ঢাকা , শুক্রবার, ০১ মার্চ ২০২৪, ১৮ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
প্রতিনিধি নিয়োগ
দৈনিক সময়ের প্রত্যাশা পত্রিকার জন্য সারা দেশে জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে প্রতিনিধি নিয়োগ করা হচ্ছে। আপনি আপনার এলাকায় সাংবাদিকতা পেশায় আগ্রহী হলে যোগাযোগ করুন।

আমতলীতে বিদ্যুতের আগুনে বিধবার ঘর পুরে ছাই!

আমতলী পৌরসভার  লোছা গ্রামে বুধবার রাতে বিদ্যুতের আগুনে বিধবার শেষ আশ্রয়স্থল বসত ঘর পুরে  ছাই হয়ে গেছে। বসত ঘর হারিয়ে এখন খোলা আকাশের নিচে দিন কাচ্ছেন বিধবা মনোয়ারা বেগম। আগ্নিকান্ডের খবর পেয়ে আমতলী উজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বৃহস্পতিবার সকালে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।
জানা গেছে, আমতলী পৌরসভার লোছা গ্রামের বিধবা মনোয়ারা বেগম তার বসত ঘরে ঘুমিয়ে ছিলেন। হঠাৎ মধ্যে রাতে জেগে দেখেন আগুনের লেলিহান শিক্ষায় পুরে যাচ্ছে তার বসত ঘর। এসময়  তিনি ডাক চিৎকার শুরু করেন। তার ডাক চিৎকার শুনে  প্রতিবেশীরা এগিয়ে এসে বিধবা মনোয়ারা বেগমকে কোন রকম উদ্ধার করতে পারলেও ততক্ষনে তার ঘরে পুরে ছাই হয়ে গেছে। বৈদ্যুতিক শর্ট সার্কিট থেকে আগুনের লেলিহান শিখায় বিধবা মনোয়ারা বেগমের প্রায় ৫ লক্ষ টাকার ক্ষতি হয়েছে বলে জানান প্রতিবেশী রাজিয়া বেগম।
 শেষ আশ্রয়স্থল হারিয়ে বিধবা মনোয়ারা বেগম কান্নায় ভেঙ্গে পরেন। অগ্নিকান্ডে প্রতিবেশী রাব্বি কবিরাজের বসত ঘরেরও আংশিক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এতে তার ক্ষতির পরিমান প্রায় ২ লক্ষ টাকা। বৃহস্পতিবার সকালে তার বাড়িতে গিয়ে দেখা গেছে খোলা আকাশের নীচে  বসে তিনি শুধু বিলাপ করছেন আর বলছেন মুই এহন কুম্মে যামু কি হরমু। এর চাইয়া মোর  মাইর‌্যা যাওয়ায় ভালো।
 আগ্নিকান্ডের খবর পেয়ে আমতলী উজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মুহাম্মদ আশরাফুল আলম বৃহস্পতিবার সকালে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। এসময় তিনি ক্ষতিগ্রস্ত বিধবাকে সরকারী সহায়তার আশ্বাস প্রদান করেন। এসময় স্থানীয় কাউন্সিলর জিএম মুছাও উপস্থিত ছিলেন।
Tag :
এই অথরের আরো সংবাদ দেখুন

জনপ্রিয় সংবাদ
error: Content is protected !!

আমতলীতে বিদ্যুতের আগুনে বিধবার ঘর পুরে ছাই!

আপডেট টাইম : ০৭:৩১ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৩ নভেম্বর ২০২৩
আমতলী পৌরসভার  লোছা গ্রামে বুধবার রাতে বিদ্যুতের আগুনে বিধবার শেষ আশ্রয়স্থল বসত ঘর পুরে  ছাই হয়ে গেছে। বসত ঘর হারিয়ে এখন খোলা আকাশের নিচে দিন কাচ্ছেন বিধবা মনোয়ারা বেগম। আগ্নিকান্ডের খবর পেয়ে আমতলী উজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বৃহস্পতিবার সকালে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।
জানা গেছে, আমতলী পৌরসভার লোছা গ্রামের বিধবা মনোয়ারা বেগম তার বসত ঘরে ঘুমিয়ে ছিলেন। হঠাৎ মধ্যে রাতে জেগে দেখেন আগুনের লেলিহান শিক্ষায় পুরে যাচ্ছে তার বসত ঘর। এসময়  তিনি ডাক চিৎকার শুরু করেন। তার ডাক চিৎকার শুনে  প্রতিবেশীরা এগিয়ে এসে বিধবা মনোয়ারা বেগমকে কোন রকম উদ্ধার করতে পারলেও ততক্ষনে তার ঘরে পুরে ছাই হয়ে গেছে। বৈদ্যুতিক শর্ট সার্কিট থেকে আগুনের লেলিহান শিখায় বিধবা মনোয়ারা বেগমের প্রায় ৫ লক্ষ টাকার ক্ষতি হয়েছে বলে জানান প্রতিবেশী রাজিয়া বেগম।
 শেষ আশ্রয়স্থল হারিয়ে বিধবা মনোয়ারা বেগম কান্নায় ভেঙ্গে পরেন। অগ্নিকান্ডে প্রতিবেশী রাব্বি কবিরাজের বসত ঘরেরও আংশিক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এতে তার ক্ষতির পরিমান প্রায় ২ লক্ষ টাকা। বৃহস্পতিবার সকালে তার বাড়িতে গিয়ে দেখা গেছে খোলা আকাশের নীচে  বসে তিনি শুধু বিলাপ করছেন আর বলছেন মুই এহন কুম্মে যামু কি হরমু। এর চাইয়া মোর  মাইর‌্যা যাওয়ায় ভালো।
 আগ্নিকান্ডের খবর পেয়ে আমতলী উজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মুহাম্মদ আশরাফুল আলম বৃহস্পতিবার সকালে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। এসময় তিনি ক্ষতিগ্রস্ত বিধবাকে সরকারী সহায়তার আশ্বাস প্রদান করেন। এসময় স্থানীয় কাউন্সিলর জিএম মুছাও উপস্থিত ছিলেন।