ঢাকা , শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪, ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম
Logo ঢাকায় সংবাদ সম্মেলনে কান্নাজড়িত কণ্ঠে আঞ্জুমান আরা Logo দৌলতপুরে ব্র্যাক শাখা অফিসের উদ্বোধন Logo তানোরে ইউপি চেয়ারম্যানের মৃত্যুতে শোকসভা ও মিলাদ Logo তানোরে গরু মোটাতাজা করণে নিষিদ্ধ ওষুধের রমরমা বাণিজ্যে Logo উচ্চ আদালতে রিট পিটিশন দায়েরঃ ভোট গ্রহণের ৫ দিন আগে যশোর সদর উপজেলা পরিষদ নির্বাচন স্থগিত Logo যশোরে ৭০ লাখ টাকা ফেরত না দিয়ে প্রতারণার অভিযোগে আদালতে মামলা Logo তানোর পোস্ট অফিস থেকে টাকা গায়েবঃ ফেরত পেতে গ্রাহকের আত্মহত্যার হুমকি Logo নড়াইল সদর উপজেলা নির্বাচনকে প্রশ্নবিদ্ধ ও বিতর্কিত করার চেষ্টার প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন Logo বোয়ালমারীতে চেয়ারম্যান প্রার্থী লিটু শরীফের গণমাধ্যম কর্মীদের সাথে মতবিনিময় Logo প্রেম প্রস্তাবে ব্যর্থ হয়ে এডিস নিক্ষেপকারী যুবকের যাবজ্জীবন কারাদন্ড
প্রতিনিধি নিয়োগ
দৈনিক সময়ের প্রত্যাশা পত্রিকার জন্য সারা দেশে জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে প্রতিনিধি নিয়োগ করা হচ্ছে। আপনি আপনার এলাকায় সাংবাদিকতা পেশায় আগ্রহী হলে যোগাযোগ করুন।

তানোরে কৃষি ভুর্তুকির মেশিন বিতরণে অনিয়ম

রাজশাহীর তানোরে কৃষি ভর্তুকির মেশিন বিতরণে অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে। কৃষকদের অভিযোগ, অর্থের বিনিময়ে কৃষি কর্মকর্তা সাইফুল্লাহ আহম্মেদ একজনের নামে বরাদ্দকৃত গার্ডেন টেলার (মেশিন) অন্যজনকে দিয়েছেন। এ খবর ছড়িয়ে পড়লে কৃষকদের মাঝে চরম অসন্তোষের সৃষ্টি হয়েছে, উঠেছে সমালোচনার ঝড়, অফিস পাড়ায় বইছে মুখরোচক নানা গুঞ্জন।
এ ঘটনায় ভুক্তভোগী কৃষক সহিদুল ইসলামকে বিভিন্নভাবে ভয়ভীতি দেখিয়ে ঘটনাটি প্রকাশ করতে নিষেধ করা হয়। ফলে সহিদুল ব্যাংক চালান দিয়েও মেশিন না পেয়ে চরম হতাশ হলেও কোথাও অভিযোগ করতে পারেননি। এদিকে স্থানীয় কৃষকেরা ঘটনা তদন্ত করে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সংশ্লিষ্ট বিভাগের উর্ধতন কর্তৃপক্ষের জরুরী হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।
ভুক্তভোগী কৃষক সহিদুল বলেন, তাকে গার্ডেন টেলার দেয়ার জন্য ঈদুল ফিতরের আগে সোনালী ব্যাংক তানোর শাখায় ১১ হাজার ৭৩৪ টাকা চালান দিতে বলা হয়। তিনি সোনালী ব্যাংক তানোর শাখায় ১১ হাজার ৭৩৪ টাকা জমা দেন। কিন্তু চালান দেওয়ার পর রহস্যজনক কারনে তাকে গার্ডেন টেলার (মেশিন) দেয়া হয়নি। অফিসের কর্মকর্তারা আর্থিক সুবিধা নিয়ে অন্য ব্যক্তিকে মেশিন দিয়েছেন। আমি অফিসে একাধিকবার বলেও তারা পাত্তাই দেয়নি। আমি অফিসের আলী রেজার মাধ্যমে চালান দিয়েছি এবং তার কাছেও জমা আছে।
স্থানীয় কৃষকেরা অভিযোগ করে বলেন, কৃষি অফিসার সাইফুল্লাহ আহম্মেদ স্টেশনে থাকেন না। তিনি নিয়োমিত সরকারী গাড়ী নিয়ে শহর থেকে অফিস করেন এবং গাড়ীতে করে পরিবার নিয়ে ঘুরে বেড়ান বলেও অহরহ অভিযোগ রয়েছে তার বিরুদ্ধে।এছাড়াও নিয়মবহির্ভূত ভাবে তার দপ্তরে এসি ব্যবহার করেন।
আলী রেজার কাছে এ বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি সাব জানিয়ে দেন আমি কিছুই বলতে পারবো না।
এ বিষয়ে উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা  সাইফুল্লাহ আহম্মেদ বলেন, আমি ওই সময় বাবা-মাকে নিয়ে ওমরা হজ্বে ছিলাম। যিনি গার্ডেন প্রজেক্ট করে তাকে দেয়ার নিয়ম। কিন্তু ভুলবশত একজনের নামে চালান হয়ে আরেকজনকে দেয়া হয়েছে। সহিদুলকে আগামীতে দেয়া হবে।
তিনি আরো বলেন, স্টেশনে থাকা না থাকার বিষয়টি উর্ধতন কর্তৃপক্ষ দেখবেন। আর তিনি ব্যক্তিগত কাজে গাড়ি ব্যবহার করেন না, যেদিন শহরে মিটিং থাকে সেদিন গাড়ী নিয়ে যাতায়াত করেন।
এ বিষয়ে জেলা উপ-পরিচালকের মোবাইল ফোনে একাধিকবার ফোন দেয়া হলেও তিনি রিসিভ করেন নি।
প্রসঙ্গত, নীতিমালা অনুযায়ি যে উপজেলায় ৯টি ইউনিয়ন পরিষদ রয়েছে, সেই উপজেলায় কৃষি বিভাগ গাড়ী পাবেন। কিন্ত্ত তানোর উপজেলায় ৭টি ইউনিয়ন পরিষদ রয়েছে।
Tag :
এই অথরের আরো সংবাদ দেখুন

