ঢাকা , বুধবার, ২২ মে ২০২৪, ৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম
Logo পূর্বভাটদী মাদ্রাসার ম্যানেজিং কমিটির নির্বাচন বহাল রাখার দাবীতে সংবাদ সম্মেলন Logo বিভিন্ন অভিযোগ এনে ভোট বর্জন করলেন চেয়ারম্যান প্রার্থী Logo সালথা ও নগরকান্দা উপজেলা নির্বাচনী কেন্দ্র পরিদর্শন করলেন জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপার Logo ভোটার ২৪৮০, এক ঘণ্টায় ভোট পড়েছে ১২টি, একটি বুথে শূন্য ভোট Logo নিরবছিন্ন বিদ্যুৎ নিশ্চিতে বিদ্যুৎ বিভাগের অনলাইন কর্মশালা Logo প্রিমিয়ার ডিভিশন ক্রিকেট লিগঃ শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্রের বড় ব্যবধানে জয়লাভ Logo আলিপুরে আরসিসি ড্রেন নির্মাণ প্রকল্পের উদ্বোধন করলেন পৌর মেয়র Logo কেন্দ্রে শুধু ভোটার নেই, অন্য সব ঠিক আছে Logo নাটোরে চেয়ারম্যান প্রার্থীর প্রধান সমন্বয়কারীকে হাতুড়িপেটার অভিযোগ Logo ভূরুঙ্গামারীতে স্মার্টফোন কিনে না দেওয়ায় মাদ্রাসা ছাত্রীর আত্মহত্যা
প্রতিনিধি নিয়োগ
দৈনিক সময়ের প্রত্যাশা পত্রিকার জন্য সারা দেশে জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে প্রতিনিধি নিয়োগ করা হচ্ছে। আপনি আপনার এলাকায় সাংবাদিকতা পেশায় আগ্রহী হলে যোগাযোগ করুন।

নগরকান্দায় বজ্রপাতে আহত শিক্ষার্থীরা মাদ্রাসায় ফিরেছে

ফরিদপুরের নগরকান্দায় বজ্রপাতে আহত শিক্ষার্থীরা হাসপাতাল থেকে চিকিৎসা শেষে  মাদ্রাসায় ফিরেছে।  তারা সবাই এখন সুস্থ রয়েছে বলে জানা গেছে।   মঙ্গলবার সকালে তারা হাসপাতাল থেক মাদ্রাসায় যায়।  পরে শিক্ষার্থীদের অভিভাবকেরা এসে  কিছুদিন বিশ্রামের জন্য বাড়িতে নিয়ে যান।

 

গত ৬ মে  সোমবার সন্ধ্যায় উপজেলা সদরে অবস্থিত মদিনা তুল উলুম মাদরাসার মাঠে বজ্রপাতে আঘাত আনে।  এ সময় মাদ্রাসার নূরানী বিভাগের তৃতীয় শ্রেণীর ২১  শিক্ষার্থী  আহত হয়।  মাদ্রাসার শিক্ষক ও অন্যান্য শিক্ষার্থীরা  আহতদের উদ্ধার করে নগরকান্দা উপজেলা হাসপাতালে নিয়ে যায়।  আহতদের  মধ্যে  কর্তব্যরত  চিকিৎসক ১০ জনকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে ছেড়ে দেয়। বাকি  ১১ শিক্ষার্থীকে  উপজেলা হাসপাতালে ভর্তি করে চিকিৎসা  দেওয়া হয় ।  মাদ্রাসার শ্রেণী শিক্ষক মোহাম্মদ  হোসাইন বলেন,    ঘটনার সময় শিক্ষার্থীরা মাদ্রাসার ভবনের বারান্দায়  দাড়িয়েছিল। হটাৎ মাদরাসার মাঠে বজ্রপাতে আঘাত করে।এতে মাদরাসার ২১ শিক্ষার্থী আহত হয়। পরে আহতদের হাসপাতালে ভর্তি করি।

 

মাদ্রাসার মোহতামিম মাওলানা কারামত আলী বলেন,  বৃষ্টি চলাকালীন হঠাৎ করে মাদ্রাসার মাঠে বজ্রপাতে আঘাত লাগে।  এ সময় শিক্ষার্থীরা বারান্দায় দাঁড়িয়েছিল।  তাই ভয়ে ওরা অসুস্থ হয়ে পড়ে।  বর্তমানে সবাই সুস্থ রয়েছে।  হাসপাতাল থেকে মাদ্রাসায় আসার পর কিছুদিন বিশ্রামের জন্য অভিভাবকের মাধ্যমে তাদেরকে বাড়িতে পাঠিয়ে দেয়া হয়েছে।

