ঢাকা , বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই ২০২৪, ২ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম
Logo বিদেশি পিস্তল ও গুলিসহ বাঘায় র‌্যাব কর্তৃক ২ জন অস্ত্র ব্যবসায়ী গ্রেপ্তার Logo গোমস্তাপুরে পুকুরে ডুবে এক শিশুর মৃত্যু Logo কালুখালীতে গোসল করতে গিয়ে যুবকের মৃত্যু Logo ফরিদপুর শহর ‌কৃষকলীগের বৃক্ষরোপণ ‌ও কর্মী সভা অনুষ্ঠিত Logo গোয়ালন্দে পবিত্র আশুরা উপলক্ষে তাজিয়া মিছিল অনুষ্ঠিত Logo তানোরে বঙ্গবন্ধু অনূর্ধ্ব-১৭ ফুটবল টুর্নামেন্ট সম্পন্ন Logo দেড় ঘণ্টার নোটিশে ইবির হল ছাড়ার নির্দেশ, বিপাকে শিক্ষার্থীরা Logo সদরপুরে মিথ্যা-ভিত্তিহীন সংবাদের প্রতিবাদে ভাষাণচর ইউপি চেয়ারম্যানের সংবাদ সম্মেলন Logo বোয়ালমারীতে অবৈধভাবে সরকারি জমিতে পাকা স্থাপনা বানানোর অভিযোগ Logo ভাঙ্গায় কোটা সংস্কার আন্দোলনের প্রস্তুতি, ছত্রভঙ্গঃ আটক ১০
প্রতিনিধি নিয়োগ
দৈনিক সময়ের প্রত্যাশা পত্রিকার জন্য সারা দেশে জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে প্রতিনিধি নিয়োগ করা হচ্ছে। আপনি আপনার এলাকায় সাংবাদিকতা পেশায় আগ্রহী হলে যোগাযোগ করুন।

আলফাডাঙ্গায় শৌচাগারের অভাবে ভোগান্তি মানুষের

মাজেদ হোসেন তার পরিবার নিয়ে পৌরসভার সদর বাজারে এসেছেন কেনাকাটা করতে। তবে প্রয়োজনীয় শৌচাগার না থাকায় ভোগান্তির কথা বলেন, এখানে অনেক বার বাজার করতে এসেছি কোনো দোকানে ওয়াশরুম নেই। আমার এক ছেলের ওয়াশরুমে যাওয়ার প্রয়োজন পড়ে। বাজারে কোনো ওয়াশরুম না থাকায় বেশ কিছু পথ হেটে হাইস্কুল মসজিদে ওয়াশরুমের কাজ সারতে হয়েছে।

ফরিদপুর জেলার আলফাডাঙ্গা পৌরসভা বর্তমান ‘খ’ শ্রেণিতে অন্তভূক্ত হয়েছে। উপজেলা সদরের একমাত্র বড় বাজার হওয়াতে মানুষের আনাগোনা ক্রমেই বাড়ছে। বিশেষ করে সপ্তাহে রোববার ও বুধবার হাট বসে।

প্রতিদিন বিভিন্ন স্থান থেকে উপজেলা সদর বাজারে ভিড় করে হাজারও মানুষ। তবে এ শহরের প্রাণকেন্দ্র ও বিপণিবিতানগুলোয় কোনো পাবলিক টয়লেট বা শৌচাগার না থাকায় ভোগান্তিতে পড়তে হচ্ছে সবাইকে।

সংশ্লিষ্টরা বলছেন, সদর বাজারের প্রাণকেন্দ্র্ধেসঢ়; আলফাডাঙ্গা পৌরসভার পক্ষ থেকে ডক মার্কেটে একটি ভবন তৈরী করা হয়েছে, সেখানে পাবলিক টয়লেট স্থাপন করা হয়েছে। ভবন ও আনুসঙ্গিক কাজ শেষ হয়েছে যে কোনো মুহুত্বে এটা চালু হবে। তখন আর মানুষের ভোগান্তি থাকবে না।

