ঢাকা , রবিবার, ১৬ জুন ২০২৪, ২ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
প্রতিনিধি নিয়োগ
দৈনিক সময়ের প্রত্যাশা পত্রিকার জন্য সারা দেশে জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে প্রতিনিধি নিয়োগ করা হচ্ছে। আপনি আপনার এলাকায় সাংবাদিকতা পেশায় আগ্রহী হলে যোগাযোগ করুন।

মামলার বাদির সমর্থককে

আসামি পক্ষের লোকজনের হাতুড়ি পেটা

গুরুত্বর আহত আনোয়ার মোল্যা। ছবি- এস.এম. রুবেল।

ফরিদপুরের বোয়ালমারী উপজেলার পরমেশ্বরদী গ্রামে হামলায় অন্তসত্ত্বা গৃহবধূর পেটের বাচ্চা নষ্ট করা মামলায় বাদির সমর্থককে হাতুড়ি পেটা করেছে আসামি পক্ষের লোকজন। মঙ্গলবার দুপুরে উপজেলার পরমেশ্বরদী ইউনিয়নের পরমেশ্বরদী গ্রামের আক্তার হাফেজের বাড়ির সামনে নতুন রাস্তায় এ ঘটনা ঘটে।

এলাকা সূত্রে জানা গেছে, গত ২৭ নভেম্বর উপজেলার পরমেশ্বরদী গ্রামে জমা-জমি নিয়ে রিপন মিয়া ও সরোয়ার খান গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। সংঘর্ষে রিপন মিয়ার ভাই অহিদ মিয়ার অন্তসত্ত্বা স্ত্রীর প্রতিপক্ষের লোকজনের আঘাতে পেটের বাচ্চা নষ্ট হয়ে যায়। এ ঘটনায় ৩০ নভেম্বর অহিদ মিয়া বাদি হয়ে বোয়ালমারী থানায় মামলা করেন।

মামলা করায় রিপন মিয়ার সমর্থক পরমেশ্বরদী গ্রামের আনোয়ার মোল্যাকে (৩৫) মঙ্গলবার দুপুরে হাতুড়ি পেটা করে মারাত্বক আহত করে। মারাত্বক আহত আনোয়ার মোল্লাকে উদ্ধার করে বোয়ালমারী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

আহতের বড় ভাই জাহাঙ্গীর মোল্যা (৩৯) জানান, মঙ্গলবার দুপুরের দিকে তার ভাই আনোয়ার মোল্যা ময়েনদিয়া বাজার থেকে বাড়ি ফেরার পথে পরমেশ্বরদী নতুন রাস্তা আক্তার হাফেজের বাড়ির সামনে পৌঁছালে ওৎ পেতে থাকা পরমেশ্বরদী গ্রামের ছরোয়ার খাঁনের লোকজন তার উপরে হামলা করে। এ সময় হাতুড়ি দিয়ে আনোয়ারকে এলোপাথারী ভাবে পিটিয়ে আহত করা হয়েছে।

তিনি আরো জানান, গত ২৭ নভেম্বর সকালে ছরোয়ার খান ও রিপন মিয়া গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। এ ঘটনায় রিপন মিয়ার ভাই অহিদ মিয়া থানায় মামলা করেন। আমরা রিপন মিয়ার গ্রুপের লোক বলে মামলা করার কারনে আমার ভাইকে হাতুরী দিয়ে মারধর করেছে।
ছরোয়ার খাঁন মোবাইল ফোনে জানান, কয়েকদিন আগে আনোয়ার আমার লোকজনকে মারধর করেছিল। সে কারনে আমার লোকজন আনোয়ারকে মারধর করেছে বলে শুনেছি।

এ ব্যাপারে থানা অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ নুরুল আলম বলেন, মারধরের খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Tag :
এই অথরের আরো সংবাদ দেখুন

জনপ্রিয় সংবাদ
error: Content is protected !!

মামলার বাদির সমর্থককে

আসামি পক্ষের লোকজনের হাতুড়ি পেটা

আপডেট টাইম : ০৫:২০ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১ ডিসেম্বর ২০২০

ফরিদপুরের বোয়ালমারী উপজেলার পরমেশ্বরদী গ্রামে হামলায় অন্তসত্ত্বা গৃহবধূর পেটের বাচ্চা নষ্ট করা মামলায় বাদির সমর্থককে হাতুড়ি পেটা করেছে আসামি পক্ষের লোকজন। মঙ্গলবার দুপুরে উপজেলার পরমেশ্বরদী ইউনিয়নের পরমেশ্বরদী গ্রামের আক্তার হাফেজের বাড়ির সামনে নতুন রাস্তায় এ ঘটনা ঘটে।

এলাকা সূত্রে জানা গেছে, গত ২৭ নভেম্বর উপজেলার পরমেশ্বরদী গ্রামে জমা-জমি নিয়ে রিপন মিয়া ও সরোয়ার খান গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। সংঘর্ষে রিপন মিয়ার ভাই অহিদ মিয়ার অন্তসত্ত্বা স্ত্রীর প্রতিপক্ষের লোকজনের আঘাতে পেটের বাচ্চা নষ্ট হয়ে যায়। এ ঘটনায় ৩০ নভেম্বর অহিদ মিয়া বাদি হয়ে বোয়ালমারী থানায় মামলা করেন।

মামলা করায় রিপন মিয়ার সমর্থক পরমেশ্বরদী গ্রামের আনোয়ার মোল্যাকে (৩৫) মঙ্গলবার দুপুরে হাতুড়ি পেটা করে মারাত্বক আহত করে। মারাত্বক আহত আনোয়ার মোল্লাকে উদ্ধার করে বোয়ালমারী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

আহতের বড় ভাই জাহাঙ্গীর মোল্যা (৩৯) জানান, মঙ্গলবার দুপুরের দিকে তার ভাই আনোয়ার মোল্যা ময়েনদিয়া বাজার থেকে বাড়ি ফেরার পথে পরমেশ্বরদী নতুন রাস্তা আক্তার হাফেজের বাড়ির সামনে পৌঁছালে ওৎ পেতে থাকা পরমেশ্বরদী গ্রামের ছরোয়ার খাঁনের লোকজন তার উপরে হামলা করে। এ সময় হাতুড়ি দিয়ে আনোয়ারকে এলোপাথারী ভাবে পিটিয়ে আহত করা হয়েছে।

তিনি আরো জানান, গত ২৭ নভেম্বর সকালে ছরোয়ার খান ও রিপন মিয়া গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। এ ঘটনায় রিপন মিয়ার ভাই অহিদ মিয়া থানায় মামলা করেন। আমরা রিপন মিয়ার গ্রুপের লোক বলে মামলা করার কারনে আমার ভাইকে হাতুরী দিয়ে মারধর করেছে।
ছরোয়ার খাঁন মোবাইল ফোনে জানান, কয়েকদিন আগে আনোয়ার আমার লোকজনকে মারধর করেছিল। সে কারনে আমার লোকজন আনোয়ারকে মারধর করেছে বলে শুনেছি।

এ ব্যাপারে থানা অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ নুরুল আলম বলেন, মারধরের খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।