ঢাকা , বৃহস্পতিবার, ২০ জুন ২০২৪, ৬ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
প্রতিনিধি নিয়োগ
দৈনিক সময়ের প্রত্যাশা পত্রিকার জন্য সারা দেশে জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে প্রতিনিধি নিয়োগ করা হচ্ছে। আপনি আপনার এলাকায় সাংবাদিকতা পেশায় আগ্রহী হলে যোগাযোগ করুন।

আলফাডাঙ্গায় অনৈতিক প্রস্তাবে রাজি না হওয়াতে প্রতিবন্ধীর স্ত্রীকে নিযাতন

dav

চাচা শশুরের অনৈতিক প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় এক গৃহবধুকে পিটিয়ে আহত করার ঘটনা ঘটেছে। রোববার সকালে ফরিদপুরের আলফাডাঙ্গা উপজেলার টগরবন্দ ইউনিয়নের চর ধানাইড় গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। আহত ওই নারীকে আলফাডাঙ্গা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

এ ঘটনায় ভূক্তভোগী ওই নারী রোববার রাতে আলমগীর মোল্লাকে প্রধান অভিযুক্ত করে পাঁচ জনের নাম উল্লেখ করে আলফাডাঙ্গা থানায় লিখিত অভিযোগ করেন।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, চর ধানাইড় গ্রামের প্রতিবন্ধীর স্ত্রী তিন সন্তানের জননীকে একই গ্রামের সম্পর্কে চাচা শশুর আলমগীর মোল্লা প্রায় সময় তাকে অনৈতিক সম্পর্ক করার জন্য কু-প্রস্তাব দেয়। ওই নারী রাজী না হলে বিভিন্ন সময় ভয়ভীতি দেখিয়ে হুমকি প্রদান করে ও তার নামে অপবাদ দিয়ে সংসার ছাড়া করবে বলে হুমকি প্রদান করে।

ঘটনাটি তার স্বামী অভিযুক্ত আলমগীর মোল্লার ভাইদের জানালে তারা ক্ষিপ্ত হয়ে গত সোমবার ভোরে ওই নারী বাবার বাড়ি যাওয়ার সময় ইলিয়াস মোল্লার হুকুমে আলমগীর মোল্লাসহ বিবাদীরা দেশীয় অস্ত্র লাঠিসোঠা নিয়ে পিটিয়ে আহত করে সাথে থাকা নগদ এক লাখ ৫০ হাজার টাকা ও স্বর্ণলঙ্কার ছিনিয়ে নেয়। আহত অবস্থায় পরিবারের লোকজন তাকে আলফাডাঙ্গা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন।

কর্তব্যরত চিকিৎসক তাজিয়া হায়দার জানায়,তার শরীরে আঘাতের চিহৃ রয়েছে। তাকে হাসপাতলে ভর্তি করা হয়েছে সেরে উঠতে সময় লাগবে।

ঘটনা অস্বিকার করে আলমগীর মোল্লা বলেন, তার সাথে আমার কোন খারাপ সম্পর্ক নেই। আমি তাকে কখনো ফোনে বিরক্ত করিনাই, কু-প্রস্তাবও দেই নাই।

ওসি রেজাউল করিম জানান, লিখিত অভিযোগ পেয়েছি তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

Tag :
এই অথরের আরো সংবাদ দেখুন

জনপ্রিয় সংবাদ
error: Content is protected !!

আলফাডাঙ্গায় অনৈতিক প্রস্তাবে রাজি না হওয়াতে প্রতিবন্ধীর স্ত্রীকে নিযাতন

আপডেট টাইম : ০৪:৩৯ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২২ ডিসেম্বর ২০২০

চাচা শশুরের অনৈতিক প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় এক গৃহবধুকে পিটিয়ে আহত করার ঘটনা ঘটেছে। রোববার সকালে ফরিদপুরের আলফাডাঙ্গা উপজেলার টগরবন্দ ইউনিয়নের চর ধানাইড় গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। আহত ওই নারীকে আলফাডাঙ্গা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

এ ঘটনায় ভূক্তভোগী ওই নারী রোববার রাতে আলমগীর মোল্লাকে প্রধান অভিযুক্ত করে পাঁচ জনের নাম উল্লেখ করে আলফাডাঙ্গা থানায় লিখিত অভিযোগ করেন।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, চর ধানাইড় গ্রামের প্রতিবন্ধীর স্ত্রী তিন সন্তানের জননীকে একই গ্রামের সম্পর্কে চাচা শশুর আলমগীর মোল্লা প্রায় সময় তাকে অনৈতিক সম্পর্ক করার জন্য কু-প্রস্তাব দেয়। ওই নারী রাজী না হলে বিভিন্ন সময় ভয়ভীতি দেখিয়ে হুমকি প্রদান করে ও তার নামে অপবাদ দিয়ে সংসার ছাড়া করবে বলে হুমকি প্রদান করে।

ঘটনাটি তার স্বামী অভিযুক্ত আলমগীর মোল্লার ভাইদের জানালে তারা ক্ষিপ্ত হয়ে গত সোমবার ভোরে ওই নারী বাবার বাড়ি যাওয়ার সময় ইলিয়াস মোল্লার হুকুমে আলমগীর মোল্লাসহ বিবাদীরা দেশীয় অস্ত্র লাঠিসোঠা নিয়ে পিটিয়ে আহত করে সাথে থাকা নগদ এক লাখ ৫০ হাজার টাকা ও স্বর্ণলঙ্কার ছিনিয়ে নেয়। আহত অবস্থায় পরিবারের লোকজন তাকে আলফাডাঙ্গা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন।

কর্তব্যরত চিকিৎসক তাজিয়া হায়দার জানায়,তার শরীরে আঘাতের চিহৃ রয়েছে। তাকে হাসপাতলে ভর্তি করা হয়েছে সেরে উঠতে সময় লাগবে।

ঘটনা অস্বিকার করে আলমগীর মোল্লা বলেন, তার সাথে আমার কোন খারাপ সম্পর্ক নেই। আমি তাকে কখনো ফোনে বিরক্ত করিনাই, কু-প্রস্তাবও দেই নাই।

ওসি রেজাউল করিম জানান, লিখিত অভিযোগ পেয়েছি তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।