ঢাকা , বুধবার, ১৯ জুন ২০২৪, ৫ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
প্রতিনিধি নিয়োগ
দৈনিক সময়ের প্রত্যাশা পত্রিকার জন্য সারা দেশে জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে প্রতিনিধি নিয়োগ করা হচ্ছে। আপনি আপনার এলাকায় সাংবাদিকতা পেশায় আগ্রহী হলে যোগাযোগ করুন।

শসা খেয়ে ধরা ৪ গরু ব্যবসায়ী

কুষ্টিয়ার খোকসা উপজেলার চার গরু ব্যবসায়ী অজ্ঞান পাটির খপ্পরে পড়ে সর্বস্বান্ত হয়েছেন। তাদের কাছ থেকে প্রায় ৮ লাখ টাকা ছিনিয়ে নিয়েছে চক্রটি।

 

রোববার (১৬ জুন) রাতে নারায়ণগঞ্জ থেকে যাত্রীবাহী বাসে বাড়ি ফেরার পথে এ ঘটনা ঘটে। সোমবার সকালে এ প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত কারও জ্ঞান ফেরেনি।

 

অজ্ঞান পার্টির খপ্পরে পড়া ব্যবসায়ীরা হলেন- ইউসুফ (৫০), আলাল (৩৭), জালাল (২২) ও জিন্নাহ (৩২)। তাদের সবার বাড়ি কুষ্টিায়ার খোকসা উপজেলার ওসমানপুর ইউনিয়নের বিভিন্ন গ্রামে।

 

জানা যায়, রোববার রাতে চার ব্যবসায়ী গরু বিক্রি শেষে নারায়ণগঞ্জ থেকে যাত্রীবাহী বাসে বাড়ি ফিরছিলেন। পথিমধ্যে তারা শসা কিনে খেয়ে ঘুমে আচ্ছন্ন হয়ে পরেন। পরে বাসটির চালক মুঠোফোনের মাধ্যমে অসুস্থ যাত্রীদের বাড়িতে যোগাযোগ করেন। রাত ১টার পরে তাদের বাস থেকে উদ্ধার করে খোকসা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়।

 

সরেজমিনে দেখা যায়, হাসপাতালে ভিকটিম আলালের স্বজনরা তাকে ঘিরে বসে আছেন। তিনি ৬টি গরু নিয়ে হাটে গিয়েছিলেন বলে জানিয়েছেন তারা। এর মধ্যে তিনটি গরু বিক্রির টাকা আগেই বাড়ি পাঠিয়ে দিয়েছিলেন। বাকি গরুগুলো বিক্রির সাড়ে ৪ লাখ টাকা নিয়ে ফিরছিলেন তিনি।

 

হাসপাতালে চিকিৎসাধীন জালালের ভাই জিল্লুর রহমান বলেন, গতকাল রাত ৮টার পরও মুঠোফোনে জালালের সঙ্গে যোগাযোগ হয়। তখন জালাল জানিয়েছিল, তার ঘুম পাচ্ছে। এরপর আর যোগাযোগ হয়নি। রাতে বাসের চালক মুঠোফোনের মাধ্যমে বাড়িতে খবর দেন।

 

 

খোকশা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগের উপ-সহকারী মেডিকেল অফিসার বিপ্লব সরকার বলেন, রোগীদের অবস্থা মোটামুটি ভালো। তবে জ্ঞান ফিরতে সময় লাগবে।

Tag :
এই অথরের আরো সংবাদ দেখুন

জনপ্রিয় সংবাদ
error: Content is protected !!

শসা খেয়ে ধরা ৪ গরু ব্যবসায়ী

আপডেট টাইম : ০৭:৫৯ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৮ জুন ২০২৪

কুষ্টিয়ার খোকসা উপজেলার চার গরু ব্যবসায়ী অজ্ঞান পাটির খপ্পরে পড়ে সর্বস্বান্ত হয়েছেন। তাদের কাছ থেকে প্রায় ৮ লাখ টাকা ছিনিয়ে নিয়েছে চক্রটি।

 

রোববার (১৬ জুন) রাতে নারায়ণগঞ্জ থেকে যাত্রীবাহী বাসে বাড়ি ফেরার পথে এ ঘটনা ঘটে। সোমবার সকালে এ প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত কারও জ্ঞান ফেরেনি।

 

অজ্ঞান পার্টির খপ্পরে পড়া ব্যবসায়ীরা হলেন- ইউসুফ (৫০), আলাল (৩৭), জালাল (২২) ও জিন্নাহ (৩২)। তাদের সবার বাড়ি কুষ্টিায়ার খোকসা উপজেলার ওসমানপুর ইউনিয়নের বিভিন্ন গ্রামে।

 

জানা যায়, রোববার রাতে চার ব্যবসায়ী গরু বিক্রি শেষে নারায়ণগঞ্জ থেকে যাত্রীবাহী বাসে বাড়ি ফিরছিলেন। পথিমধ্যে তারা শসা কিনে খেয়ে ঘুমে আচ্ছন্ন হয়ে পরেন। পরে বাসটির চালক মুঠোফোনের মাধ্যমে অসুস্থ যাত্রীদের বাড়িতে যোগাযোগ করেন। রাত ১টার পরে তাদের বাস থেকে উদ্ধার করে খোকসা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়।

 

সরেজমিনে দেখা যায়, হাসপাতালে ভিকটিম আলালের স্বজনরা তাকে ঘিরে বসে আছেন। তিনি ৬টি গরু নিয়ে হাটে গিয়েছিলেন বলে জানিয়েছেন তারা। এর মধ্যে তিনটি গরু বিক্রির টাকা আগেই বাড়ি পাঠিয়ে দিয়েছিলেন। বাকি গরুগুলো বিক্রির সাড়ে ৪ লাখ টাকা নিয়ে ফিরছিলেন তিনি।

 

হাসপাতালে চিকিৎসাধীন জালালের ভাই জিল্লুর রহমান বলেন, গতকাল রাত ৮টার পরও মুঠোফোনে জালালের সঙ্গে যোগাযোগ হয়। তখন জালাল জানিয়েছিল, তার ঘুম পাচ্ছে। এরপর আর যোগাযোগ হয়নি। রাতে বাসের চালক মুঠোফোনের মাধ্যমে বাড়িতে খবর দেন।

 

 

খোকশা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগের উপ-সহকারী মেডিকেল অফিসার বিপ্লব সরকার বলেন, রোগীদের অবস্থা মোটামুটি ভালো। তবে জ্ঞান ফিরতে সময় লাগবে।