 

 

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ জয়দেব কুমার সরকার বলেন,  আহতরা কেউ সরাসরি বজ্রপাতে আঘাত লাগেনি। ওদের নিকট স্থানে বজ্রপাতে আঘাত হওয়ায় অসুস্থ হয়। সবাইকে সঠিক চিকিৎসা দিয়ে সুস্থ করে বাড়িতে পাঠিয়ে দেয়া হয়েছে। কয়েকদিন বিশ্রাম নিলে পুরোপুরি সুস্থ হয়ে যাবে।

Tag :
এই অথরের আরো সংবাদ দেখুন

পূর্বভাটদী মাদ্রাসার ম্যানেজিং কমিটির নির্বাচন বহাল রাখার দাবীতে সংবাদ সম্মেলন

error: Content is protected !!

নগরকান্দায় বজ্রপাতে আহত শিক্ষার্থীরা মাদ্রাসায় ফিরেছে

আপডেট টাইম : ০৩:৪৪ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৭ মে ২০২৪

ফরিদপুরের নগরকান্দায় বজ্রপাতে আহত শিক্ষার্থীরা হাসপাতাল থেকে চিকিৎসা শেষে  মাদ্রাসায় ফিরেছে।  তারা সবাই এখন সুস্থ রয়েছে বলে জানা গেছে।   মঙ্গলবার সকালে তারা হাসপাতাল থেক মাদ্রাসায় যায়।  পরে শিক্ষার্থীদের অভিভাবকেরা এসে  কিছুদিন বিশ্রামের জন্য বাড়িতে নিয়ে যান।

 

গত ৬ মে  সোমবার সন্ধ্যায় উপজেলা সদরে অবস্থিত মদিনা তুল উলুম মাদরাসার মাঠে বজ্রপাতে আঘাত আনে।  এ সময় মাদ্রাসার নূরানী বিভাগের তৃতীয় শ্রেণীর ২১  শিক্ষার্থী  আহত হয়।  মাদ্রাসার শিক্ষক ও অন্যান্য শিক্ষার্থীরা  আহতদের উদ্ধার করে নগরকান্দা উপজেলা হাসপাতালে নিয়ে যায়।  আহতদের  মধ্যে  কর্তব্যরত  চিকিৎসক ১০ জনকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে ছেড়ে দেয়। বাকি  ১১ শিক্ষার্থীকে  উপজেলা হাসপাতালে ভর্তি করে চিকিৎসা  দেওয়া হয় ।  মাদ্রাসার শ্রেণী শিক্ষক মোহাম্মদ  হোসাইন বলেন,    ঘটনার সময় শিক্ষার্থীরা মাদ্রাসার ভবনের বারান্দায়  দাড়িয়েছিল। হটাৎ মাদরাসার মাঠে বজ্রপাতে আঘাত করে।এতে মাদরাসার ২১ শিক্ষার্থী আহত হয়। পরে আহতদের হাসপাতালে ভর্তি করি।

 

মাদ্রাসার মোহতামিম মাওলানা কারামত আলী বলেন,  বৃষ্টি চলাকালীন হঠাৎ করে মাদ্রাসার মাঠে বজ্রপাতে আঘাত লাগে।  এ সময় শিক্ষার্থীরা বারান্দায় দাঁড়িয়েছিল।  তাই ভয়ে ওরা অসুস্থ হয়ে পড়ে।  বর্তমানে সবাই সুস্থ রয়েছে।  হাসপাতাল থেকে মাদ্রাসায় আসার পর কিছুদিন বিশ্রামের জন্য অভিভাবকের মাধ্যমে তাদেরকে বাড়িতে পাঠিয়ে দেয়া হয়েছে।

 

 

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ জয়দেব কুমার সরকার বলেন,  আহতরা কেউ সরাসরি বজ্রপাতে আঘাত লাগেনি। ওদের নিকট স্থানে বজ্রপাতে আঘাত হওয়ায় অসুস্থ হয়। সবাইকে সঠিক চিকিৎসা দিয়ে সুস্থ করে বাড়িতে পাঠিয়ে দেয়া হয়েছে। কয়েকদিন বিশ্রাম নিলে পুরোপুরি সুস্থ হয়ে যাবে।