ঢাকা , বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২৪, ৫ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
প্রতিনিধি নিয়োগ
দৈনিক সময়ের প্রত্যাশা পত্রিকার জন্য সারা দেশে জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে প্রতিনিধি নিয়োগ করা হচ্ছে। আপনি আপনার এলাকায় সাংবাদিকতা পেশায় আগ্রহী হলে যোগাযোগ করুন।

জমি দখলের পর মিথ্যা মামলায় হয়রানির প্রতিবাদে মানববন্ধন

saফরিদপুরে অন্যের সম্পত্তি জালিয়াতির মাধ্যমে রেকর্ড করে দখলের পর মিথ্যা মামলা দিয়ে জমির মালিকদের হয়রানির প্রতিবাদে মানববন্ধন হয়েছে। আজ শনিবার সকাল ১১টার দিকে সদর উপজেলার দক্ষিণ চরমাধবদিয়া তালতলা বিশ্বাসেরডাঙ্গিতে অনুষ্ঠিত এ মানববন্ধনে ভুক্তভোগীদের পরিবারের সদস্যরা অংশ নেন।
এসময় তারা এই এলাকার বাসিন্দা লুৎফর রহমান নান্নু খাঁ নামে এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে জমাজমি দখল করে তাদের ভিটাচ্যুত করার অভিযোগ করেন।
মানববন্ধনে আতাউর রহমান চুন্নু (৪৫) বলেন, ১৪২ নং দক্ষিণ চরমাধবদিয়া মৌজার এসএ খতিয়ান ২৯৯ এর ১৯৪৯, ১৯৫০ ও ১৯৫২ দাগে তার দাদাদের সম্পত্তি ছিলো। এর মধ্যে ১৯৫২ নং দাগে তার দাদা সাড়ে ৪৯ শতাংশ জমি তার বাবার নামে লিখে দেন। ওই দাগের জমি সহ সাড়ে ৩২ শতাংশ ভিটাবাড়ি ও ১৯৫০ দাগের ১৪ শতাংশ জমি জালিয়াতির মাধ্যমে রেকর্ড করে নান্নু খাঁ দখল করে নিয়েছেন। এ ব্যাপারে ল্যান্ড সার্ভে ট্রাইব্যুনালে মামলা করেছেন তিনি। ওই মামলা চলমান থাকা অবস্থায় তাদের বিরুদ্ধে একের পর এক মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানি করছেন।
মাজেদা বেগম (৬০) নামে একজন নারী বলেন, তার স্বামীর মৃত্যুর পরে জমিজমা বের করে দেওয়ার কথা বলে কৌশলে কাগজপত্র নিয়ে তার ভিটাবাড়ির জমি নান্নু খাঁ নিজের নামে রেকর্ড করে নেন। লিলি বেগম (৫৫) নামে আরেকজন বিধবা নারী বলেন, তার ভিটার জমি জালিয়াতি করে রেকর্ড করে নেয়ার পর টাকা পয়সা খরচ করে সেই জমি ছাড়িয়ে নেন। এরপর তাকে ও তার মেয়েকে মারধর করে হাত ভেঙ্গে দেন।
মো. রাজু শেখ (৩৫) নামে একজন চাকরিজীবী বলেন, ধরে নান্নু খাঁ তার বিরুদ্ধে ৩টি চাঁদাবাজি মামলা সহ ৬ টি মামলা দেন। তিনি বলেন, তার ক্যান্সার আক্রান্ত মৃত্যুপথযাত্রী বাবার লাস্ট স্টেজ চলছিলো। তার স্ত্রী সন্তান বাইরে থাকায় অসুস্থ বাবার শুশ্রূষা করার মতো কেউ ছিলোনা। সেই অবস্থায় তার বিরুদ্ধে এসব মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানি করা হয়।
মো. বাদশা হোসেন (৪৬) নামে এক ব্যক্তি বলেন, দুই বছর আগে তার ফসলি জমিতে খুঁটি গেড়ে নান্নু খাঁ দখল করে নেন। তিনি আমিন এনে মাপঝোঁক করার কথা বলার পরে দেখা যায়, উল্টো তিনি আরো বেশি জমি পাবেন। এ অবস্থায় নান্নু খাঁ পুলিশ ও লোকজন গুছিয়ে মিথ্যা মামলা দিয়ে তাকে হয়রানি করছেন।
হাশেম খাঁ নামে আরেক ব্যক্তি বলেন, চাচাতো দাদার নিকট থেকে তার বাবা জমি কিনেন। সেই জমির ১৪ শতাংশের মধ্যে মাটি ফেলে গাছ লাগিয়ে নান্নু খাঁ দখল করে নিয়েছেন। মানববন্ধনে ভুক্তভোগীরা এসবের প্রতিকার দাবি করেন।
এব্যাপারে লুৎফর রহমান নান্নু খাঁর কাছে জানতে চাইলে তিনি অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, দক্ষিণ চরমাধবদিয়ার তালতলা এলাকায় তার জমি উল্টো জোর করে দখল করে রেখেছে প্রতিপক্ষ। এর প্রতিবাদ করায় তার নামে মিথ্যা মামলা করে হয়রানি করা হচ্ছে।
Tag :
এই অথরের আরো সংবাদ দেখুন

জনপ্রিয় সংবাদ
error: Content is protected !!

