ঢাকা , বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২৪, ৫ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
প্রতিনিধি নিয়োগ
দৈনিক সময়ের প্রত্যাশা পত্রিকার জন্য সারা দেশে জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে প্রতিনিধি নিয়োগ করা হচ্ছে। আপনি আপনার এলাকায় সাংবাদিকতা পেশায় আগ্রহী হলে যোগাযোগ করুন।

মুকসুদপুরে আন্তজেলা ডাকাত দলের ৩ সদস্য গ্রেপ্তার

গোপালগঞ্জের মুকসুদপুরে আন্তজেলা ডাকাত দলের ৩ সদস্যকে গ্রেপ্তার করেছে থানা পুলিশ।
বুধবার (২৭ মার্চ) সকালে তাদের গোপালগঞ্জ আদালতে প্রেরণ করা হয়। এর আগেরদিন মঙ্গলবার ঢাকা এবং ফরিদপুরের বিভিন্ন এলাকায় অভিযান পরিচালনা তাদের গ্রেপ্তার করা হয়।  গোপালগঞ্জের পুলিশ সুপার আল বেলি আফিফার সার্বক্ষনিক তদারকি ও দিক নিদের্শনায় এবং তদন্তের ধারাবাহিকতায় বিভিন্ন তথ্য উপাত্তের ভিত্তিতে মুকসুদপুর সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার মোহাম্মাদ কামরুজ্জামানের নেতৃত্বে ও মুকসুদপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ আশরাফুল আলমের সহযোগিতা অভিযান পরিচালনা করে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়। গ্রেপ্তারকৃতরা হলো ফরিদপুর জেলার সালথা উপজেলার নটখোলা গ্রামের আলেক মাতুব্বরের ছেলে ডাকাত সর্দার  ডালিম মাতুব্বর (৪৮), একই গ্রামের মোসলেম মুন্সীর ছেলে ডাকাত মঞ্জুরুল ইসলাম (৩৭) এবং বোয়ালমারী থানার দৈবক নন্দনপুর গ্রামের আয়নাল ফকিরের ছেলে জামাল ফকির (৫২)।
মুকসুদপুর থানার ওসি মোহাম্মদ আশরাফুল আলম জানান, ডাকাতির ঘটনার পরে একটি মামলা দায়ের হয়। পরবর্তীতে তথ্য প্রযুক্তির সহায়তায় ঢাকার মোহাম্মদপুর এলাকা থেকে ডাকাত সরদার ডালিম মাতুব্বরকে গ্রেপ্তার করা হয়। পরে তার কাছ থেকে নেয়া তথ্যের ভিত্তিতে ফরিদপুরের বিভিন্ন এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে আরও ২ ডাকাতকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তারা এই ডাকাতির কথা স্বীকার করেছে। তাদের গোপালগঞ্জ আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে। এই ঘটনার সাথে জড়িত বাকী আসামীদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।
উল্লেখ্য গত ১০ নভেম্বর ২০২৩ তারিখ রাতে ঢাকার গুলিস্থান বাস কাউন্টার থেকে ২৭ জন যাত্রী নিয়ে ফালগুনী পরিবহন খুলনার উদ্দেশ্যে ছেড়ে আসে। ভাংগা গোল চত্ত্বর পার হওয়ার পর উক্ত বাসে যাত্রী বেশে ৭ জন ডাকাত গাড়ীর স্টাফ ও যাত্রীদের দেশীয় অস্ত্রের মাধ্যমে জিম্মি করে বাস নিয়ন্ত্রনে নিয়ে বাসে থাকা যাত্রীগণ এবং স্টাফদের নগদ টাকা, স্বর্ণালংকার, মোবাইল ফোন সহ মোট অনুমান দশ লক্ষ টাকার মালামাল লুট করে মুকসুদপুরের দাশেরহাট নামক স্থানে ঢাকা-খুলনা হাইওয়ের পাশে নেমে যায়। পরে এই ঘটনায় মামলা দায়ের হয়।
Tag :
এই অথরের আরো সংবাদ দেখুন

জনপ্রিয় সংবাদ
error: Content is protected !!

