ঢাকা , শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪, ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম
Logo ঢাকায় সংবাদ সম্মেলনে কান্নাজড়িত কণ্ঠে আঞ্জুমান আরা Logo দৌলতপুরে ব্র্যাক শাখা অফিসের উদ্বোধন Logo তানোরে ইউপি চেয়ারম্যানের মৃত্যুতে শোকসভা ও মিলাদ Logo তানোরে গরু মোটাতাজা করণে নিষিদ্ধ ওষুধের রমরমা বাণিজ্যে Logo উচ্চ আদালতে রিট পিটিশন দায়েরঃ ভোট গ্রহণের ৫ দিন আগে যশোর সদর উপজেলা পরিষদ নির্বাচন স্থগিত Logo যশোরে ৭০ লাখ টাকা ফেরত না দিয়ে প্রতারণার অভিযোগে আদালতে মামলা Logo তানোর পোস্ট অফিস থেকে টাকা গায়েবঃ ফেরত পেতে গ্রাহকের আত্মহত্যার হুমকি Logo নড়াইল সদর উপজেলা নির্বাচনকে প্রশ্নবিদ্ধ ও বিতর্কিত করার চেষ্টার প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন Logo বোয়ালমারীতে চেয়ারম্যান প্রার্থী লিটু শরীফের গণমাধ্যম কর্মীদের সাথে মতবিনিময় Logo প্রেম প্রস্তাবে ব্যর্থ হয়ে এডিস নিক্ষেপকারী যুবকের যাবজ্জীবন কারাদন্ড
প্রতিনিধি নিয়োগ
দৈনিক সময়ের প্রত্যাশা পত্রিকার জন্য সারা দেশে জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে প্রতিনিধি নিয়োগ করা হচ্ছে। আপনি আপনার এলাকায় সাংবাদিকতা পেশায় আগ্রহী হলে যোগাযোগ করুন।

বোয়ালমারীতে প্রেমিকসহ দুই বন্ধুর নামে ধর্ষণ মামলায় আটক-১

ফরিদপুরের বোয়ালমারীতে এক কিশোরীকে গণধর্ষণ ও ভিক্টিমের পিতাকে মারধরের অভিযোগে স্থানীয় থানায় মামলা হয়েছে। পুলিশ একজনকে গ্রেপ্তার করে আদালতে চালান দিয়েছে।
থানা ও এলাকাবাসি সূত্রে জানা যায়, উপজেলার পরমেশ্বদী ইউনিয়নের এক কিশোরীর সাথে প্রতিবেশি জুনায়েত শেখের প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। এর সূত্র ধরে জুনায়েত শেখ বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ওই কিশোরীর সহিত শারিরীক সম্পর্ক গড়ে তোলে। গত বছরের ২০ নভেম্বর ওই কিশোরীর পিতা মাতা বাড়ি না থাকার সুবাদে রাতে ওই কিশোরীকে ডেকে নিয়ে মনমত মন্ডলের মেহেগনী বাগানের ভিতরে প্রেমিক জুনায়েত শেখ (১৬) তার বন্ধু জুবাযের ফকির (১৫) ও তরিকুল ফকির (১৬) মিলে ধর্ষণ করে।
ইতিমধ্যে ওই কিশোরীর শারিরীক পরিবর্তন দেখা দেয়। চলতি বছর গত ২৯ এপ্রিল কিশোরীর মা শারিরীক অবস্থার পরি্র্তন সম্পর্কে জানতে চাইলে কিশোরী গর্ভবতী হওয়ার পুরো বিষয়টি তার বাবা মাকে খুলে বলে। ঘটনা শুনে কিশোরীর পিতা গ্রামের মাতুব্বর হারুন শেখের নিকট বিচার দাবী করে। হারুন শেখ (৪৮) কোন বিচারের ব্যবস্থা না করে উল্টো মারধর করে তাদেরকে গ্রাম ছাড়া করে।
বিভিন্ন মাধ্যমে খবর পেয়ে বোয়ালমারী থানার ওসি মো. সহিদুল ইসলাম রোববার (৫ মে) রাতে অভিযান চালিয়ে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ওই গ্রামের তিনজনকে আটক করে। সোমবার বিকেলে ওই কিশোরী ও তার পিতা মাতাকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে এবং কিশোরীর পিতা বাদি হয়ে পরমেশ্বদী গ্রামের মোতালেব শেখের ছেলে জুনায়েত শেখ (১৬), বিল্লাল ফকিরের ছেলে জুবায়ের ফকির (১৫), আলফাডাঙ্গা উপজেলার ভেন্নাতলা গ্রামের তৈয়বের ছেলে তরিকুল ফকির (১৬) ও পরমেশ্বদী গ্রামের সেকেন শেখের ছেলে হারুন শেখকে (৪৮) আসামি করে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন ২০০০ এর ৯ (৩) তৎসহ ৩২৩/৫০৬ ধারায় মামলা করেন। সোমবার রাত সাড়ে ১০ টায় মামলাটি নথিভুক্ত করা হয়। মামলা নম্বর ১৪।
মামলার পর ৪ নম্বর আসামি হারুন ফকিরকে গ্রেপ্তার করে মঙ্গলবার দুপুরে আদালতে চালান দিয়েছে।
এ ব্যাপারে থানা অফিসার ইনচার্জ মো. সহিদুল ইসলাম বলেন, গণধর্ষণের পরে ভিক্টিমদের গ্রাম ছাড়া করা হয়। পরে বিভিন্ন মাধ্যমে এবং এলাকায় গুঞ্জনের ভিত্তিতে স্বপ্রনোদতিত হয়ে এলাকার তিনজনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করি। তার মধ্যে হারুন শেখের সম্পৃক্ততা পাওয়া যায় এবং তার তথ্য অনুযায়ী ভিক্টিম ও ভিক্টিমের মাকে আলফাডাঙ্গা থানার টিটা থেকে এবং ভিক্টিমের পিতাকে ফরিদপুর থেকে উদ্ধার করে নিয়ে আসি। এর পর মামলার ব্যবস্থা নেওয়া হয়।
মঙ্গলবার ভিক্টিমকে স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য ফরিদপুর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে এবং আসামি হারুন শেখকে আদালতে পাঠানো হয়েছে। বাকি আসামিদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।
Tag :
এই অথরের আরো সংবাদ দেখুন