জমি দখলের পর মিথ্যা মামলায় হয়রানির প্রতিবাদে মানববন্ধন

আপডেট টাইম : ১২:৫৮ অপরাহ্ন, শনিবার, ৯ মার্চ ২০২৪
saফরিদপুরে অন্যের সম্পত্তি জালিয়াতির মাধ্যমে রেকর্ড করে দখলের পর মিথ্যা মামলা দিয়ে জমির মালিকদের হয়রানির প্রতিবাদে মানববন্ধন হয়েছে। আজ শনিবার সকাল ১১টার দিকে সদর উপজেলার দক্ষিণ চরমাধবদিয়া তালতলা বিশ্বাসেরডাঙ্গিতে অনুষ্ঠিত এ মানববন্ধনে ভুক্তভোগীদের পরিবারের সদস্যরা অংশ নেন।
এসময় তারা এই এলাকার বাসিন্দা লুৎফর রহমান নান্নু খাঁ নামে এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে জমাজমি দখল করে তাদের ভিটাচ্যুত করার অভিযোগ করেন।
মানববন্ধনে আতাউর রহমান চুন্নু (৪৫) বলেন, ১৪২ নং দক্ষিণ চরমাধবদিয়া মৌজার এসএ খতিয়ান ২৯৯ এর ১৯৪৯, ১৯৫০ ও ১৯৫২ দাগে তার দাদাদের সম্পত্তি ছিলো। এর মধ্যে ১৯৫২ নং দাগে তার দাদা সাড়ে ৪৯ শতাংশ জমি তার বাবার নামে লিখে দেন। ওই দাগের জমি সহ সাড়ে ৩২ শতাংশ ভিটাবাড়ি ও ১৯৫০ দাগের ১৪ শতাংশ জমি জালিয়াতির মাধ্যমে রেকর্ড করে নান্নু খাঁ দখল করে নিয়েছেন। এ ব্যাপারে ল্যান্ড সার্ভে ট্রাইব্যুনালে মামলা করেছেন তিনি। ওই মামলা চলমান থাকা অবস্থায় তাদের বিরুদ্ধে একের পর এক মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানি করছেন।
মাজেদা বেগম (৬০) নামে একজন নারী বলেন, তার স্বামীর মৃত্যুর পরে জমিজমা বের করে দেওয়ার কথা বলে কৌশলে কাগজপত্র নিয়ে তার ভিটাবাড়ির জমি নান্নু খাঁ নিজের নামে রেকর্ড করে নেন। লিলি বেগম (৫৫) নামে আরেকজন বিধবা নারী বলেন, তার ভিটার জমি জালিয়াতি করে রেকর্ড করে নেয়ার পর টাকা পয়সা খরচ করে সেই জমি ছাড়িয়ে নেন। এরপর তাকে ও তার মেয়েকে মারধর করে হাত ভেঙ্গে দেন।
মো. রাজু শেখ (৩৫) নামে একজন চাকরিজীবী বলেন, ধরে নান্নু খাঁ তার বিরুদ্ধে ৩টি চাঁদাবাজি মামলা সহ ৬ টি মামলা দেন। তিনি বলেন, তার ক্যান্সার আক্রান্ত মৃত্যুপথযাত্রী বাবার লাস্ট স্টেজ চলছিলো। তার স্ত্রী সন্তান বাইরে থাকায় অসুস্থ বাবার শুশ্রূষা করার মতো কেউ ছিলোনা। সেই অবস্থায় তার বিরুদ্ধে এসব মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানি করা হয়।
মো. বাদশা হোসেন (৪৬) নামে এক ব্যক্তি বলেন, দুই বছর আগে তার ফসলি জমিতে খুঁটি গেড়ে নান্নু খাঁ দখল করে নেন। তিনি আমিন এনে মাপঝোঁক করার কথা বলার পরে দেখা যায়, উল্টো তিনি আরো বেশি জমি পাবেন। এ অবস্থায় নান্নু খাঁ পুলিশ ও লোকজন গুছিয়ে মিথ্যা মামলা দিয়ে তাকে হয়রানি করছেন।
হাশেম খাঁ নামে আরেক ব্যক্তি বলেন, চাচাতো দাদার নিকট থেকে তার বাবা জমি কিনেন। সেই জমির ১৪ শতাংশের মধ্যে মাটি ফেলে গাছ লাগিয়ে নান্নু খাঁ দখল করে নিয়েছেন। মানববন্ধনে ভুক্তভোগীরা এসবের প্রতিকার দাবি করেন।
এব্যাপারে লুৎফর রহমান নান্নু খাঁর কাছে জানতে চাইলে তিনি অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, দক্ষিণ চরমাধবদিয়ার তালতলা এলাকায় তার জমি উল্টো জোর করে দখল করে রেখেছে প্রতিপক্ষ। এর প্রতিবাদ করায় তার নামে মিথ্যা মামলা করে হয়রানি করা হচ্ছে।