ঢাকা , রবিবার, ০৩ মার্চ ২০২৪, ২০ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম
প্রতিনিধি নিয়োগ
দৈনিক সময়ের প্রত্যাশা পত্রিকার জন্য সারা দেশে জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে প্রতিনিধি নিয়োগ করা হচ্ছে। আপনি আপনার এলাকায় সাংবাদিকতা পেশায় আগ্রহী হলে যোগাযোগ করুন।

পাবনায় শতাধিক অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ

পাবনা শহরে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদে অভিযান চালিয়েছে প্রশাসন। রোববার দুপুরে শহরের প্রধান সড়ক আব্দুল হামিদ সড়ক ও সরকারি এডওয়ার্ড কলেজ সড়কে এ অভিযান চালানো হয়।

বুলডোজার দিয়ে সড়কের দুই পাশে ও ফুটপাত দখল করে গড়ে ওঠা অবৈধ স্থাপনা ভেঙে গুড়িয়ে দেয়া হয়। জেলা প্রশাসন, সড়ক ও জনপথ বিভাগ এবং পাবনা পৌরসভা যৌথভাবে এ অভিযান পরিচালনা করে। অভিযানে শতাধিক অবৈধ স্থাপনা ভেঙে ফেলা হয়।

আলাল উদ্দিন, আবুল কালাম আজাদ, ইমন হোসেন, সোহেল হোসেনের দাবি, আমাদের না জানিয়ে, কোনো নোটিশ না দিয়ে ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ও বাড়ি ভেঙ্গে দিয়েছে প্রশাসন। এর আগে জমি পরিমাপ ঠিক হয়নি। একেকবার একেকরকম মাপ হয়। আমরা সময় চাইলেও দেয়া হয়নি। আজ এসে সব ভেঙে দিলো।

তবে জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ আবুল হাসনাত জানান, এর আগে কয়েকবার জমি পরিমাপ করে লাল চিহ্নিত করা হয়েছে। দখলদারদের কয়েকবার করে নোটিশ করে জানানো হয়েছে। স্থানীয় ব্যবসায়ীদের সাথে মতবিনিময় করা হয়েছে। জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট একাধিকবার এসে তাদের জানিয়েছে। অনেকে নিজ দায়িত্ব তাদের স্থাপনা সরিয়ে নিয়েছে। যারা সরিয়ে নেননি তাদের স্থাপনা উচ্ছেদ করা হয়েছে। রোববার শতাধিক স্থাপনা উচ্ছেদ করা হয়। এটি চলমান থাকবে।

Tag :
এই অথরের আরো সংবাদ দেখুন

জনপ্রিয় সংবাদ

খেলাধুলা মানসিক বিকাশ ও শরীর গঠনে সহায়তা করেঃ -লিয়াকত সিকদার

error: Content is protected !!

পাবনায় শতাধিক অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ

আপডেট টাইম : ০৯:৪৭ অপরাহ্ন, রবিবার, ৮ জানুয়ারী ২০২৩
পাবনা শহরে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদে অভিযান চালিয়েছে প্রশাসন। রোববার দুপুরে শহরের প্রধান সড়ক আব্দুল হামিদ সড়ক ও সরকারি এডওয়ার্ড কলেজ সড়কে এ অভিযান চালানো হয়।

বুলডোজার দিয়ে সড়কের দুই পাশে ও ফুটপাত দখল করে গড়ে ওঠা অবৈধ স্থাপনা ভেঙে গুড়িয়ে দেয়া হয়। জেলা প্রশাসন, সড়ক ও জনপথ বিভাগ এবং পাবনা পৌরসভা যৌথভাবে এ অভিযান পরিচালনা করে। অভিযানে শতাধিক অবৈধ স্থাপনা ভেঙে ফেলা হয়।

আলাল উদ্দিন, আবুল কালাম আজাদ, ইমন হোসেন, সোহেল হোসেনের দাবি, আমাদের না জানিয়ে, কোনো নোটিশ না দিয়ে ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ও বাড়ি ভেঙ্গে দিয়েছে প্রশাসন। এর আগে জমি পরিমাপ ঠিক হয়নি। একেকবার একেকরকম মাপ হয়। আমরা সময় চাইলেও দেয়া হয়নি। আজ এসে সব ভেঙে দিলো।

তবে জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ আবুল হাসনাত জানান, এর আগে কয়েকবার জমি পরিমাপ করে লাল চিহ্নিত করা হয়েছে। দখলদারদের কয়েকবার করে নোটিশ করে জানানো হয়েছে। স্থানীয় ব্যবসায়ীদের সাথে মতবিনিময় করা হয়েছে। জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট একাধিকবার এসে তাদের জানিয়েছে। অনেকে নিজ দায়িত্ব তাদের স্থাপনা সরিয়ে নিয়েছে। যারা সরিয়ে নেননি তাদের স্থাপনা উচ্ছেদ করা হয়েছে। রোববার শতাধিক স্থাপনা উচ্ছেদ করা হয়। এটি চলমান থাকবে।