1. somoyerprotyasha@gmail.com : A.S.M. Murshid :
  2. letusikder@gmail.com : Litu Sikder : Litu Sikder
  3. mokterreporter@gmail.com : Mokter Hossain : Mokter Hossain
  4. tussharpress@gmail.com : Tusshar Bhattacharjee : Tusshar Bhattacharjee
পাটের চেয়ে ভেড়ামারায় পাটকাঠির মূল্য বেশী - দৈনিক সময়ের প্রত্যাশা ডটকম
মঙ্গলবার, ০৯ অগাস্ট ২০২২, ০৫:১৫ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
আলফাডাঙ্গায় কাঁঠাল পাড়া নিয়ে সংঘর্ষ আহত ৭ সালথায় হাট-বাজার উন্নয়নের নামে অর্ধকোটি টাকা লোপাট সালথায় ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযানে দুই প্রতিষ্ঠানের জরিমানা আশ্রয়ণের ঘরে জুয়ার আসর, অসামাজিক কার্যকলাপের অভিযোগ খোকসায় বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন নেছা মুজিব এর জন্মবার্ষিকী উপলক্ষ্যে  সেলাই মেশিন ও টিউবওয়েল বিতরণ মাগুরার বেরইল শামসুদ্দিন দাখিল মাদরাসার ম্যানেজিং কমিটির নির্বাচনে শেষমেষ সভাপতি খবির হোসেনের নাম যাচ্ছে সরকার ক্লাব নির্মাণ শ্রমিক ইউনিয়ন এর মধ্যকার খেলা ড্রঃপয়েন্ট ভাগ খোকসায় বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন নেছা মুজিব এর ৯২ তম জন্মবার্ষিকী পালিত ফরিদপুরে বঙ্গমাতার জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে সেলাই মেশিন ও আর্থিক সহায়তা প্রদান অনুষ্ঠিত বোয়ালমারীতে বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন নেছা মুজিব-এর ৯২ তম জন্মবার্ষিকী পালন

পাটের চেয়ে ভেড়ামারায় পাটকাঠির মূল্য বেশী

ইসমাইল হোসেন বাবু, কুষ্টিয়া জেলা প্রতিনিধিঃ
  • আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ৫ অক্টোবর, ২০২১
  • ১৫৩ বার পঠিত

কুষ্টিয়া ভেড়ামারা উপজেলায় পাটের চেয়ে পাটকাঠির মূল্য বেশী। কারণ,এই উপজেলায় পানের বরজ নির্মাণ ও মেরামতের জন্য পাটকাঠির প্রয়োজনীয়তা বেশী। এই জন্য এখানে পাটকাঠির কদর বহুগুণে বেড়েছে। চাহিদা বেশি থাকায় এ বছর পাটের পাশাপাশি পাটকাঠিরও ভালো দাম পাচ্ছেন চাষিরা। পাটের ও পাটকাঠির ভালো মূল্য পেয়ে চাষিরা খুবই খুশি।

ভেড়ামারা উপজেলা পানচাষি সমিতির সাধারণ সম্পাদক আমিনুর ইসলাম বলেন, ‘উপজেলার অর্থকারী ফসলের মধ্যে ভেড়ামারায় পান অন্যতম। সে কারণে এই এলাকায় পানের বরজের সংখ্যা বেশি। তাই পান বরজ মেরামত করতে অনেক পাটকাঠির প্রয়োজন হয়। আশ্বিন মাসে বরজ মেরামতের সময় এ পাটকাঠি কাজে লাগে। আবার ভাদ্র ও চৈত্র মাসে মেরামতের সময় লাগে। সে সময় ব্যাপারীর কাছ থেকে কিনতে গেলে অনেক বেশি দাম দিয়ে কিনতে হয়। একশত পিলি পান বরজের জন্য ৫০ আঁটি পাটকাঠি লাগে। এখানে ১৬০ টাকা আঁটি। ১আঁটি পাটকাঠি কিনলে ১৮০টি পাটকাঠিতে পাওয়া যায়।

উপজেলার ক্ষেমিরদিয়াড় গ্রামের কৃষক আম্বু বলেন, চলতি বছর তিন বিঘা জমিতে পাট চাষ করেছি। এ বছর ফলন খুব ভালো হয়েছে। পাটকাঠি বিক্রি করেও লাভ হয়েছে। কারণ পাটকাঠির চাহিদা এবার অনেক বেশি।

ভেড়ামারা উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা শায়খুল ইসলাম বলেন, এ মৌসুমে উপজেলায় লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে বেশি পরিমাণে পাট চাষ হয়েছে। যার পরিমাণ ৪ হাজার ৩ শত ৫০ হেক্টর। ফলনও ভালো হয়েছে। পাটকাঠি বিক্রি করেও লাভবান হয়েছেন চাষিরা। এ উপজেলায় পাটকাঠির প্রচুর চাহিদা থাকায় কৃষকেরা দামও বেশি পাচ্ছেন।

Print Friendly, PDF & Email

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো খবর..

 

 

Copyright August, 2020-2022 @ somoyerprotyasha.com
Website Hosted by: Bdwebs.com
themesbazarsomoyerpr1
error: Content is protected !!