ঢাকা , সোমবার, ০৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ২৪ মাঘ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম
খোকসায় অবশেষে প্রশাসনের হস্তক্ষেপে অসহায় বৃদ্ধ হারুন-অর-রশিদ প্রধানমন্ত্রীর আশ্রয়নের ঘর ফিরে পেলেন চলেন গেলেন দক্ষিণের অভিভাবক বর্ষীয়ান রাজনীতিবিদ বীর মুক্তিযোদ্বা মোছলেম উদ্দিন আহমদ এমপি ১ লক্ষ ২৯ হাজার টাকা পরিশোধ না করায় নড়াইলে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষন অধিদপ্তরে প্রতারনার অভিযোগ করে নিজেই প্রতারনায় ফেঁসে গেলেন জামী সাংবাদিক কৃষকের পেঁয়াজের ক্ষেত বিষ দিয়ে নষ্টের অভিযোগ নড়াইলের লোহাগড়ার দুই সন্তানের জননী কে গলা কেটে হত্যার অভিযোগ নড়াইলে দুগ্রুপের সংঘর্ষে অন্তত ১২জন আহত নগরকান্দায় শিশুর জন্ম হলেই উপহার ও মিষ্টি নিয়ে হাজির ইউএনও বাস্তব কাহিনীতে ইউএনও’র লেখায় নির্মিত হচ্ছে নাটক ‘স্বপ্নের ঠিকানা’ সালথায় ঘরের আড়ার সঙ্গে ঝুলছিল গৃহবধূর মরদেহ,পরিবারের দাবি হত্যা ভালোবাসা দিবসে উপহার নিয়ে এলো ইনফিনিক্স লাভ ফেস্ট

ঝিনাইদহে ধরা পড়ল মেছবাঘের শাবক

মেছো বাঘের শাবক।

ঝিনাইদহের শৈলকুপার সারুটিয়া গ্রামে দেখা মিলেছে বিলুপ্ত প্রায় মেছবাঘ শাবকের। মঙ্গলবার বিকালে শৈলকুপার সারুটিয়া গ্রামের দক্ষিন মাঠে লোকালয়ে বাঘ শাবকটির ঘুরতে দেখা যায়। এসময় স্থানীয় কৃষকেরা বন্য শাবকটি ধরে ফেলে।

বর্তমানে বাচ্চাটি সারুটিয়া ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান নোয়াব আলীর বাড়িতে হেফাজতে রয়েছে। তিনি জানান, কেউ যাতে এটি মেরে ফেলতে না পারে তা জন্যে রেখে দিয়েছেন। তবে এটি বনবিভাগের মাধ্যমে নিরাপদ হেফাজতে না নিলে যে কোন সময় মারা যেতে পারে বলে আশংকা সচেতন বাসিন্দাদের।

ধারণা করা হচ্ছে, শৈলকুপার সারুটিয়া এলাকাটি বিলুপ্তপ্রায় মেছো বাঘের জন্য অনেকটা নিরাপদ ও তাদের খাবার রয়েছে এখানে। তবে স্থানীয় জনগন সচেতন না হলে, হুমকির মুখে পড়বে তাদের বিচরণক্ষেত্র। শৈলকুপা উপজেলা বনকর্মকর্তা সিরাজুল ইসলাম জানান, এ ব্যাপারে তিনি কিছু জানেন না তবে দ্রুত খোঁজ নিবেন।

 

Tag :

এই অথরের আরো সংবাদ দেখুন

খোকসায় অবশেষে প্রশাসনের হস্তক্ষেপে অসহায় বৃদ্ধ হারুন-অর-রশিদ প্রধানমন্ত্রীর আশ্রয়নের ঘর ফিরে পেলেন

error: Content is protected !!

ঝিনাইদহে ধরা পড়ল মেছবাঘের শাবক

আপডেট টাইম : ০৭:০৮ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১ ডিসেম্বর ২০২০

ঝিনাইদহের শৈলকুপার সারুটিয়া গ্রামে দেখা মিলেছে বিলুপ্ত প্রায় মেছবাঘ শাবকের। মঙ্গলবার বিকালে শৈলকুপার সারুটিয়া গ্রামের দক্ষিন মাঠে লোকালয়ে বাঘ শাবকটির ঘুরতে দেখা যায়। এসময় স্থানীয় কৃষকেরা বন্য শাবকটি ধরে ফেলে।

বর্তমানে বাচ্চাটি সারুটিয়া ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান নোয়াব আলীর বাড়িতে হেফাজতে রয়েছে। তিনি জানান, কেউ যাতে এটি মেরে ফেলতে না পারে তা জন্যে রেখে দিয়েছেন। তবে এটি বনবিভাগের মাধ্যমে নিরাপদ হেফাজতে না নিলে যে কোন সময় মারা যেতে পারে বলে আশংকা সচেতন বাসিন্দাদের।

ধারণা করা হচ্ছে, শৈলকুপার সারুটিয়া এলাকাটি বিলুপ্তপ্রায় মেছো বাঘের জন্য অনেকটা নিরাপদ ও তাদের খাবার রয়েছে এখানে। তবে স্থানীয় জনগন সচেতন না হলে, হুমকির মুখে পড়বে তাদের বিচরণক্ষেত্র। শৈলকুপা উপজেলা বনকর্মকর্তা সিরাজুল ইসলাম জানান, এ ব্যাপারে তিনি কিছু জানেন না তবে দ্রুত খোঁজ নিবেন।