ঢাকা , শনিবার, ০২ মার্চ ২০২৪, ১৯ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম
প্রতিনিধি নিয়োগ
দৈনিক সময়ের প্রত্যাশা পত্রিকার জন্য সারা দেশে জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে প্রতিনিধি নিয়োগ করা হচ্ছে। আপনি আপনার এলাকায় সাংবাদিকতা পেশায় আগ্রহী হলে যোগাযোগ করুন।

ফরিদপুরে বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রীর ছবি সম্বলিত বিজয় দিবসের পোস্টার ছেড়ার অভিযোগ আ’লীগ নেতার বিরুদ্ধে

মহান বিজয় দিবসের শুভেচ্ছা ও শহীদদের স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে বঙ্গবন্ধু, প্রধানমন্ত্রী ও সজীব ওয়াজেদ জয়সহ জেলা আওয়ামীলীগ নেতাদের ছবি সম্বলিত পোস্টার টানানোর পর ছিড়ে ফেলার অভিযোগে উঠেছে।
ফরিদপুরের সদর উপজেলার ০১ নং ঈশান গোপালপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মো. সহীদুল ইসলাম মজনুর বিরুদ্ধে। এ অভিযোগে গত ০৮ ডিসেম্বর রাতে কোতয়ালী থানায় সাধারণ ডায়রী (জিডি) করেন ঈশান গোপালপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক উজ্জ্বল সরকার।
মো. সহীদুল ইসলাম মজনু, ঈশান গোপালপুর ইউনিয়নের বিগত নির্বাচনে আওয়ামীলীগ মনোনীত নৌকা প্রতিকের প্রার্থী হয়ে প্রতিদন্দিতা করে বিজয়ী হন। মজনু বর্তমান ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সম্পাদক মন্ডলীর সদস্য ও জেলা যুবলীগের আহ্বায়ক কমিটির সদস্য।
উজ্জ্বল সরকার জিডিতে উল্লেখ করেন, মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে বীর শহীদদের স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা ও ইউনিয়নবাসীকে শুভেচ্ছা জানিয়ে ঈশান গোপালপুর ইউনিয়ন জুড়ে কয়েক হাজার পোস্টার লাগানো হয়। গত কয়েক দিনে পোস্টারগুলো বর্তমান চেয়ারম্যান সহীদুল ইসলাম মজনু তার নিজস্ব বাহিনী দিয়ে ছিড়ে ফেলে এবং প্রকাশ্যে গালাগাল করে তাকে (উজ্জ্বল সরকার) হত্যার হুমকী প্রদান করে। এমন ঘটনায় তিনি শংকিত দাবী করে তদন্ত ও ন্যায় বিচার দাবী করেন।
তিনি জানান, জমিজমা সংক্রান্তে পুর্বে থেকেই সহীদুল ইসলাম মজনুর সাথে বিরোধ চলে আসছিলো, সম্প্রতি তিনি (উজ্জ্বল সরকার) ওই ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে প্রতিদন্দিতার ঘোষনা দিলে শহীদুল ইসলাম মজনু আরো বেশী ক্ষুব্দ হয়। আর ক্ষুব্ধতার বহি:প্রকাশ হিসেবেই পোস্টার ছেড়া হয়েছে বলে দাবী করেন তিনি।
এদিকে পোস্টার ছেড়ার অভিযোগ সম্পুর্ণ অস্বিকার করে সহীদুল ইসলাম মজনু বলেন, আমি নৌকা প্রতিক নিয়ে নির্বাচন করে বিজয়ী হয়েছি, আমার এই ফালতু কাজ করার সময় নাই। ভাবমুর্তি ক্ষুন্ন করতে এসব করা হচ্ছে বলে জানান তিনি। অপরদিকে জিডির বিষয়টি নিশ্চিত করে ফরিদপুর সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সুমন রঞ্জন সরকার বলেন, এ বিষয়ে অনুসন্ধান কার্যক্রম চলমান রয়েছে, তদন্তে সত্য প্রমাণিত হলে ব্যবস্থা নেয়া হবে।
Tag :
এই অথরের আরো সংবাদ দেখুন

জনপ্রিয় সংবাদ

খেলাধুলা মানসিক বিকাশ ও শরীর গঠনে সহায়তা করেঃ -লিয়াকত সিকদার

error: Content is protected !!