ঢাকায় সংবাদ সম্মেলনে কান্নাজড়িত কণ্ঠে আঞ্জুমান আরা

error: Content is protected !!

তানোরে কৃষি ভুর্তুকির মেশিন বিতরণে অনিয়ম

আপডেট টাইম : ০৭:৩৯ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৫ মে ২০২৪
রাজশাহীর তানোরে কৃষি ভর্তুকির মেশিন বিতরণে অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে। কৃষকদের অভিযোগ, অর্থের বিনিময়ে কৃষি কর্মকর্তা সাইফুল্লাহ আহম্মেদ একজনের নামে বরাদ্দকৃত গার্ডেন টেলার (মেশিন) অন্যজনকে দিয়েছেন। এ খবর ছড়িয়ে পড়লে কৃষকদের মাঝে চরম অসন্তোষের সৃষ্টি হয়েছে, উঠেছে সমালোচনার ঝড়, অফিস পাড়ায় বইছে মুখরোচক নানা গুঞ্জন।
এ ঘটনায় ভুক্তভোগী কৃষক সহিদুল ইসলামকে বিভিন্নভাবে ভয়ভীতি দেখিয়ে ঘটনাটি প্রকাশ করতে নিষেধ করা হয়। ফলে সহিদুল ব্যাংক চালান দিয়েও মেশিন না পেয়ে চরম হতাশ হলেও কোথাও অভিযোগ করতে পারেননি। এদিকে স্থানীয় কৃষকেরা ঘটনা তদন্ত করে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সংশ্লিষ্ট বিভাগের উর্ধতন কর্তৃপক্ষের জরুরী হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।
ভুক্তভোগী কৃষক সহিদুল বলেন, তাকে গার্ডেন টেলার দেয়ার জন্য ঈদুল ফিতরের আগে সোনালী ব্যাংক তানোর শাখায় ১১ হাজার ৭৩৪ টাকা চালান দিতে বলা হয়। তিনি সোনালী ব্যাংক তানোর শাখায় ১১ হাজার ৭৩৪ টাকা জমা দেন। কিন্তু চালান দেওয়ার পর রহস্যজনক কারনে তাকে গার্ডেন টেলার (মেশিন) দেয়া হয়নি। অফিসের কর্মকর্তারা আর্থিক সুবিধা নিয়ে অন্য ব্যক্তিকে মেশিন দিয়েছেন। আমি অফিসে একাধিকবার বলেও তারা পাত্তাই দেয়নি। আমি অফিসের আলী রেজার মাধ্যমে চালান দিয়েছি এবং তার কাছেও জমা আছে।
স্থানীয় কৃষকেরা অভিযোগ করে বলেন, কৃষি অফিসার সাইফুল্লাহ আহম্মেদ স্টেশনে থাকেন না। তিনি নিয়োমিত সরকারী গাড়ী নিয়ে শহর থেকে অফিস করেন এবং গাড়ীতে করে পরিবার নিয়ে ঘুরে বেড়ান বলেও অহরহ অভিযোগ রয়েছে তার বিরুদ্ধে।এছাড়াও নিয়মবহির্ভূত ভাবে তার দপ্তরে এসি ব্যবহার করেন।
আলী রেজার কাছে এ বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি সাব জানিয়ে দেন আমি কিছুই বলতে পারবো না।
এ বিষয়ে উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা  সাইফুল্লাহ আহম্মেদ বলেন, আমি ওই সময় বাবা-মাকে নিয়ে ওমরা হজ্বে ছিলাম। যিনি গার্ডেন প্রজেক্ট করে তাকে দেয়ার নিয়ম। কিন্তু ভুলবশত একজনের নামে চালান হয়ে আরেকজনকে দেয়া হয়েছে। সহিদুলকে আগামীতে দেয়া হবে।
তিনি আরো বলেন, স্টেশনে থাকা না থাকার বিষয়টি উর্ধতন কর্তৃপক্ষ দেখবেন। আর তিনি ব্যক্তিগত কাজে গাড়ি ব্যবহার করেন না, যেদিন শহরে মিটিং থাকে সেদিন গাড়ী নিয়ে যাতায়াত করেন।
এ বিষয়ে জেলা উপ-পরিচালকের মোবাইল ফোনে একাধিকবার ফোন দেয়া হলেও তিনি রিসিভ করেন নি।
প্রসঙ্গত, নীতিমালা অনুযায়ি যে উপজেলায় ৯টি ইউনিয়ন পরিষদ রয়েছে, সেই উপজেলায় কৃষি বিভাগ গাড়ী পাবেন। কিন্ত্ত তানোর উপজেলায় ৭টি ইউনিয়ন পরিষদ রয়েছে।