মুকসুদপুরে আন্তজেলা ডাকাত দলের ৩ সদস্য গ্রেপ্তার

আপডেট টাইম : ০২:২৭ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৭ মার্চ ২০২৪
গোপালগঞ্জের মুকসুদপুরে আন্তজেলা ডাকাত দলের ৩ সদস্যকে গ্রেপ্তার করেছে থানা পুলিশ।
বুধবার (২৭ মার্চ) সকালে তাদের গোপালগঞ্জ আদালতে প্রেরণ করা হয়। এর আগেরদিন মঙ্গলবার ঢাকা এবং ফরিদপুরের বিভিন্ন এলাকায় অভিযান পরিচালনা তাদের গ্রেপ্তার করা হয়।  গোপালগঞ্জের পুলিশ সুপার আল বেলি আফিফার সার্বক্ষনিক তদারকি ও দিক নিদের্শনায় এবং তদন্তের ধারাবাহিকতায় বিভিন্ন তথ্য উপাত্তের ভিত্তিতে মুকসুদপুর সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার মোহাম্মাদ কামরুজ্জামানের নেতৃত্বে ও মুকসুদপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ আশরাফুল আলমের সহযোগিতা অভিযান পরিচালনা করে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়। গ্রেপ্তারকৃতরা হলো ফরিদপুর জেলার সালথা উপজেলার নটখোলা গ্রামের আলেক মাতুব্বরের ছেলে ডাকাত সর্দার  ডালিম মাতুব্বর (৪৮), একই গ্রামের মোসলেম মুন্সীর ছেলে ডাকাত মঞ্জুরুল ইসলাম (৩৭) এবং বোয়ালমারী থানার দৈবক নন্দনপুর গ্রামের আয়নাল ফকিরের ছেলে জামাল ফকির (৫২)।
মুকসুদপুর থানার ওসি মোহাম্মদ আশরাফুল আলম জানান, ডাকাতির ঘটনার পরে একটি মামলা দায়ের হয়। পরবর্তীতে তথ্য প্রযুক্তির সহায়তায় ঢাকার মোহাম্মদপুর এলাকা থেকে ডাকাত সরদার ডালিম মাতুব্বরকে গ্রেপ্তার করা হয়। পরে তার কাছ থেকে নেয়া তথ্যের ভিত্তিতে ফরিদপুরের বিভিন্ন এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে আরও ২ ডাকাতকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তারা এই ডাকাতির কথা স্বীকার করেছে। তাদের গোপালগঞ্জ আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে। এই ঘটনার সাথে জড়িত বাকী আসামীদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।
উল্লেখ্য গত ১০ নভেম্বর ২০২৩ তারিখ রাতে ঢাকার গুলিস্থান বাস কাউন্টার থেকে ২৭ জন যাত্রী নিয়ে ফালগুনী পরিবহন খুলনার উদ্দেশ্যে ছেড়ে আসে। ভাংগা গোল চত্ত্বর পার হওয়ার পর উক্ত বাসে যাত্রী বেশে ৭ জন ডাকাত গাড়ীর স্টাফ ও যাত্রীদের দেশীয় অস্ত্রের মাধ্যমে জিম্মি করে বাস নিয়ন্ত্রনে নিয়ে বাসে থাকা যাত্রীগণ এবং স্টাফদের নগদ টাকা, স্বর্ণালংকার, মোবাইল ফোন সহ মোট অনুমান দশ লক্ষ টাকার মালামাল লুট করে মুকসুদপুরের দাশেরহাট নামক স্থানে ঢাকা-খুলনা হাইওয়ের পাশে নেমে যায়। পরে এই ঘটনায় মামলা দায়ের হয়।