ঢাকায় সংবাদ সম্মেলনে কান্নাজড়িত কণ্ঠে আঞ্জুমান আরা

error: Content is protected !!

বোয়ালমারীতে প্রেমিকসহ দুই বন্ধুর নামে ধর্ষণ মামলায় আটক-১

আপডেট টাইম : ০৫:২২ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৭ মে ২০২৪
ফরিদপুরের বোয়ালমারীতে এক কিশোরীকে গণধর্ষণ ও ভিক্টিমের পিতাকে মারধরের অভিযোগে স্থানীয় থানায় মামলা হয়েছে। পুলিশ একজনকে গ্রেপ্তার করে আদালতে চালান দিয়েছে।
থানা ও এলাকাবাসি সূত্রে জানা যায়, উপজেলার পরমেশ্বদী ইউনিয়নের এক কিশোরীর সাথে প্রতিবেশি জুনায়েত শেখের প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। এর সূত্র ধরে জুনায়েত শেখ বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ওই কিশোরীর সহিত শারিরীক সম্পর্ক গড়ে তোলে। গত বছরের ২০ নভেম্বর ওই কিশোরীর পিতা মাতা বাড়ি না থাকার সুবাদে রাতে ওই কিশোরীকে ডেকে নিয়ে মনমত মন্ডলের মেহেগনী বাগানের ভিতরে প্রেমিক জুনায়েত শেখ (১৬) তার বন্ধু জুবাযের ফকির (১৫) ও তরিকুল ফকির (১৬) মিলে ধর্ষণ করে।
ইতিমধ্যে ওই কিশোরীর শারিরীক পরিবর্তন দেখা দেয়। চলতি বছর গত ২৯ এপ্রিল কিশোরীর মা শারিরীক অবস্থার পরি্র্তন সম্পর্কে জানতে চাইলে কিশোরী গর্ভবতী হওয়ার পুরো বিষয়টি তার বাবা মাকে খুলে বলে। ঘটনা শুনে কিশোরীর পিতা গ্রামের মাতুব্বর হারুন শেখের নিকট বিচার দাবী করে। হারুন শেখ (৪৮) কোন বিচারের ব্যবস্থা না করে উল্টো মারধর করে তাদেরকে গ্রাম ছাড়া করে।
বিভিন্ন মাধ্যমে খবর পেয়ে বোয়ালমারী থানার ওসি মো. সহিদুল ইসলাম রোববার (৫ মে) রাতে অভিযান চালিয়ে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ওই গ্রামের তিনজনকে আটক করে। সোমবার বিকেলে ওই কিশোরী ও তার পিতা মাতাকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে এবং কিশোরীর পিতা বাদি হয়ে পরমেশ্বদী গ্রামের মোতালেব শেখের ছেলে জুনায়েত শেখ (১৬), বিল্লাল ফকিরের ছেলে জুবায়ের ফকির (১৫), আলফাডাঙ্গা উপজেলার ভেন্নাতলা গ্রামের তৈয়বের ছেলে তরিকুল ফকির (১৬) ও পরমেশ্বদী গ্রামের সেকেন শেখের ছেলে হারুন শেখকে (৪৮) আসামি করে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন ২০০০ এর ৯ (৩) তৎসহ ৩২৩/৫০৬ ধারায় মামলা করেন। সোমবার রাত সাড়ে ১০ টায় মামলাটি নথিভুক্ত করা হয়। মামলা নম্বর ১৪।
মামলার পর ৪ নম্বর আসামি হারুন ফকিরকে গ্রেপ্তার করে মঙ্গলবার দুপুরে আদালতে চালান দিয়েছে।
এ ব্যাপারে থানা অফিসার ইনচার্জ মো. সহিদুল ইসলাম বলেন, গণধর্ষণের পরে ভিক্টিমদের গ্রাম ছাড়া করা হয়। পরে বিভিন্ন মাধ্যমে এবং এলাকায় গুঞ্জনের ভিত্তিতে স্বপ্রনোদতিত হয়ে এলাকার তিনজনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করি। তার মধ্যে হারুন শেখের সম্পৃক্ততা পাওয়া যায় এবং তার তথ্য অনুযায়ী ভিক্টিম ও ভিক্টিমের মাকে আলফাডাঙ্গা থানার টিটা থেকে এবং ভিক্টিমের পিতাকে ফরিদপুর থেকে উদ্ধার করে নিয়ে আসি। এর পর মামলার ব্যবস্থা নেওয়া হয়।
মঙ্গলবার ভিক্টিমকে স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য ফরিদপুর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে এবং আসামি হারুন শেখকে আদালতে পাঠানো হয়েছে। বাকি আসামিদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।