ফরিদপুরে বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রীর ছবি সম্বলিত বিজয় দিবসের পোস্টার ছেড়ার অভিযোগ আ’লীগ নেতার বিরুদ্ধে

আপডেট টাইম : ০৬:৫৯ অপরাহ্ন, শনিবার, ১০ ডিসেম্বর ২০২২
মহান বিজয় দিবসের শুভেচ্ছা ও শহীদদের স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে বঙ্গবন্ধু, প্রধানমন্ত্রী ও সজীব ওয়াজেদ জয়সহ জেলা আওয়ামীলীগ নেতাদের ছবি সম্বলিত পোস্টার টানানোর পর ছিড়ে ফেলার অভিযোগে উঠেছে।
ফরিদপুরের সদর উপজেলার ০১ নং ঈশান গোপালপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মো. সহীদুল ইসলাম মজনুর বিরুদ্ধে। এ অভিযোগে গত ০৮ ডিসেম্বর রাতে কোতয়ালী থানায় সাধারণ ডায়রী (জিডি) করেন ঈশান গোপালপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক উজ্জ্বল সরকার।
মো. সহীদুল ইসলাম মজনু, ঈশান গোপালপুর ইউনিয়নের বিগত নির্বাচনে আওয়ামীলীগ মনোনীত নৌকা প্রতিকের প্রার্থী হয়ে প্রতিদন্দিতা করে বিজয়ী হন। মজনু বর্তমান ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সম্পাদক মন্ডলীর সদস্য ও জেলা যুবলীগের আহ্বায়ক কমিটির সদস্য।
উজ্জ্বল সরকার জিডিতে উল্লেখ করেন, মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে বীর শহীদদের স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা ও ইউনিয়নবাসীকে শুভেচ্ছা জানিয়ে ঈশান গোপালপুর ইউনিয়ন জুড়ে কয়েক হাজার পোস্টার লাগানো হয়। গত কয়েক দিনে পোস্টারগুলো বর্তমান চেয়ারম্যান সহীদুল ইসলাম মজনু তার নিজস্ব বাহিনী দিয়ে ছিড়ে ফেলে এবং প্রকাশ্যে গালাগাল করে তাকে (উজ্জ্বল সরকার) হত্যার হুমকী প্রদান করে। এমন ঘটনায় তিনি শংকিত দাবী করে তদন্ত ও ন্যায় বিচার দাবী করেন।
তিনি জানান, জমিজমা সংক্রান্তে পুর্বে থেকেই সহীদুল ইসলাম মজনুর সাথে বিরোধ চলে আসছিলো, সম্প্রতি তিনি (উজ্জ্বল সরকার) ওই ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে প্রতিদন্দিতার ঘোষনা দিলে শহীদুল ইসলাম মজনু আরো বেশী ক্ষুব্দ হয়। আর ক্ষুব্ধতার বহি:প্রকাশ হিসেবেই পোস্টার ছেড়া হয়েছে বলে দাবী করেন তিনি।
এদিকে পোস্টার ছেড়ার অভিযোগ সম্পুর্ণ অস্বিকার করে সহীদুল ইসলাম মজনু বলেন, আমি নৌকা প্রতিক নিয়ে নির্বাচন করে বিজয়ী হয়েছি, আমার এই ফালতু কাজ করার সময় নাই। ভাবমুর্তি ক্ষুন্ন করতে এসব করা হচ্ছে বলে জানান তিনি। অপরদিকে জিডির বিষয়টি নিশ্চিত করে ফরিদপুর সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সুমন রঞ্জন সরকার বলেন, এ বিষয়ে অনুসন্ধান কার্যক্রম চলমান রয়েছে, তদন্তে সত্য প্রমাণিত হলে ব্যবস্থা নেয়া হবে।