ঢাকা , রবিবার, ১৪ জুলাই ২০২৪, ৩০ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম
Logo ইতালিতে ইদ্রিস ফরাজিকে নাগরিক সংবর্ধনা প্রদান Logo রেললাইনে ছবি তুলতে গিয়ে ট্রেনের ধাক্কায় মা ও মেয়ে নিহত Logo দুই বঙ্গকন্যা ব্রিটিশ মন্ত্রীসভায় স্থান পাওয়াতে বঙ্গবন্ধু লেখক সাংবাদিক ফোরামের আনন্দ সভা ও মিষ্টি বিতরন Logo স্মার্ট বাংলাদেশ গঠনে বাংলাদেশ স্কাউটস হবে আলোকবর্তিকাঃ -এলজিআরডি প্রতিমন্ত্রী Logo বাঘায় ৬০০ (ছয়শত) পিচ ইয়াবা ট্যাবলেট সহ রাজিব গ্রেফতার Logo গোয়ালন্দে চরমপন্থী দলের সদস্যকে পিটিয়ে হত্যা Logo মাছের উপজেলায় মাছ নেই Logo কুষ্টিয়ায় ব্যবসায়ীকে কুপিয়ে হত্যা Logo নড়াইলের স্মার্ট লোহাগড়া গড়ার লক্ষ্যে সৌন্দর্যবর্ধন কর্মসুচির উদ্বোধন Logo স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর এলজিইডির উদ্যোগে চেক ও সনদপত্র বিতরণ অনুষ্ঠিত
প্রতিনিধি নিয়োগ
দৈনিক সময়ের প্রত্যাশা পত্রিকার জন্য সারা দেশে জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে প্রতিনিধি নিয়োগ করা হচ্ছে। আপনি আপনার এলাকায় সাংবাদিকতা পেশায় আগ্রহী হলে যোগাযোগ করুন।

পরিত্যক্ত কূপ থেকে দিনে মিলবে ৭০ লাখ ঘনফুট গ্যাস

-ছবিঃ প্রতীকী।

সিলেটের কৈলাশটিলা গ্যাসক্ষেত্রের একটি পরিত্যক্ত কূপে গ্যাসের সন্ধান পাওয়া গেছে। এই কূপ থেকে দৈনিক ৭০ লাখ ঘনফুট গ্যাস পাওয়া যাবে। আগামী সপ্তাহ থেকে এই কূপ থেকে গ্যাস উত্তোলন শুরু হবে বলে জানিয়েছেন সিলেট গ্যাস ফিল্ডস লিমিটেডের (এসজিএফএল) কর্মকর্তারা।

 

এসজিএফএল সূত্র জানায়, সিলেটের গোলাপগঞ্জ কৈলাশটিলা-২ নম্বর কূপে দীর্ঘদিন গ্যাস উত্তোলন বন্ধ ছিল। গত ২৭ জুলাই এই কূপ পুনঃখনন শুরু হয়। খননের পর চলতি সপ্তাহে এই কূপে গ্যাসের সন্ধান মিলল।

 

সংশ্লিষ্টরা জানান, জ্বালানি সংকট নিরসনে গ্যাস উৎপাদন বাড়াতে দেশের বিভিন্ন গ্যাস ফিল্ডে ৪৬টি কূপে অনুসন্ধান, খনন ও পুনর্খননের পরিকল্পনা নেয় সরকার। ২০২৫ সালের মধ্যে এসব খননকাজ শেষ হওয়ার কথা। এই পরিকল্পনার অংশ হিসেবে সিলেট গ্যাস ফিল্ডস লিমিটেডের আওতাধীন ১৪টি কূপ খনন ও পুনর্খননের কাজ চলছে। এই ১৪টি কূপের মধ্যে তিনটির খননকাজ শেষে গত বছর থেকে উৎপাদন শুরু হয়। এবার আরেকটি কূপে উৎপাদন শুরু হবে।

 

সিলেট গ্যাস ফিল্ডস লিমিটেডের মহাব্যবস্থাপক (অপারেশন) প্রকৌশলী আবদুল জলিল প্রামানিক জানান, কৈলাশটিলা-২ নম্বর কূপটির পুনর্খনন সফলভাবে সম্পন্ন হয়েছে। আগামী সপ্তাহ থেকে এই কূপের গ্যাস জাতীয় গ্রিডে যুক্ত হবে। প্রতিদিন এখান থেকে ৭০ লাখ ঘনফুট গ্যাস পাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। এ ছাড়া গ্যাসের সঙ্গে এই কূপ থেকে প্রাপ্ত উপজাত থেকে দৈনিক ৭০ ব্যারেল কনডেনসেট উৎপাদন করা যাবে। এই কূপ পুনর্খননে ব্যয় হয়েছে প্রায় ৭১ কোটি ৮৫ লাখ টাকা।

 

গত বছর সিলেট গ্যাস ফিল্ডস লিমিটেডের আওতাধীন সিলেট-৮, কৈলাশটিলা-৭ ও বিয়ানীবাজার-১ নামের ৩টি পরিত্যক্ত কূপ পুনর্খনন করা হয়। এসব কূপ থেকে বর্তমানে দৈনিক ১৬ থেকে ১৮ মিলিয়ন ঘনফুট গ্যাস জাতীয় গ্রিডে সরবরাহ হচ্ছে। সবমিলে বর্তমানে এসজিএফএল এর ১৩টি কূপ থেকে গ্যাস উত্তোলন হচ্ছে। এগুলো থেকে দৈনিক ৯৮ মিলিয়ন ঘনফুট গ্যাস জাতীয় গ্রিডে সরবরাহ হচ্ছে।

 

