ঢাকা , রবিবার, ০৩ মার্চ ২০২৪, ২০ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
প্রতিনিধি নিয়োগ
দৈনিক সময়ের প্রত্যাশা পত্রিকার জন্য সারা দেশে জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে প্রতিনিধি নিয়োগ করা হচ্ছে। আপনি আপনার এলাকায় সাংবাদিকতা পেশায় আগ্রহী হলে যোগাযোগ করুন।

আমতলীতে জমিজমা বিরোধ নিয়ে শিক্ষককে মারধোর!

-ছবিঃ প্রতীকী।

বরগুনার আমতলীর পৌরসভার বাসুকী এলাকায় জমিজমা বিরোধকে কেন্দ্র করে  এক শিক্ষককে  মারধর করায়  আমতলী উপজেলা বিজ্ঞ সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে মামলা দায়ের করেন পৌরসভার ৮ নং ওয়ার্ডের  আঃ রহমানের স্ত্রী নাসরিন বেগম (২৮)।
মামালা সূত্রে জানা গেছে, জমিজমা বিরোধকে কেন্দ্র করে গত ২৯ নভেম্বর  সকাল ৮টার দিকে প্রতিপক্ষ মোঃ খলিলুর রহমান এর ছেলে মোঃ সাইফুল ইসলাম (৩৪), মোঃ সিদ্দিকুর রহমান (৪২) ও মোঃ মামুন মিয়া (৩৮), মৃত কদম আলীর ছেলে মোঃ খলিলুর রহমান (৬৫), ছিদ্দিকুর রহমান স্ত্রী  মোসাঃ ফাতেমা (৩২), মোঃ সাইফুল ইসলাম এর স্ত্রী লাকি আক্তার (৩০) সহ তাদের দলবল অযথা তর্কের সৃষ্টি করিয়া  প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক আব্দুর রহমান ও তার স্ত্রী  নাসরিন বেগমকে  তাদের ঘরের সামনে উঠানে  অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে এবং দা লঠি দিয়ে মারধর করিয়া মাথাসহ বুকে-পিঠে ও শরীরের বিভিন্ন স্থানে রক্তজমাট ফুলা জখম করে  আব্দুর রহমানের স্ত্রী নাসরিন বেগমের  সাথে থাকা স্বর্নলংকার ছিনিয়ে নিয়ে যায় ।
 আহতদের ডাক চিৎকারে এলাকাবাসী এগিয়ে আসলে খলিলুর রহমান গং রা চলে যায়। স্থানীয় লোকজন আহতদের উদ্ধার করে আমতলী ও বরিশাল শেরেবাংলা মেডিকেল কলেজে ভর্তি করেন।
 এ ঘটনায় আব্দুর রহমানের স্ত্রী নাসরিন বেগম বাদী হয়ে মোঃ সাইফুল ইসলাম (৩৪), মোঃ সিদ্দিকুর রহমান (৪২) ও মোঃ মামুন মিয়া (৩৮)। মৃতঃ কদম আলীর ছেলে মোঃ খলিলুর রহমান (৬৫), ছিদ্দিকুর রহমান (৪০)  মোসাঃ ফাতেমা (৩২), মোঃ সাইফুল ইসলাম (৩৪) লাকি আক্তার (৩০ )কে আসামী করে মামলা দায়ের করেন।
আহত  আব্দুর রহমান  বলেন, জমি জমা বিরোধ  প্রতিপক্ষ আমাদের  মারধোর করেছে এ ঘটনায় আমার স্ত্রী বাদী হয়ে মামলা করায় মামলার আসামীরা মামলা প্রত্যাহারের জন্য অব্যাত হুমকি দিয়ে আসছে । আমি ও আমার পরিবার বর্তমানে নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি।
Tag :
এই অথরের আরো সংবাদ দেখুন

জনপ্রিয় সংবাদ
error: Content is protected !!

আমতলীতে জমিজমা বিরোধ নিয়ে শিক্ষককে মারধোর!

আপডেট টাইম : ০৮:৩৩ অপরাহ্ন, শনিবার, ২ ডিসেম্বর ২০২৩
বরগুনার আমতলীর পৌরসভার বাসুকী এলাকায় জমিজমা বিরোধকে কেন্দ্র করে  এক শিক্ষককে  মারধর করায়  আমতলী উপজেলা বিজ্ঞ সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে মামলা দায়ের করেন পৌরসভার ৮ নং ওয়ার্ডের  আঃ রহমানের স্ত্রী নাসরিন বেগম (২৮)।
মামালা সূত্রে জানা গেছে, জমিজমা বিরোধকে কেন্দ্র করে গত ২৯ নভেম্বর  সকাল ৮টার দিকে প্রতিপক্ষ মোঃ খলিলুর রহমান এর ছেলে মোঃ সাইফুল ইসলাম (৩৪), মোঃ সিদ্দিকুর রহমান (৪২) ও মোঃ মামুন মিয়া (৩৮), মৃত কদম আলীর ছেলে মোঃ খলিলুর রহমান (৬৫), ছিদ্দিকুর রহমান স্ত্রী  মোসাঃ ফাতেমা (৩২), মোঃ সাইফুল ইসলাম এর স্ত্রী লাকি আক্তার (৩০) সহ তাদের দলবল অযথা তর্কের সৃষ্টি করিয়া  প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক আব্দুর রহমান ও তার স্ত্রী  নাসরিন বেগমকে  তাদের ঘরের সামনে উঠানে  অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে এবং দা লঠি দিয়ে মারধর করিয়া মাথাসহ বুকে-পিঠে ও শরীরের বিভিন্ন স্থানে রক্তজমাট ফুলা জখম করে  আব্দুর রহমানের স্ত্রী নাসরিন বেগমের  সাথে থাকা স্বর্নলংকার ছিনিয়ে নিয়ে যায় ।
 আহতদের ডাক চিৎকারে এলাকাবাসী এগিয়ে আসলে খলিলুর রহমান গং রা চলে যায়। স্থানীয় লোকজন আহতদের উদ্ধার করে আমতলী ও বরিশাল শেরেবাংলা মেডিকেল কলেজে ভর্তি করেন।
 এ ঘটনায় আব্দুর রহমানের স্ত্রী নাসরিন বেগম বাদী হয়ে মোঃ সাইফুল ইসলাম (৩৪), মোঃ সিদ্দিকুর রহমান (৪২) ও মোঃ মামুন মিয়া (৩৮)। মৃতঃ কদম আলীর ছেলে মোঃ খলিলুর রহমান (৬৫), ছিদ্দিকুর রহমান (৪০)  মোসাঃ ফাতেমা (৩২), মোঃ সাইফুল ইসলাম (৩৪) লাকি আক্তার (৩০ )কে আসামী করে মামলা দায়ের করেন।
আহত  আব্দুর রহমান  বলেন, জমি জমা বিরোধ  প্রতিপক্ষ আমাদের  মারধোর করেছে এ ঘটনায় আমার স্ত্রী বাদী হয়ে মামলা করায় মামলার আসামীরা মামলা প্রত্যাহারের জন্য অব্যাত হুমকি দিয়ে আসছে । আমি ও আমার পরিবার বর্তমানে নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি।