ঢাকা , বৃহস্পতিবার, ২০ জুন ২০২৪, ৬ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
প্রতিনিধি নিয়োগ
দৈনিক সময়ের প্রত্যাশা পত্রিকার জন্য সারা দেশে জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে প্রতিনিধি নিয়োগ করা হচ্ছে। আপনি আপনার এলাকায় সাংবাদিকতা পেশায় আগ্রহী হলে যোগাযোগ করুন।

মেলান্দহ উপজেলা আ.লীগ সম্পাদকের সাথে বাকবিতন্ডা

আদ্রা ইউপি চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আ.লীগ সদস্য রফিকুল ইসলাম কে কারন দর্শানোর নোটিশ

জামালপুরের মেলান্দহে উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদকের সাথে অসদাচরণ করার অভিযোগে আদ্রা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সদস্য ও আদ্রা  ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানকে কারন দর্শানোর নোটিশ দেওয়া হয়েছে।
বৃহস্পতিবার (১১মে) সকালে মেলান্দহ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোহাম্মদ আলী জিন্নাহ সাধারণ সম্পাদক মোঃ জিন্নাহ সাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানা যায়।
লিখিত ওই বিজ্ঞপ্তি সুত্রে জানা যায়, বুধবার (১০মে) দুপুরে মেলান্দহ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যানের কার্যালয়ে আদ্রা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক এবং  অভিযুক্ত আদ্রা ইউনিয়ন আ.লীগের সদস্য ও  ইউনিয়ন পরিষদের আ.লীগ সর্মথিত চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম খোকার মধ্যকার বিরোধ নিষ্পত্তি করার লক্ষে অনুষ্ঠিত বৈঠকে রফিকুল ইসলাম খোকা মেলান্দহ উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. জিন্নাহ এর সাথে বাকবিতন্ডায় জড়িয়ে পড়েন এবং উচ্চস্বরে অশালীন বাক্য প্রয়োগ করেন।
যাহা দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গ ও শিষ্টাচার বহির্ভূত। এমন কার্যকলাপ করায় দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের অভিযোগে দলীয় গঠনতন্ত্রের ৪৭ এর ৯ ধারা মোতাবেক কেনো তাকে সদস্য পদ হতে অব্যাহতি প্রদান করা হবে না। তার লিখিত জবাব আগামী ৭ (সাত) দিনের মধ্যে নিম্ন স্বাক্ষরকারীর কার্যালয়ে দাখিল করার জন্য অনুরোধ করা হয় এবং পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত তাকে দলীয় কোন কর্মকান্ডে অংশ গ্রহন করতে পারবেন না বলে জানানো হয়।
এ বিষয়ে আদ্রা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সদস্য রফিকুল ইসলাম খোকা বলেন, উপজেলা আওয়ামী লীগ থেকে কারন দর্শানোর নোটিশ পেয়েছি, আগামী সাত দিনের মধ্যে চিন্তা ভাবনা করে তাদের কাছে কারন দর্শাবো।
এ প্রসঙ্গে মেলান্দহ উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. জিন্নাহ বলেন, অসদাচরণ করায় তাকে কারন দর্শানোর নোটিশ দেওয়া হয়েছে। ৭ কার্য দিবসের মধ্যে সন্তোষজনক কারন দর্শাতে ব্যর্থ হলে তাকে স্থায়ীভাবে বহিষ্কার করা হবে। পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত সে দলীয় কোন কর্মকান্ডে অংশ গ্রহন করতে পারবে না।
Tag :
এই অথরের আরো সংবাদ দেখুন

জনপ্রিয় সংবাদ
error: Content is protected !!

মেলান্দহ উপজেলা আ.লীগ সম্পাদকের সাথে বাকবিতন্ডা

আদ্রা ইউপি চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আ.লীগ সদস্য রফিকুল ইসলাম কে কারন দর্শানোর নোটিশ

আপডেট টাইম : ০৩:৩৭ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১২ মে ২০২৩
জামালপুরের মেলান্দহে উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদকের সাথে অসদাচরণ করার অভিযোগে আদ্রা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সদস্য ও আদ্রা  ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানকে কারন দর্শানোর নোটিশ দেওয়া হয়েছে।
বৃহস্পতিবার (১১মে) সকালে মেলান্দহ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোহাম্মদ আলী জিন্নাহ সাধারণ সম্পাদক মোঃ জিন্নাহ সাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানা যায়।
লিখিত ওই বিজ্ঞপ্তি সুত্রে জানা যায়, বুধবার (১০মে) দুপুরে মেলান্দহ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যানের কার্যালয়ে আদ্রা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক এবং  অভিযুক্ত আদ্রা ইউনিয়ন আ.লীগের সদস্য ও  ইউনিয়ন পরিষদের আ.লীগ সর্মথিত চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম খোকার মধ্যকার বিরোধ নিষ্পত্তি করার লক্ষে অনুষ্ঠিত বৈঠকে রফিকুল ইসলাম খোকা মেলান্দহ উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. জিন্নাহ এর সাথে বাকবিতন্ডায় জড়িয়ে পড়েন এবং উচ্চস্বরে অশালীন বাক্য প্রয়োগ করেন।
যাহা দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গ ও শিষ্টাচার বহির্ভূত। এমন কার্যকলাপ করায় দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের অভিযোগে দলীয় গঠনতন্ত্রের ৪৭ এর ৯ ধারা মোতাবেক কেনো তাকে সদস্য পদ হতে অব্যাহতি প্রদান করা হবে না। তার লিখিত জবাব আগামী ৭ (সাত) দিনের মধ্যে নিম্ন স্বাক্ষরকারীর কার্যালয়ে দাখিল করার জন্য অনুরোধ করা হয় এবং পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত তাকে দলীয় কোন কর্মকান্ডে অংশ গ্রহন করতে পারবেন না বলে জানানো হয়।
এ বিষয়ে আদ্রা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সদস্য রফিকুল ইসলাম খোকা বলেন, উপজেলা আওয়ামী লীগ থেকে কারন দর্শানোর নোটিশ পেয়েছি, আগামী সাত দিনের মধ্যে চিন্তা ভাবনা করে তাদের কাছে কারন দর্শাবো।
এ প্রসঙ্গে মেলান্দহ উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. জিন্নাহ বলেন, অসদাচরণ করায় তাকে কারন দর্শানোর নোটিশ দেওয়া হয়েছে। ৭ কার্য দিবসের মধ্যে সন্তোষজনক কারন দর্শাতে ব্যর্থ হলে তাকে স্থায়ীভাবে বহিষ্কার করা হবে। পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত সে দলীয় কোন কর্মকান্ডে অংশ গ্রহন করতে পারবে না।