ঢাকা , বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই ২০২৪, ২ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম
Logo বিদেশি পিস্তল ও গুলিসহ বাঘায় র‌্যাব কর্তৃক ২ জন অস্ত্র ব্যবসায়ী গ্রেপ্তার Logo গোমস্তাপুরে পুকুরে ডুবে এক শিশুর মৃত্যু Logo কালুখালীতে গোসল করতে গিয়ে যুবকের মৃত্যু Logo ফরিদপুর শহর ‌কৃষকলীগের বৃক্ষরোপণ ‌ও কর্মী সভা অনুষ্ঠিত Logo গোয়ালন্দে পবিত্র আশুরা উপলক্ষে তাজিয়া মিছিল অনুষ্ঠিত Logo তানোরে বঙ্গবন্ধু অনূর্ধ্ব-১৭ ফুটবল টুর্নামেন্ট সম্পন্ন Logo দেড় ঘণ্টার নোটিশে ইবির হল ছাড়ার নির্দেশ, বিপাকে শিক্ষার্থীরা Logo সদরপুরে মিথ্যা-ভিত্তিহীন সংবাদের প্রতিবাদে ভাষাণচর ইউপি চেয়ারম্যানের সংবাদ সম্মেলন Logo বোয়ালমারীতে অবৈধভাবে সরকারি জমিতে পাকা স্থাপনা বানানোর অভিযোগ Logo ভাঙ্গায় কোটা সংস্কার আন্দোলনের প্রস্তুতি, ছত্রভঙ্গঃ আটক ১০
প্রতিনিধি নিয়োগ
দৈনিক সময়ের প্রত্যাশা পত্রিকার জন্য সারা দেশে জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে প্রতিনিধি নিয়োগ করা হচ্ছে। আপনি আপনার এলাকায় সাংবাদিকতা পেশায় আগ্রহী হলে যোগাযোগ করুন।

বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর জন্য ভারত থেকে ১১টি বুলেটপ্রুফ সামরিক যান আমদানি

বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর জন্য ভারত থেকে মাইন প্রটেকটেড ১১টি সামরিক যান আমদানি করা হয়েছে। সামরিক যানগুলোর আমদানি মূল্য দেখানো হয়েছে ৩৮ লাখ ৫ হাজার ৩৯ ইউএস ডলার। যা বাংলাদেশি টাকায় প্রায় ৪৬ কোটি টাকা। মঙ্গলবার (৯ জুলাই) রাত ৮টার দিকে ভারতের বনগাঁর পেট্রাপোল বন্দর দিয়ে এসব সামরিক যান বেনাপোল স্থলবন্দরে প্রবেশ করে। বুধবার (১০ জুলাই) বিকেলের দিকে সামরিক যানগুলো বেনাপোল বন্দর থেকে খালাস করা হয়।
জানা গেছে, সেনাবাহিনীর সামরিক শক্তি বাড়ানোর জন্য বাংলাদেশের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের ডিরেক্টর জেনারেল ডিফেন্স পারচেজ এসব সামরিক যান আমদানি করেছে। যা সম্পূর্ণ বুলেটপ্রুফ। বেনাপোল স্থলবন্দর দিয়ে এই প্রথম এ ধরনের সামরিক যান বাংলাদেশে আমদানি করা হয়েছে।
ঢাকার এমআর লজিস্ট্রিক নামের একটি সিএন্ডএফ (কাস্টমস ক্লিয়ারিং এন্ড ফরোয়ার্ডিং এজেন্ট) প্রতিষ্ঠান বেনাপোল কাস্টমস ও বন্দর থেকে প্রয়োজনীয় কাগজপত্রের আনুষ্ঠানিকতা শেষে বিকেল ৪টার দিকে সামরিক যানগুলো খালাস করে।
সিএন্ডএফ কতৃপক্ষের বেনাপোল অফিসের প্রতিনিধি জানান, ‘সম্পূর্ণ শুল্কমুক্ত এই ১১টি সামরিক যান খালাস করে সেনাবাহিনীর কর্মকর্তারা ঢাকা সেনানিবাসে নিয়ে যাওয়ার জন্য রওনা দিয়েছে। এর রপ্তানিকারক প্রতিষ্ঠান ভারতের টাটা অ্যানভানসড সিস্টেমস লিমিটেড।’
বেনাপোল স্থলবন্দরের পরিচালক রেজাউল করিম জানান, আমদানি করা এসব সামরিক যানগুলো বন্দরের হেফাজতে রাখা ছিল। কাগজপত্রের আনুষ্ঠানিকতা শেষে আজ বিকেলে খালাস করে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। দ্রুত খালাসে বন্দরের পক্ষ থেকে সর্বোচ্চ সহযোগিতা করা হয়েছে।
প্রসঙ্গত, গ্লোবাল ফায়ার পাওয়ার ইনডেক্স- ২০২৪ অনুযায়ী সামরিক শক্তিতে বাংলাদেশের অবস্থান ৩৭তম। বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর ওয়েবসাইটে প্রকাশিত সামরিক সরঞ্জামের তালিকার তথ্য মতে, দেশে এর আগে মোট ২০৫টি মাইন রেজিস্ট্যান্ট অ্যামবুশ প্রোটেকটেড যান ক্রয় করা হয়েছিল। বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর সরঞ্জামের তালিকায় দেখা যায়, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র থেকে ৫০, দক্ষিণ আফ্রিকা থেকে ৪৪ ও কানাডা থেকে ৪৪টি মাইন রেজিস্ট্যান্ট অ্যামবুশ প্রোটেকটেড যান কেনা হয়।
Tag :
এই অথরের আরো সংবাদ দেখুন

