ঢাকা , মঙ্গলবার, ২৩ এপ্রিল ২০২৪, ১০ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম
প্রতিনিধি নিয়োগ
দৈনিক সময়ের প্রত্যাশা পত্রিকার জন্য সারা দেশে জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে প্রতিনিধি নিয়োগ করা হচ্ছে। আপনি আপনার এলাকায় সাংবাদিকতা পেশায় আগ্রহী হলে যোগাযোগ করুন।

সরকারি পাকা রাস্তা নষ্ট করে মাটি বাণিজ্যে

রাজশাহীর তানোরের সীমান্তবর্তী মোহনপুরের ঘাষিগ্রাম ইউনিয়নের (ইউপি) বেলনা গ্রামে সরকারি রাস্তা নষ্ট করে মাটি বানিজ্যের অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় গ্রামবাসীর মাঝে চরস ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। কিন্ত্ত প্রভাবশালী পুকুর মারিকের বিরুদ্ধে প্রকাশ্যে কেউ কোনো প্রতিবাদ করতে পারছে না।
জানা গেছে, ১ এপ্রিল সোমবার সকাল থেকে উপজেলার ঘাসিগ্রাম ইউনিয়নের (ইউপি) বেলনা গ্রামে পুকুর পুনঃখনন ও মাটি দিয়ে বিভিন্ন স্থানের নিচু জমি ভরাট করা হচ্ছে। এদিকে এসব মাটি পরিবহনে এলাকার কাঁচা-পাকা রাস্তা নষ্ট করা হচ্ছে।
স্থানীয়রা জানান, ঘাসিগ্রাম ইউনিয়নের (ইউপি) বেলনা গ্রামে রিয়াজ উদ্দিনের পুত্র প্রভাবশালী সুমন দিগরের এর কাছ থেকে এই পুকুরের মাটি এক লাখ ১৫ হাজার টাকায় কিনে নেয় মাটি ব্যবসায়ী আসাদুল ইসলাম।
এদিকে এই পুকুর এস্কেভেটর (ভেঁকু) মেশিন দিয়ে খনন করে কাদা মাটি অবৈধ ট্রাক্টরের মাধ্যমে পরিবহন করা হচ্ছে। এসব মাটি অবৈধ ট্রাক্টরে পরিবহন করায় কাদামাটি রাস্তায় পড়ে সরকারি পাকা কাচা রাস্তা নস্ট হচ্ছে।  হালকা বৃস্টি হলেই এসব রাস্তা যান চলাচলের প্রায় অনুপযোগী হয়ে পড়বে। বাড়বে ছোট-খাটো দুর্ঘটনা। এসব মাটি দস্যুদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহনের দাবিতে গ্রামবাসি সংশ্লিষ্ট বিভাগের উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের জরুরী হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।
এবিষয়ে জানতে চাইলে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) আয়েশা সিদ্দিকা বলেন, মাটি পরিবহন করে সরকারি পাকা-কাঁচা রাস্তা নষ্ট করা যাবে না। ওই অঞ্চলের রাস্তা রক্ষার দায়িত্ব চেয়ারম্যানের, তাদেরকে সচেতন হতে হবে। সরকারি পাকা রাস্তায় যেন কাদা মাটি পড়ে রাস্তা নষ্ট না হয় সেই জন্য আমি প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবো।
Tag :
এই অথরের আরো সংবাদ দেখুন

জনপ্রিয় সংবাদ

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার হিসাবে গোপালগঞ্জে যোগদান করলেন উখিং মে

error: Content is protected !!

সরকারি পাকা রাস্তা নষ্ট করে মাটি বাণিজ্যে

আপডেট টাইম : ০৮:৪৩ অপরাহ্ন, সোমবার, ১ এপ্রিল ২০২৪
রাজশাহীর তানোরের সীমান্তবর্তী মোহনপুরের ঘাষিগ্রাম ইউনিয়নের (ইউপি) বেলনা গ্রামে সরকারি রাস্তা নষ্ট করে মাটি বানিজ্যের অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় গ্রামবাসীর মাঝে চরস ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। কিন্ত্ত প্রভাবশালী পুকুর মারিকের বিরুদ্ধে প্রকাশ্যে কেউ কোনো প্রতিবাদ করতে পারছে না।
জানা গেছে, ১ এপ্রিল সোমবার সকাল থেকে উপজেলার ঘাসিগ্রাম ইউনিয়নের (ইউপি) বেলনা গ্রামে পুকুর পুনঃখনন ও মাটি দিয়ে বিভিন্ন স্থানের নিচু জমি ভরাট করা হচ্ছে। এদিকে এসব মাটি পরিবহনে এলাকার কাঁচা-পাকা রাস্তা নষ্ট করা হচ্ছে।
স্থানীয়রা জানান, ঘাসিগ্রাম ইউনিয়নের (ইউপি) বেলনা গ্রামে রিয়াজ উদ্দিনের পুত্র প্রভাবশালী সুমন দিগরের এর কাছ থেকে এই পুকুরের মাটি এক লাখ ১৫ হাজার টাকায় কিনে নেয় মাটি ব্যবসায়ী আসাদুল ইসলাম।
এদিকে এই পুকুর এস্কেভেটর (ভেঁকু) মেশিন দিয়ে খনন করে কাদা মাটি অবৈধ ট্রাক্টরের মাধ্যমে পরিবহন করা হচ্ছে। এসব মাটি অবৈধ ট্রাক্টরে পরিবহন করায় কাদামাটি রাস্তায় পড়ে সরকারি পাকা কাচা রাস্তা নস্ট হচ্ছে।  হালকা বৃস্টি হলেই এসব রাস্তা যান চলাচলের প্রায় অনুপযোগী হয়ে পড়বে। বাড়বে ছোট-খাটো দুর্ঘটনা। এসব মাটি দস্যুদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহনের দাবিতে গ্রামবাসি সংশ্লিষ্ট বিভাগের উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের জরুরী হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।
এবিষয়ে জানতে চাইলে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) আয়েশা সিদ্দিকা বলেন, মাটি পরিবহন করে সরকারি পাকা-কাঁচা রাস্তা নষ্ট করা যাবে না। ওই অঞ্চলের রাস্তা রক্ষার দায়িত্ব চেয়ারম্যানের, তাদেরকে সচেতন হতে হবে। সরকারি পাকা রাস্তায় যেন কাদা মাটি পড়ে রাস্তা নষ্ট না হয় সেই জন্য আমি প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবো।