ঢাকা , শনিবার, ০২ মার্চ ২০২৪, ১৯ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম
প্রতিনিধি নিয়োগ
দৈনিক সময়ের প্রত্যাশা পত্রিকার জন্য সারা দেশে জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে প্রতিনিধি নিয়োগ করা হচ্ছে। আপনি আপনার এলাকায় সাংবাদিকতা পেশায় আগ্রহী হলে যোগাযোগ করুন।

বিজয় টিভির সাংবাদিক জামীর বিরুদ্ধে নড়াইল সদরের বিজ্ঞ আমলী আদালতে প্রতারনার দায়ে দুটি মামলা

নড়াইলে বিজয় টিভির সাংবাদিক মোঃ জিয়াউর রহমান জামীর বিরুদ্ধে নড়াইলের সদর বিজ্ঞ আমলী আদালতে প্রতারনার দায়ে মামলা দায়ের করেছেন শহরের কুড়িগ্রামের স্বপ্না বেগম। আজ দুপুরে ধারাঃ ৪০৬/৪২০/৪০৬ পেনাল কোডেস্বপ্না বেগম ও স্বপ্না বেগমের স্বামী মোঃ আসাদ মোল্যা ধারাঃ ফৌঃ কাঃ বিঃ ১০৭ ধারায় দুটি মামলা আদালতে দায়ের করেছেন। আদালত নড়াইল সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকতার উপর তদন্তের দায়িত্ব দিয়ে আদেশ জারী করেছেন। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন আদালতের এ্যাডভোকেট শরিফুল ইসলাম নান্তু।

মামলার বাদী স্বপ্না বেগম জানান, নড়াইল পৌরসভার হাতিরবাগান মোড়ে ইট,বালি,কোয়া,সিমেন্টের পিলার,বাথরুমের চাড়ি,স্লাব,পরিবেশ বান্ধব চুলা
বিক্রয়ের রাজু স্যানিটারী নামে ব্যাবসায়িক প্রতিষ্ঠান রয়েছে। সেখান থেকে সাংবাদিক মোঃ জিয়াউর রহমান জামী ৫/৯/২০২২ ইং তারিখে ৪০টি সিমেন্টের পিলার যার মূল্য ৪৮ হাজার টাকা, এবং ১৫/৯/২০২২ ইং তারিখে আরো ৭০টি সিমেন্টের পিলার যার মূল্য ৭৭ হাজার টাকা ও এক গাড়ি বালি যার মূল্য ১৪ হাজার টাকা ক্রয় করে। মোট মূল্য ১ লক্ষ ৩৯ হাজার টাকার মধ্যে ১০ হাজার টাকা পরিশোধ করে বাকী টাকা পরে দিবে বলে মাল বুঝে নিয়ে চলে যায়।

কিছুদিন অতিবাহিত হলে আমি আমার বাকী ১ লক্ষ ২৭ হাজার টাকা চাইলে জামী আজ দিব কাল দিব বলে ঘুরাইতে থাকে। ফোনে টাকা একাধিক বার চাইলে সাংবাদিক জামী আমাকে নানাবিধ গালিগালাজ করে ব্যাবসা বন্ধ করে দেওয়ার হুমকি দেয়। পরে আমি এলাকার গন্যমান্য ব্যাক্তিদের জানিয়ে আমার স্বামী মোঃ আসাদ মোল্যা ও দক্ষিন নড়াইলের মিলন গাজী ও ভওয়াখালী গ্রামের শরীফকে নিয়ে সাংবাদিক জামীর বাড়িতে টাকা চাইতে গেলে সকলের সামনে বলে তোকে টাকা দেওয়া হবেনা,আর যদি টাকা চাইতে আসিস তাহলে তোকে শেষ করে ফেলবো। তাই আমি জীবন বাচানো ও পাওনা টাকা পাবার জন্য আইনের আশ্রয় নিয়ে মামলা করেছি।

ধারাঃ ফৌঃ কাঃ বিঃ ১০৭ ধারায় মামলা দায়ের করার বাদী মোঃ আসাদ মোল্যা জানান, সাংবাদিক জামী অত্যন্ত শাক্তিশালী দাঙ্গাবাজ সন্ত্রাসী,পরসম্পদলোভী,লাঠিয়াল, গুন্ডা,খুন জখমকারী ও অত্যাচারকারী। সমাজে অন্যায় অত্যাচার ও নানাবিধ অপরাধমুলক কার্য্যকলাপে সে জড়িত। অন্যের সম্পদ,জমি দখল তার নেশা ও পেশা। সাংবাদিকের সাইনবোর্ড নিয়ে সে বিভিন্ন অন্যায় কাজ কওে বেড়ায়। সরকারী টিআর ও এমপি মহোদয়ের কাছ থেকে বিভিন্ন টিআর ও অন্যান্য অনুদান নিয়ে মেরে খাওয়া তার অভ্যাস। সে সাংবাদিকের অফিস সরকারী জায়গায় রাস্তার পাশে নিয়ে অবৈধ বিদ্যুতের ল্ইান নিয়েছিল। গত ০৪.১২.২০২২ ইং তারিখ দুপুর ১২ টার সময় আমাদের ব্যাবসায়িক প্রতিষ্ঠান দখলের উদ্দেশ্যে হাতে রামদা, লোহার রড, বাশের লাঠি ইত্যাদি অস্ত্র সহকারে আমাদের ব্যাবসায়িক প্রতিষ্ঠানের ভীতর প্রবেশ করে সিমেন্টের পিলার,চুলা,স্লাব নেওয়ার জন্য ভ্যানে তুলতে থাকে আমি নিষেধ করলে আমাকে খুন করতে আসে। আমি দৌড়ে ঘরের ভীতর যেয়ে প্রানে বেচে যাই।

আমার ঘরের দরজা ভাঙ্গার চেষ্টা করে গালিগালাজ করে।তার চিৎকারে স্থানীয়রা চলে আসলে আমাকে শাষিয়ে যায় যেখানে পাবে সেখানে খুন করবে, আমার ব্যাবসা প্রতিষ্ঠান ভেঙ্গে ফেলবে জোর করে দখল করবে। এজন্য গুন্ডাবাহিনী ভাড়া করবে। ভয়ে আমি সাভাবিক ভাবে চলাফেরা করতে পারছিনা,দৈনন্দিন কাজকর্ম করতে পারছিনা। আমি প্রানে বাচতে আদালতে মামলা করেছি। এ বিষয়ে বিজয় টিভির সাংবাদিক মোঃ জিয়াউর রহমান জামী বলেন,আমার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করা হচ্ছে। এ বিষয়ে নড়াইল সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ মাহমুদুর রহমান বলেন,আইন সবার জন্য সমান। সাংবাদিকের বিরুদ্ধে আমাদের থানায় যদি কোন অভিযোগ আসে তার সঠিক তদন্ত করে প্রতিবেদন দেওয়া হবে।

Tag :
এই অথরের আরো সংবাদ দেখুন

জনপ্রিয় সংবাদ

খেলাধুলা মানসিক বিকাশ ও শরীর গঠনে সহায়তা করেঃ -লিয়াকত সিকদার

error: Content is protected !!

বিজয় টিভির সাংবাদিক জামীর বিরুদ্ধে নড়াইল সদরের বিজ্ঞ আমলী আদালতে প্রতারনার দায়ে দুটি মামলা

আপডেট টাইম : ০৫:০৯ অপরাহ্ন, বুধবার, ৭ ডিসেম্বর ২০২২

নড়াইলে বিজয় টিভির সাংবাদিক মোঃ জিয়াউর রহমান জামীর বিরুদ্ধে নড়াইলের সদর বিজ্ঞ আমলী আদালতে প্রতারনার দায়ে মামলা দায়ের করেছেন শহরের কুড়িগ্রামের স্বপ্না বেগম। আজ দুপুরে ধারাঃ ৪০৬/৪২০/৪০৬ পেনাল কোডেস্বপ্না বেগম ও স্বপ্না বেগমের স্বামী মোঃ আসাদ মোল্যা ধারাঃ ফৌঃ কাঃ বিঃ ১০৭ ধারায় দুটি মামলা আদালতে দায়ের করেছেন। আদালত নড়াইল সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকতার উপর তদন্তের দায়িত্ব দিয়ে আদেশ জারী করেছেন। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন আদালতের এ্যাডভোকেট শরিফুল ইসলাম নান্তু।

মামলার বাদী স্বপ্না বেগম জানান, নড়াইল পৌরসভার হাতিরবাগান মোড়ে ইট,বালি,কোয়া,সিমেন্টের পিলার,বাথরুমের চাড়ি,স্লাব,পরিবেশ বান্ধব চুলা
বিক্রয়ের রাজু স্যানিটারী নামে ব্যাবসায়িক প্রতিষ্ঠান রয়েছে। সেখান থেকে সাংবাদিক মোঃ জিয়াউর রহমান জামী ৫/৯/২০২২ ইং তারিখে ৪০টি সিমেন্টের পিলার যার মূল্য ৪৮ হাজার টাকা, এবং ১৫/৯/২০২২ ইং তারিখে আরো ৭০টি সিমেন্টের পিলার যার মূল্য ৭৭ হাজার টাকা ও এক গাড়ি বালি যার মূল্য ১৪ হাজার টাকা ক্রয় করে। মোট মূল্য ১ লক্ষ ৩৯ হাজার টাকার মধ্যে ১০ হাজার টাকা পরিশোধ করে বাকী টাকা পরে দিবে বলে মাল বুঝে নিয়ে চলে যায়।

কিছুদিন অতিবাহিত হলে আমি আমার বাকী ১ লক্ষ ২৭ হাজার টাকা চাইলে জামী আজ দিব কাল দিব বলে ঘুরাইতে থাকে। ফোনে টাকা একাধিক বার চাইলে সাংবাদিক জামী আমাকে নানাবিধ গালিগালাজ করে ব্যাবসা বন্ধ করে দেওয়ার হুমকি দেয়। পরে আমি এলাকার গন্যমান্য ব্যাক্তিদের জানিয়ে আমার স্বামী মোঃ আসাদ মোল্যা ও দক্ষিন নড়াইলের মিলন গাজী ও ভওয়াখালী গ্রামের শরীফকে নিয়ে সাংবাদিক জামীর বাড়িতে টাকা চাইতে গেলে সকলের সামনে বলে তোকে টাকা দেওয়া হবেনা,আর যদি টাকা চাইতে আসিস তাহলে তোকে শেষ করে ফেলবো। তাই আমি জীবন বাচানো ও পাওনা টাকা পাবার জন্য আইনের আশ্রয় নিয়ে মামলা করেছি।

ধারাঃ ফৌঃ কাঃ বিঃ ১০৭ ধারায় মামলা দায়ের করার বাদী মোঃ আসাদ মোল্যা জানান, সাংবাদিক জামী অত্যন্ত শাক্তিশালী দাঙ্গাবাজ সন্ত্রাসী,পরসম্পদলোভী,লাঠিয়াল, গুন্ডা,খুন জখমকারী ও অত্যাচারকারী। সমাজে অন্যায় অত্যাচার ও নানাবিধ অপরাধমুলক কার্য্যকলাপে সে জড়িত। অন্যের সম্পদ,জমি দখল তার নেশা ও পেশা। সাংবাদিকের সাইনবোর্ড নিয়ে সে বিভিন্ন অন্যায় কাজ কওে বেড়ায়। সরকারী টিআর ও এমপি মহোদয়ের কাছ থেকে বিভিন্ন টিআর ও অন্যান্য অনুদান নিয়ে মেরে খাওয়া তার অভ্যাস। সে সাংবাদিকের অফিস সরকারী জায়গায় রাস্তার পাশে নিয়ে অবৈধ বিদ্যুতের ল্ইান নিয়েছিল। গত ০৪.১২.২০২২ ইং তারিখ দুপুর ১২ টার সময় আমাদের ব্যাবসায়িক প্রতিষ্ঠান দখলের উদ্দেশ্যে হাতে রামদা, লোহার রড, বাশের লাঠি ইত্যাদি অস্ত্র সহকারে আমাদের ব্যাবসায়িক প্রতিষ্ঠানের ভীতর প্রবেশ করে সিমেন্টের পিলার,চুলা,স্লাব নেওয়ার জন্য ভ্যানে তুলতে থাকে আমি নিষেধ করলে আমাকে খুন করতে আসে। আমি দৌড়ে ঘরের ভীতর যেয়ে প্রানে বেচে যাই।

আমার ঘরের দরজা ভাঙ্গার চেষ্টা করে গালিগালাজ করে।তার চিৎকারে স্থানীয়রা চলে আসলে আমাকে শাষিয়ে যায় যেখানে পাবে সেখানে খুন করবে, আমার ব্যাবসা প্রতিষ্ঠান ভেঙ্গে ফেলবে জোর করে দখল করবে। এজন্য গুন্ডাবাহিনী ভাড়া করবে। ভয়ে আমি সাভাবিক ভাবে চলাফেরা করতে পারছিনা,দৈনন্দিন কাজকর্ম করতে পারছিনা। আমি প্রানে বাচতে আদালতে মামলা করেছি। এ বিষয়ে বিজয় টিভির সাংবাদিক মোঃ জিয়াউর রহমান জামী বলেন,আমার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করা হচ্ছে। এ বিষয়ে নড়াইল সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ মাহমুদুর রহমান বলেন,আইন সবার জন্য সমান। সাংবাদিকের বিরুদ্ধে আমাদের থানায় যদি কোন অভিযোগ আসে তার সঠিক তদন্ত করে প্রতিবেদন দেওয়া হবে।