বাজারের বিভিন্ন দোকান ঘুরে দোকানিদের সাথে কথা বলে জানা গেছে, এই পৌর শহর সদর বাজারে ছোট-বড় মিলিয়ে বিভিন্ন দোকান ও গার্মেন্টসহ প্রায় সাত শতাধিক দোকান রয়েছে। তবে এসব দোকানের কোথাও নেই শৌচাগার ব্যবস্থা। সপ্তাহে দুই দিন হাটবারে হাজার হাজার মানুষের আগমন ঘটে বাজারে। বাজারের পাশে মসজিদ ওথানায় গিয়ে ওয়াশরুমের কাজ সারতে হচ্ছে ক্রেতা-বিক্রেতাদের। বাজারের মধ্যে ডক মার্কেটে একটি শৌচাগার স্থাপন করা হয়েছে। কখন চালু হবে বলতে পারছে না তারা।
পৌর এলাকার বাস টার্মিনাল বাজার থেকে অনেক দুুরে, সেখানে দুটি টয়লেটে থাকলেও মটরশ্রমিক ছাড়া অন্য কেউ ব্যবহার করতে পারছে না। তারা সেটা তালা মেরে রেখেছে।

মনিরুল নামের এক ব্যক্তি এসেছিলেন বাজারে কেনাকাটা করতে। তখন হঠাৎ করে শৌচাগারের প্রয়োজন হয়। পরে সে জানতে পারে বাজারে কোনো শৌচাগার নেই। থানা মসজিদে গেলে সেখানের টয়লেট বন্ধ থাকায় থানার পুলিশকে বলে থানার ওয়াশরুমের কাজ সারেন তিনি।

ডক মার্কেটের একাধিক ব্যবসায়ী জানান, চাউলের দোকান তুলে সেখানে একটি বিল্ডিং করে শৌচাগার করা হয়েছে। তবে কখন চালু হবে বলতে পারছেনা তারা। এখন দোকানিরা বিভিন্ন ব্যক্তিদের ব্যক্তিগত ওয়াশরুমে গিয়ে জরুরী কাজ সারতে হচ্ছে।

 

পৌরসভার মেয়র আলী আকসাদ ঝন্টু বলেন, ডক মার্কেটের চাল চান্দি ভেঙ্গে পৌরসভার পক্ষ থেকে একটি ভবন করা হয়েছে। ভবনটিতে শুধু পাবলিক টয়লেট স্থাপন করা হয়েছে। ইতোমধ্যে কাজ সম্পন্ন হয়েছে। যে কোনো সময় চালু হবে।

Tag :
এই অথরের আরো সংবাদ দেখুন

জনপ্রিয় সংবাদ

বিদেশি পিস্তল ও গুলিসহ বাঘায় র‌্যাব কর্তৃক ২ জন অস্ত্র ব্যবসায়ী গ্রেপ্তার

error: Content is protected !!

আলফাডাঙ্গায় শৌচাগারের অভাবে ভোগান্তি মানুষের

আপডেট টাইম : ০৩:৪৮ অপরাহ্ন, বুধবার, ৩ জুলাই ২০২৪

মাজেদ হোসেন তার পরিবার নিয়ে পৌরসভার সদর বাজারে এসেছেন কেনাকাটা করতে। তবে প্রয়োজনীয় শৌচাগার না থাকায় ভোগান্তির কথা বলেন, এখানে অনেক বার বাজার করতে এসেছি কোনো দোকানে ওয়াশরুম নেই। আমার এক ছেলের ওয়াশরুমে যাওয়ার প্রয়োজন পড়ে। বাজারে কোনো ওয়াশরুম না থাকায় বেশ কিছু পথ হেটে হাইস্কুল মসজিদে ওয়াশরুমের কাজ সারতে হয়েছে।

