ঢাকা , বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২৪, ৫ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
প্রতিনিধি নিয়োগ
দৈনিক সময়ের প্রত্যাশা পত্রিকার জন্য সারা দেশে জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে প্রতিনিধি নিয়োগ করা হচ্ছে। আপনি আপনার এলাকায় সাংবাদিকতা পেশায় আগ্রহী হলে যোগাযোগ করুন।

নড়াইলে মাদক মামলায় একজনের যাবজ্জীবন কারাদন্ড

নড়াইলে মাদক মামলায় আলমগীর হোসেন নামে একজনকে যাবজ্জীবন কারাদন্ড ও ২০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও ২ মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ড দেয়া হয়েছে।
রোববার (২৪ মার্চ) দুপুরে নড়াইলের অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ (প্রথম আদালত) মুহাম্মাদ আকরাম হোসেন এ দন্ডাদেশ প্রদান করেন। যাবজ্জীবন দন্ডপ্রাপ্ত আলমগীর হোসেন যশোরের বেনাপোল পোর্ট থানার কাগজপুকুর উল্টরপাড়ার সামছুর রহমান বিশ্বাসের ছেলে।
অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আদালতের অতিরিক্ত পাবলিক প্রসিকিউটর (এপিপি) সরদার মাহবুবুর রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।
এ মামলার বিবরণে জানা যায়, ২০১৩ সালের ১১ জানুয়ারি বেলা ১২টার সময় নড়াইল-যশোর সড়কের সদও উপজেলা রচাঁচড়া নামক স্থানে যশোর থেকে নড়াইলগামী সন্দেহভাজন একটি মোটরসাইকেল পুলিশ থামতে বললে চালক আলমগীর মোটর সাইকেল নিয়ে পালানোর চেষ্টা করে। পুলিশ তাকে ধাওয়া দিয়ে তুলারামপুর চরপাড়া এলাকা থেকে ধরে ফেলে এবং এ সময় তার স্বীকারোক্তি মোতাবেক মোটর সাইকেলের দুই সাইডে ও সিটের নিচে বিশেষভাবে লুকানো রাখা ৯২ বোতল ফেনসিডিল জব্দ করে।
এ ঘটনায় নড়াইল সদও থানায় মাদক দ্রব্য আইনে মামলা দায়ের হয়। পরবর্তীতে আলমগীর হোসেনকে অভিযুক্ত কওে পুলিশ আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করে। মামলায় মোট ১১জন সাক্ষীর সাক্ষ্য গ্রহণ শেষে আসামির বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ সন্দোহীতভাবে প্রমাণীত হওয়ায় বিচারক এ দন্ডাদেশ প্রদান করেন।
Tag :
এই অথরের আরো সংবাদ দেখুন

জনপ্রিয় সংবাদ
error: Content is protected !!

নড়াইলে মাদক মামলায় একজনের যাবজ্জীবন কারাদন্ড

আপডেট টাইম : ০৪:৪৯ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৪ মার্চ ২০২৪
নড়াইলে মাদক মামলায় আলমগীর হোসেন নামে একজনকে যাবজ্জীবন কারাদন্ড ও ২০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও ২ মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ড দেয়া হয়েছে।
রোববার (২৪ মার্চ) দুপুরে নড়াইলের অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ (প্রথম আদালত) মুহাম্মাদ আকরাম হোসেন এ দন্ডাদেশ প্রদান করেন। যাবজ্জীবন দন্ডপ্রাপ্ত আলমগীর হোসেন যশোরের বেনাপোল পোর্ট থানার কাগজপুকুর উল্টরপাড়ার সামছুর রহমান বিশ্বাসের ছেলে।
অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আদালতের অতিরিক্ত পাবলিক প্রসিকিউটর (এপিপি) সরদার মাহবুবুর রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।
এ মামলার বিবরণে জানা যায়, ২০১৩ সালের ১১ জানুয়ারি বেলা ১২টার সময় নড়াইল-যশোর সড়কের সদও উপজেলা রচাঁচড়া নামক স্থানে যশোর থেকে নড়াইলগামী সন্দেহভাজন একটি মোটরসাইকেল পুলিশ থামতে বললে চালক আলমগীর মোটর সাইকেল নিয়ে পালানোর চেষ্টা করে। পুলিশ তাকে ধাওয়া দিয়ে তুলারামপুর চরপাড়া এলাকা থেকে ধরে ফেলে এবং এ সময় তার স্বীকারোক্তি মোতাবেক মোটর সাইকেলের দুই সাইডে ও সিটের নিচে বিশেষভাবে লুকানো রাখা ৯২ বোতল ফেনসিডিল জব্দ করে।
এ ঘটনায় নড়াইল সদও থানায় মাদক দ্রব্য আইনে মামলা দায়ের হয়। পরবর্তীতে আলমগীর হোসেনকে অভিযুক্ত কওে পুলিশ আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করে। মামলায় মোট ১১জন সাক্ষীর সাক্ষ্য গ্রহণ শেষে আসামির বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ সন্দোহীতভাবে প্রমাণীত হওয়ায় বিচারক এ দন্ডাদেশ প্রদান করেন।