উল্লেখ্য, ১৯৫৫ সালে সিলেটের হরিপুরে প্রথম গ্যাসের সন্ধান পাওয়া যায়। এরপর আবিষ্কৃত হয় আরও একাধিক গ্যাসক্ষেত্র। বর্তমানে এসজিএফএল এর আওতায় ৫টি গ্যাসক্ষেত্র রয়েছে। এগুলো হলো- হরিপুর গ্যাস ফিল্ড, রশিদপুর গ্যাস ফিল্ড, ছাতক গ্যাস ফিল্ড, কৈলাশটিলা গ্যাস ফিল্ড ও বিয়ানীবাজার গ্যাস ফিল্ড। এরমধ্যে ছাতক গ্যাস ফিল্ড পরিত্যক্ত অবস্থায় রয়েছে।

Tag :
এই অথরের আরো সংবাদ দেখুন

জনপ্রিয় সংবাদ

ইতালিতে ইদ্রিস ফরাজিকে নাগরিক সংবর্ধনা প্রদান

error: Content is protected !!

পরিত্যক্ত কূপ থেকে দিনে মিলবে ৭০ লাখ ঘনফুট গ্যাস

আপডেট টাইম : ১০:৩৯ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৪ নভেম্বর ২০২৩

সিলেটের কৈলাশটিলা গ্যাসক্ষেত্রের একটি পরিত্যক্ত কূপে গ্যাসের সন্ধান পাওয়া গেছে। এই কূপ থেকে দৈনিক ৭০ লাখ ঘনফুট গ্যাস পাওয়া যাবে। আগামী সপ্তাহ থেকে এই কূপ থেকে গ্যাস উত্তোলন শুরু হবে বলে জানিয়েছেন সিলেট গ্যাস ফিল্ডস লিমিটেডের (এসজিএফএল) কর্মকর্তারা।

 

এসজিএফএল সূত্র জানায়, সিলেটের গোলাপগঞ্জ কৈলাশটিলা-২ নম্বর কূপে দীর্ঘদিন গ্যাস উত্তোলন বন্ধ ছিল। গত ২৭ জুলাই এই কূপ পুনঃখনন শুরু হয়। খননের পর চলতি সপ্তাহে এই কূপে গ্যাসের সন্ধান মিলল।

 

সংশ্লিষ্টরা জানান, জ্বালানি সংকট নিরসনে গ্যাস উৎপাদন বাড়াতে দেশের বিভিন্ন গ্যাস ফিল্ডে ৪৬টি কূপে অনুসন্ধান, খনন ও পুনর্খননের পরিকল্পনা নেয় সরকার। ২০২৫ সালের মধ্যে এসব খননকাজ শেষ হওয়ার কথা। এই পরিকল্পনার অংশ হিসেবে সিলেট গ্যাস ফিল্ডস লিমিটেডের আওতাধীন ১৪টি কূপ খনন ও পুনর্খননের কাজ চলছে। এই ১৪টি কূপের মধ্যে তিনটির খননকাজ শেষে গত বছর থেকে উৎপাদন শুরু হয়। এবার আরেকটি কূপে উৎপাদন শুরু হবে।

 

সিলেট গ্যাস ফিল্ডস লিমিটেডের মহাব্যবস্থাপক (অপারেশন) প্রকৌশলী আবদুল জলিল প্রামানিক জানান, কৈলাশটিলা-২ নম্বর কূপটির পুনর্খনন সফলভাবে সম্পন্ন হয়েছে। আগামী সপ্তাহ থেকে এই কূপের গ্যাস জাতীয় গ্রিডে যুক্ত হবে। প্রতিদিন এখান থেকে ৭০ লাখ ঘনফুট গ্যাস পাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। এ ছাড়া গ্যাসের সঙ্গে এই কূপ থেকে প্রাপ্ত উপজাত থেকে দৈনিক ৭০ ব্যারেল কনডেনসেট উৎপাদন করা যাবে। এই কূপ পুনর্খননে ব্যয় হয়েছে প্রায় ৭১ কোটি ৮৫ লাখ টাকা।

 

গত বছর সিলেট গ্যাস ফিল্ডস লিমিটেডের আওতাধীন সিলেট-৮, কৈলাশটিলা-৭ ও বিয়ানীবাজার-১ নামের ৩টি পরিত্যক্ত কূপ পুনর্খনন করা হয়। এসব কূপ থেকে বর্তমানে দৈনিক ১৬ থেকে ১৮ মিলিয়ন ঘনফুট গ্যাস জাতীয় গ্রিডে সরবরাহ হচ্ছে। সবমিলে বর্তমানে এসজিএফএল এর ১৩টি কূপ থেকে গ্যাস উত্তোলন হচ্ছে। এগুলো থেকে দৈনিক ৯৮ মিলিয়ন ঘনফুট গ্যাস জাতীয় গ্রিডে সরবরাহ হচ্ছে।

 

উল্লেখ্য, ১৯৫৫ সালে সিলেটের হরিপুরে প্রথম গ্যাসের সন্ধান পাওয়া যায়। এরপর আবিষ্কৃত হয় আরও একাধিক গ্যাসক্ষেত্র। বর্তমানে এসজিএফএল এর আওতায় ৫টি গ্যাসক্ষেত্র রয়েছে। এগুলো হলো- হরিপুর গ্যাস ফিল্ড, রশিদপুর গ্যাস ফিল্ড, ছাতক গ্যাস ফিল্ড, কৈলাশটিলা গ্যাস ফিল্ড ও বিয়ানীবাজার গ্যাস ফিল্ড। এরমধ্যে ছাতক গ্যাস ফিল্ড পরিত্যক্ত অবস্থায় রয়েছে।