জনপ্রিয় সংবাদ

বিদেশি পিস্তল ও গুলিসহ বাঘায় র‌্যাব কর্তৃক ২ জন অস্ত্র ব্যবসায়ী গ্রেপ্তার

error: Content is protected !!

বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর জন্য ভারত থেকে ১১টি বুলেটপ্রুফ সামরিক যান আমদানি

আপডেট টাইম : ১১:১৫ অপরাহ্ন, বুধবার, ১০ জুলাই ২০২৪
বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর জন্য ভারত থেকে মাইন প্রটেকটেড ১১টি সামরিক যান আমদানি করা হয়েছে। সামরিক যানগুলোর আমদানি মূল্য দেখানো হয়েছে ৩৮ লাখ ৫ হাজার ৩৯ ইউএস ডলার। যা বাংলাদেশি টাকায় প্রায় ৪৬ কোটি টাকা। মঙ্গলবার (৯ জুলাই) রাত ৮টার দিকে ভারতের বনগাঁর পেট্রাপোল বন্দর দিয়ে এসব সামরিক যান বেনাপোল স্থলবন্দরে প্রবেশ করে। বুধবার (১০ জুলাই) বিকেলের দিকে সামরিক যানগুলো বেনাপোল বন্দর থেকে খালাস করা হয়।
জানা গেছে, সেনাবাহিনীর সামরিক শক্তি বাড়ানোর জন্য বাংলাদেশের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের ডিরেক্টর জেনারেল ডিফেন্স পারচেজ এসব সামরিক যান আমদানি করেছে। যা সম্পূর্ণ বুলেটপ্রুফ। বেনাপোল স্থলবন্দর দিয়ে এই প্রথম এ ধরনের সামরিক যান বাংলাদেশে আমদানি করা হয়েছে।
ঢাকার এমআর লজিস্ট্রিক নামের একটি সিএন্ডএফ (কাস্টমস ক্লিয়ারিং এন্ড ফরোয়ার্ডিং এজেন্ট) প্রতিষ্ঠান বেনাপোল কাস্টমস ও বন্দর থেকে প্রয়োজনীয় কাগজপত্রের আনুষ্ঠানিকতা শেষে বিকেল ৪টার দিকে সামরিক যানগুলো খালাস করে।
সিএন্ডএফ কতৃপক্ষের বেনাপোল অফিসের প্রতিনিধি জানান, ‘সম্পূর্ণ শুল্কমুক্ত এই ১১টি সামরিক যান খালাস করে সেনাবাহিনীর কর্মকর্তারা ঢাকা সেনানিবাসে নিয়ে যাওয়ার জন্য রওনা দিয়েছে। এর রপ্তানিকারক প্রতিষ্ঠান ভারতের টাটা অ্যানভানসড সিস্টেমস লিমিটেড।’
বেনাপোল স্থলবন্দরের পরিচালক রেজাউল করিম জানান, আমদানি করা এসব সামরিক যানগুলো বন্দরের হেফাজতে রাখা ছিল। কাগজপত্রের আনুষ্ঠানিকতা শেষে আজ বিকেলে খালাস করে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। দ্রুত খালাসে বন্দরের পক্ষ থেকে সর্বোচ্চ সহযোগিতা করা হয়েছে।
প্রসঙ্গত, গ্লোবাল ফায়ার পাওয়ার ইনডেক্স- ২০২৪ অনুযায়ী সামরিক শক্তিতে বাংলাদেশের অবস্থান ৩৭তম। বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর ওয়েবসাইটে প্রকাশিত সামরিক সরঞ্জামের তালিকার তথ্য মতে, দেশে এর আগে মোট ২০৫টি মাইন রেজিস্ট্যান্ট অ্যামবুশ প্রোটেকটেড যান ক্রয় করা হয়েছিল। বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর সরঞ্জামের তালিকায় দেখা যায়, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র থেকে ৫০, দক্ষিণ আফ্রিকা থেকে ৪৪ ও কানাডা থেকে ৪৪টি মাইন রেজিস্ট্যান্ট অ্যামবুশ প্রোটেকটেড যান কেনা হয়।