ফরিদপুর জেলার আলফাডাঙ্গা পৌরসভা বর্তমান ‘খ’ শ্রেণিতে অন্তভূক্ত হয়েছে। উপজেলা সদরের একমাত্র বড় বাজার হওয়াতে মানুষের আনাগোনা ক্রমেই বাড়ছে। বিশেষ করে সপ্তাহে রোববার ও বুধবার হাট বসে।

প্রতিদিন বিভিন্ন স্থান থেকে উপজেলা সদর বাজারে ভিড় করে হাজারও মানুষ। তবে এ শহরের প্রাণকেন্দ্র ও বিপণিবিতানগুলোয় কোনো পাবলিক টয়লেট বা শৌচাগার না থাকায় ভোগান্তিতে পড়তে হচ্ছে সবাইকে।

সংশ্লিষ্টরা বলছেন, সদর বাজারের প্রাণকেন্দ্র্ধেসঢ়; আলফাডাঙ্গা পৌরসভার পক্ষ থেকে ডক মার্কেটে একটি ভবন তৈরী করা হয়েছে, সেখানে পাবলিক টয়লেট স্থাপন করা হয়েছে। ভবন ও আনুসঙ্গিক কাজ শেষ হয়েছে যে কোনো মুহুত্বে এটা চালু হবে। তখন আর মানুষের ভোগান্তি থাকবে না।

বাজারের বিভিন্ন দোকান ঘুরে দোকানিদের সাথে কথা বলে জানা গেছে, এই পৌর শহর সদর বাজারে ছোট-বড় মিলিয়ে বিভিন্ন দোকান ও গার্মেন্টসহ প্রায় সাত শতাধিক দোকান রয়েছে। তবে এসব দোকানের কোথাও নেই শৌচাগার ব্যবস্থা। সপ্তাহে দুই দিন হাটবারে হাজার হাজার মানুষের আগমন ঘটে বাজারে। বাজারের পাশে মসজিদ ওথানায় গিয়ে ওয়াশরুমের কাজ সারতে হচ্ছে ক্রেতা-বিক্রেতাদের। বাজারের মধ্যে ডক মার্কেটে একটি শৌচাগার স্থাপন করা হয়েছে। কখন চালু হবে বলতে পারছে না তারা।
পৌর এলাকার বাস টার্মিনাল বাজার থেকে অনেক দুুরে, সেখানে দুটি টয়লেটে থাকলেও মটরশ্রমিক ছাড়া অন্য কেউ ব্যবহার করতে পারছে না। তারা সেটা তালা মেরে রেখেছে।

মনিরুল নামের এক ব্যক্তি এসেছিলেন বাজারে কেনাকাটা করতে। তখন হঠাৎ করে শৌচাগারের প্রয়োজন হয়। পরে সে জানতে পারে বাজারে কোনো শৌচাগার নেই। থানা মসজিদে গেলে সেখানের টয়লেট বন্ধ থাকায় থানার পুলিশকে বলে থানার ওয়াশরুমের কাজ সারেন তিনি।

ডক মার্কেটের একাধিক ব্যবসায়ী জানান, চাউলের দোকান তুলে সেখানে একটি বিল্ডিং করে শৌচাগার করা হয়েছে। তবে কখন চালু হবে বলতে পারছেনা তারা। এখন দোকানিরা বিভিন্ন ব্যক্তিদের ব্যক্তিগত ওয়াশরুমে গিয়ে জরুরী কাজ সারতে হচ্ছে।

 

পৌরসভার মেয়র আলী আকসাদ ঝন্টু বলেন, ডক মার্কেটের চাল চান্দি ভেঙ্গে পৌরসভার পক্ষ থেকে একটি ভবন করা হয়েছে। ভবনটিতে শুধু পাবলিক টয়লেট স্থাপন করা হয়েছে। ইতোমধ্যে কাজ সম্পন্ন হয়েছে। যে কোনো সময় চালু হবে।