আমরা বিয়ে করি। সে আমার সাথে রাত্রি যাপন করে সকালে পালিয়ে চলে আসে। এর পর এক সপ্তাহ পার হয়ে গেলেও আমার সাথে বা আমার পরিবারের সাথে কোন যোগাযোগ করেনি। এজন্য আমি আমার স্বামীর বাড়িতে চলে আসি। কিন্তু আমার স্বামী ও শ্বশুর বাড়ীর লোকেরা আমাকে হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে মেরে ফেলার চেষ্টা করে।”

 

 

সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার (নগরকান্দা সার্কেল) আসাদুজ্জামান শাকিল বলেন, মেয়েটিকে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। লিখিত অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন।