ঢাকা , শুক্রবার, ০১ মার্চ ২০২৪, ১৮ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
প্রতিনিধি নিয়োগ
দৈনিক সময়ের প্রত্যাশা পত্রিকার জন্য সারা দেশে জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে প্রতিনিধি নিয়োগ করা হচ্ছে। আপনি আপনার এলাকায় সাংবাদিকতা পেশায় আগ্রহী হলে যোগাযোগ করুন।

ফরিদপুরে পিতা হত্যা মামলায় ছেলের যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদন্ড

ফরিদপুরে পিতা হত্যা মামলার  রায়ে ছেলে মিলন চৌধুরী কে যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদন্ড ও ২০ হাজার টাকা জরিমানা, অনাদায়ে ৪ মাসের জেল দিয়েছে আদালত।
আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে ফরিদপুরের অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজের ১নং আদালতের বিজ্ঞ বিচারক অশোক কুমার দত্ত এই রায় দেন। এসময় আসামী আদালতে হাজির ছিলেন।
আদালত ও মামলা সুত্রে জানা যায়, গত ২২ ফেব্র্রুয়ারী ২০১৯ সালে জেলার নগরকান্দা উপজেলার রাম নগর গ্রামের নিহত হারুন অর রশীদ চৌধুরী বাড়ির উঠানে থাকা অবস্থায় আসামী মিলন চৌধুরী তার নামে সম্পত্তি লিখে দিতে বাবা কে চাপ দেয়। এই নিয়ে বাকবিতন্ডের একপর্যায়ে ছেলে লাঠি দিয়ে পিতাকে মারধর করলে ঘটনাস্থলে তার মৃত্যু হয়। নিহতের স্ত্রী হালিমন বেগম বাদী হয়ে স্বামী খুনের অভিযোগে ছেলে মিলন এর বিরুদ্ধে হত্যা মামলা দায়ের করে। দীর্ঘ শুনানী ও স্বাক্ষ্য প্রমানের পরে বৃহস্পতিবার বিজ্ঞ আদালত অভিযুক্ত একজন আসামীর বিরুদ্ধে এই রায় দেয়।
অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ ১নং আদালতের ভারপ্রাপ্ত এপিপি আমিনুর রহমান বলেন, এই হত্যা মামলায় একজন আসামীকে অভিযুক্ত এজাহার দায়ের করা হয়। পিতা হত্যার দায়ে দীর্ঘ শুনানী ও স্বাক্ষ্য প্রমানের ভিত্তিতে আসামী মিলন চৌধুরীকে যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদন্ড ও ২০ হাজার টাকা জরিমানা এবং অনাদায়ে ৪ মাসের কারাদন্ড দেন আদালত। এই রায়ে রাষ্ট্রপক্ষ সন্তষ্ট বলে জানান তিনি।
Tag :
এই অথরের আরো সংবাদ দেখুন

জনপ্রিয় সংবাদ
error: Content is protected !!

ফরিদপুরে পিতা হত্যা মামলায় ছেলের যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদন্ড

আপডেট টাইম : ০৪:৪৭ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৫ জানুয়ারী ২০২৩
ফরিদপুরে পিতা হত্যা মামলার  রায়ে ছেলে মিলন চৌধুরী কে যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদন্ড ও ২০ হাজার টাকা জরিমানা, অনাদায়ে ৪ মাসের জেল দিয়েছে আদালত।
আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে ফরিদপুরের অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজের ১নং আদালতের বিজ্ঞ বিচারক অশোক কুমার দত্ত এই রায় দেন। এসময় আসামী আদালতে হাজির ছিলেন।
আদালত ও মামলা সুত্রে জানা যায়, গত ২২ ফেব্র্রুয়ারী ২০১৯ সালে জেলার নগরকান্দা উপজেলার রাম নগর গ্রামের নিহত হারুন অর রশীদ চৌধুরী বাড়ির উঠানে থাকা অবস্থায় আসামী মিলন চৌধুরী তার নামে সম্পত্তি লিখে দিতে বাবা কে চাপ দেয়। এই নিয়ে বাকবিতন্ডের একপর্যায়ে ছেলে লাঠি দিয়ে পিতাকে মারধর করলে ঘটনাস্থলে তার মৃত্যু হয়। নিহতের স্ত্রী হালিমন বেগম বাদী হয়ে স্বামী খুনের অভিযোগে ছেলে মিলন এর বিরুদ্ধে হত্যা মামলা দায়ের করে। দীর্ঘ শুনানী ও স্বাক্ষ্য প্রমানের পরে বৃহস্পতিবার বিজ্ঞ আদালত অভিযুক্ত একজন আসামীর বিরুদ্ধে এই রায় দেয়।
অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ ১নং আদালতের ভারপ্রাপ্ত এপিপি আমিনুর রহমান বলেন, এই হত্যা মামলায় একজন আসামীকে অভিযুক্ত এজাহার দায়ের করা হয়। পিতা হত্যার দায়ে দীর্ঘ শুনানী ও স্বাক্ষ্য প্রমানের ভিত্তিতে আসামী মিলন চৌধুরীকে যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদন্ড ও ২০ হাজার টাকা জরিমানা এবং অনাদায়ে ৪ মাসের কারাদন্ড দেন আদালত। এই রায়ে রাষ্ট্রপক্ষ সন্তষ্ট বলে জানান তিনি।