ঢাকা , শুক্রবার, ০৮ ডিসেম্বর ২০২৩, ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
প্রতিনিধি নিয়োগ
দৈনিক সময়ের প্রত্যাশা পত্রিকার জন্য সারা দেশে জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে প্রতিনিধি নিয়োগ করা হচ্ছে। আপনি আপনার এলাকায় সাংবাদিকতা পেশায় আগ্রহী হলে যোগাযোগ করুন।

অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে হাত পা বেঁধে অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষকের বাড়িতে ডাকাতি

ফরিদপুরের বোয়ালমারীতে হাত পা বেঁধে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে অবসরপ্রাপ্ত স্কুল শিক্ষক সনৎ চক্রবর্তী ও তাঁর স্ত্রী সিপালী চক্রবর্তীকে মারধর করে টাকা ও স্বর্ণালংকার ডাকাতি করার অভিযোগ উঠেছে।

 

বৃহস্পতিবার দিবাগত রাতে উপজেলার পরমেশ্বরদী ইউনিয়নের পরমেশ্বরদী ঠাকুর বাড়িতে রাত দেড়টার দিকে এ দুর্ধর্ষ ডাকাতির ঘটনা ঘটেছে।

 

ডাকাত দল এ সময় অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষককে রামদা দিয়ে হাটুর উপরে কোপ মেরে রক্তাক্ত করে। তিনি বর্তমানে ফরিদপুর মেডিকেল হাসপাতে চিকিৎরত অবস্থায় রয়েছেন। তাঁর স্ত্রীরীর কানের লতি ছিঁড়ে স্বর্ণে দুল গলায় থাকা চেইন নিয়ে যায়। ভুক্তভোগী পরিবারের দাবী তাদের নগদ চার লাখ টাকা ও পঞ্চাশ ভরি স্বর্ণ ডাকাত দল নিয়ে গেছে।

 

 

ভুক্তভোগী সিপালী চক্রবর্তী বলেন, বৃহস্পতিবার রাতে আমার স্বামী ও আমি ঘরে ঘুমিয়ে ছিলাম। হঠাৎ কারা যেন ঘরে ঢুকে আমার স্বামীর গলা চেপে ধরে। চিৎকার করলে আমাকেও তারা মারধর করে এবং আমার স্বামীকে রামদা দিয়ে কোপ মারে। আমরা স্তব্ধ হয়ে গেল তারা দশ বারোজন ঘর তল্লাসী করে নগদ টাকা, স্বর্ণালংকার, ল্যাপটপ, স্ক্রীন টার্স চারটা মোবাইল, ডাকাতি করে নিয়ে যায়। পরে দেখি ডাকাত দল জানালার রড কেটে ঘরে প্রবেশ করে।

 

বোয়ালমারী থানা পুলিশ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, খবর পেয়ে ঘটনা স্থল পুলিশ পরিদর্শন করেছে। এ চক্রের সদস্যদের ধরতে পুলিশ তৎপর রয়েছে।

Tag :
এই অথরের আরো সংবাদ দেখুন

জনপ্রিয় সংবাদ
error: Content is protected !!

অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে হাত পা বেঁধে অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষকের বাড়িতে ডাকাতি

আপডেট টাইম : ০৫:৫৩ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১০ নভেম্বর ২০২৩

ফরিদপুরের বোয়ালমারীতে হাত পা বেঁধে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে অবসরপ্রাপ্ত স্কুল শিক্ষক সনৎ চক্রবর্তী ও তাঁর স্ত্রী সিপালী চক্রবর্তীকে মারধর করে টাকা ও স্বর্ণালংকার ডাকাতি করার অভিযোগ উঠেছে।

 

বৃহস্পতিবার দিবাগত রাতে উপজেলার পরমেশ্বরদী ইউনিয়নের পরমেশ্বরদী ঠাকুর বাড়িতে রাত দেড়টার দিকে এ দুর্ধর্ষ ডাকাতির ঘটনা ঘটেছে।

 

ডাকাত দল এ সময় অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষককে রামদা দিয়ে হাটুর উপরে কোপ মেরে রক্তাক্ত করে। তিনি বর্তমানে ফরিদপুর মেডিকেল হাসপাতে চিকিৎরত অবস্থায় রয়েছেন। তাঁর স্ত্রীরীর কানের লতি ছিঁড়ে স্বর্ণে দুল গলায় থাকা চেইন নিয়ে যায়। ভুক্তভোগী পরিবারের দাবী তাদের নগদ চার লাখ টাকা ও পঞ্চাশ ভরি স্বর্ণ ডাকাত দল নিয়ে গেছে।

 

 

ভুক্তভোগী সিপালী চক্রবর্তী বলেন, বৃহস্পতিবার রাতে আমার স্বামী ও আমি ঘরে ঘুমিয়ে ছিলাম। হঠাৎ কারা যেন ঘরে ঢুকে আমার স্বামীর গলা চেপে ধরে। চিৎকার করলে আমাকেও তারা মারধর করে এবং আমার স্বামীকে রামদা দিয়ে কোপ মারে। আমরা স্তব্ধ হয়ে গেল তারা দশ বারোজন ঘর তল্লাসী করে নগদ টাকা, স্বর্ণালংকার, ল্যাপটপ, স্ক্রীন টার্স চারটা মোবাইল, ডাকাতি করে নিয়ে যায়। পরে দেখি ডাকাত দল জানালার রড কেটে ঘরে প্রবেশ করে।

 

বোয়ালমারী থানা পুলিশ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, খবর পেয়ে ঘটনা স্থল পুলিশ পরিদর্শন করেছে। এ চক্রের সদস্যদের ধরতে পুলিশ তৎপর রয়েছে।