ঢাকা , শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪, ৩১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
প্রতিনিধি নিয়োগ
দৈনিক সময়ের প্রত্যাশা পত্রিকার জন্য সারা দেশে জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে প্রতিনিধি নিয়োগ করা হচ্ছে। আপনি আপনার এলাকায় সাংবাদিকতা পেশায় আগ্রহী হলে যোগাযোগ করুন।

ঝিনাইদহে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন

একই পরিবারে চেয়ারম্যান পদে সম্ভাব্য ৬ প্রার্থী!

ঝিনাইদহ সদর উপজেলার গান্না ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান, সন্তান, চাচা, আপন ভাতিজা, শ্যালক ও জামাতার ভাইইয়ের লড়াই।

প্রার্থীরা সবাই পরস্পরের আত্মীয়। বলা যায় একই পরিবারের ৬ জন প্রার্থী। আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনকে ঘিরে ঝিনাইদহ সদর উপজেলার গান্না ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান,  চেয়ারম্যানের সন্তান, চেয়ারম্যানের চাচা, আপন ভাতিজা, শ্যালক ও নিজের জামাতার ভাইইয়ের লড়াই জমে উঠেছে।

এই ইউনিয়নে ছোট শ্যালক আজিজুর রহমান লিটন ব্যতিত বাকী ৫ জন নৌকা প্রতিকের জন্য লড়াই করছেন এবং তারা মনোনয়ন চাইতে পারেন।

এরা হলেন গান্না ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান বেতাই গ্রামের আব্দুল ওহাব, ছেলে আসাদুজ্জামান আসাদ, ভাতিজা সাবেক ছাত্রলীগ নেতা আতিকুল হাসান মাসুম, স্ত্রীর বড় ভাই কালুহাটী গ্রামের তোফাজ্জেল হোসেন বিশ্বাস ও বর্তমান চেয়ারম্যান মোঃ নাসির উদ্দীন মালিতা। নাসির মালিতা হচ্ছে আব্দুল ওহাবের জামাইয়ের ছোট ভাই।

অন্যদিকে সাবেক চেয়ারম্যান আজিজুর রহমান লিটন বিশ্বাস হচ্ছে আব্দুল ওহাবের শ্যালক। তিনি স্বতন্ত্র প্রার্থী হতে পারেন। খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, এরা সবাই এলাকায় গনসংযোগে নেমে পড়েছেন। তাদের গনসংযোগের ছবি ফেসবুকে ছড়িয়ে দেওয়া হচ্ছে।

এদিকে গান্না মুক্তিযোদ্ধা মসিউর রহমান কলেজেরে সভাপতি আসাদুজ্জামান জানান, তার পিতা সাবেক চেয়ারম্যান আব্দুল ওহাব ও তিনি নৌকার মনোনয়ন চাইবেন। একই পরিবারের ৬ প্রার্থীর গনসংযোগ উপভোগ করছেন এলাকার মানুষ। সেই হিসেবে আত্মীয়তার বন্ধন ধরলে গান্না ইউনিয়নে আসন্ন নির্বাচনে ৬ জন প্রার্থী গনসংযোগ চালাচ্ছেন।

একই পরিবারের ৬ প্রার্থীর নির্বাচনের খবরে এলালাকায় মুখরোচক আলোচনা শুরু হয়েছে। ভোটারদের মধ্যে উৎসুক ভাব পরিলক্ষিত হচ্ছে। তবে যোগ্যতার বিচারে বর্তমান চেয়ারম্যান নাসির উদ্দীন ও সাবেক ছাত্রলীগ নেতা মাসুম মনোনয়ন দৌড়ে এগিয়ে আছেন। ভোটারদের মতে নৌকার প্রার্থী যেই হোক মুলত লড়াই হবে বিএনপির প্রার্থীর সঙ্গে। সে হিসেবে স্বতন্ত্র হিসেবে সাবেক চেয়ারম্যান আজিজুর রহমান লিটন দাড়িয়ে থাকলে ত্রীমুখি লড়াই হতে পারে।

Tag :
এই অথরের আরো সংবাদ দেখুন

জনপ্রিয় সংবাদ
error: Content is protected !!

ঝিনাইদহে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন

একই পরিবারে চেয়ারম্যান পদে সম্ভাব্য ৬ প্রার্থী!

আপডেট টাইম : ০৭:১০ অপরাহ্ন, সোমবার, ৩০ নভেম্বর ২০২০

প্রার্থীরা সবাই পরস্পরের আত্মীয়। বলা যায় একই পরিবারের ৬ জন প্রার্থী। আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনকে ঘিরে ঝিনাইদহ সদর উপজেলার গান্না ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান,  চেয়ারম্যানের সন্তান, চেয়ারম্যানের চাচা, আপন ভাতিজা, শ্যালক ও নিজের জামাতার ভাইইয়ের লড়াই জমে উঠেছে।

এই ইউনিয়নে ছোট শ্যালক আজিজুর রহমান লিটন ব্যতিত বাকী ৫ জন নৌকা প্রতিকের জন্য লড়াই করছেন এবং তারা মনোনয়ন চাইতে পারেন।

এরা হলেন গান্না ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান বেতাই গ্রামের আব্দুল ওহাব, ছেলে আসাদুজ্জামান আসাদ, ভাতিজা সাবেক ছাত্রলীগ নেতা আতিকুল হাসান মাসুম, স্ত্রীর বড় ভাই কালুহাটী গ্রামের তোফাজ্জেল হোসেন বিশ্বাস ও বর্তমান চেয়ারম্যান মোঃ নাসির উদ্দীন মালিতা। নাসির মালিতা হচ্ছে আব্দুল ওহাবের জামাইয়ের ছোট ভাই।

অন্যদিকে সাবেক চেয়ারম্যান আজিজুর রহমান লিটন বিশ্বাস হচ্ছে আব্দুল ওহাবের শ্যালক। তিনি স্বতন্ত্র প্রার্থী হতে পারেন। খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, এরা সবাই এলাকায় গনসংযোগে নেমে পড়েছেন। তাদের গনসংযোগের ছবি ফেসবুকে ছড়িয়ে দেওয়া হচ্ছে।

এদিকে গান্না মুক্তিযোদ্ধা মসিউর রহমান কলেজেরে সভাপতি আসাদুজ্জামান জানান, তার পিতা সাবেক চেয়ারম্যান আব্দুল ওহাব ও তিনি নৌকার মনোনয়ন চাইবেন। একই পরিবারের ৬ প্রার্থীর গনসংযোগ উপভোগ করছেন এলাকার মানুষ। সেই হিসেবে আত্মীয়তার বন্ধন ধরলে গান্না ইউনিয়নে আসন্ন নির্বাচনে ৬ জন প্রার্থী গনসংযোগ চালাচ্ছেন।

একই পরিবারের ৬ প্রার্থীর নির্বাচনের খবরে এলালাকায় মুখরোচক আলোচনা শুরু হয়েছে। ভোটারদের মধ্যে উৎসুক ভাব পরিলক্ষিত হচ্ছে। তবে যোগ্যতার বিচারে বর্তমান চেয়ারম্যান নাসির উদ্দীন ও সাবেক ছাত্রলীগ নেতা মাসুম মনোনয়ন দৌড়ে এগিয়ে আছেন। ভোটারদের মতে নৌকার প্রার্থী যেই হোক মুলত লড়াই হবে বিএনপির প্রার্থীর সঙ্গে। সে হিসেবে স্বতন্ত্র হিসেবে সাবেক চেয়ারম্যান আজিজুর রহমান লিটন দাড়িয়ে থাকলে ত্রীমুখি লড়াই হতে পারে।