ঢাকা , শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪, ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম
Logo ঢাকায় সংবাদ সম্মেলনে কান্নাজড়িত কণ্ঠে আঞ্জুমান আরা Logo দৌলতপুরে ব্র্যাক শাখা অফিসের উদ্বোধন Logo তানোরে ইউপি চেয়ারম্যানের মৃত্যুতে শোকসভা ও মিলাদ Logo তানোরে গরু মোটাতাজা করণে নিষিদ্ধ ওষুধের রমরমা বাণিজ্যে Logo উচ্চ আদালতে রিট পিটিশন দায়েরঃ ভোট গ্রহণের ৫ দিন আগে যশোর সদর উপজেলা পরিষদ নির্বাচন স্থগিত Logo যশোরে ৭০ লাখ টাকা ফেরত না দিয়ে প্রতারণার অভিযোগে আদালতে মামলা Logo তানোর পোস্ট অফিস থেকে টাকা গায়েবঃ ফেরত পেতে গ্রাহকের আত্মহত্যার হুমকি Logo নড়াইল সদর উপজেলা নির্বাচনকে প্রশ্নবিদ্ধ ও বিতর্কিত করার চেষ্টার প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন Logo বোয়ালমারীতে চেয়ারম্যান প্রার্থী লিটু শরীফের গণমাধ্যম কর্মীদের সাথে মতবিনিময় Logo প্রেম প্রস্তাবে ব্যর্থ হয়ে এডিস নিক্ষেপকারী যুবকের যাবজ্জীবন কারাদন্ড
প্রতিনিধি নিয়োগ
দৈনিক সময়ের প্রত্যাশা পত্রিকার জন্য সারা দেশে জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে প্রতিনিধি নিয়োগ করা হচ্ছে। আপনি আপনার এলাকায় সাংবাদিকতা পেশায় আগ্রহী হলে যোগাযোগ করুন।

মহম্মদপুরের নহাটায় এক মহিলার স্বর্ণালংকার ও স্মার্টফোন ছিনতাই

গতকাল ২২শে ফেব্রুয়ারী ২০২১ রোজ সোমবার সন্ধ্যার পরে মাগুরা জেলার মহম্মদপুর উপজেলার নহাটা ইউনিয়নে জনৈক মহিলার স্বর্ণালংকার ও স্মার্টফোন ছিনতাই হয়েছে।
জানা যায় ঐ মহিলা নহাটা বাজার থেকে মোটরসাইকেল ভাড়াকরে পিতার বাড়ি খলিশাখালী যাওয়ার পথে চাকুলিয়া পার হলে নির্জন স্থানে গাড়ি থামিয়ে প্রথমে শারিরীক ভাবে শ্লীলতাহানি করে অতঃপর  মহিলার হাতে  থাকা স্মার্টফোন, গলার স্বর্ণের চেন ও কানের দুল নিয়ে পালিয়ে যায়।
কোন উপায় অন্তর না পেয়ে মহিলা পিতার বাড়ি গিয়ে সমস্ত ঘটনা খুলে বললে তাৎক্ষণিক নহাটা পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রে অবগত করে।পুলিশ দ্রুত প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করে ভিকটিম ও অপরাধীদের সনাক্ত করতে সক্ষম হয়।মহিলার পরিচয় বিষয়ে জানা যায়, নাম-মোছাঃ সালমা (২২) পিতা-তবিবার শেখ, গ্রাম -খলিশাখালী।
স্বামীর নাম-হাফেজ মোঃ দেলোয়ার হোসেন,গ্রাম – বলরামপুর,মহম্মদপুর, মাগুরা।ছিনতাইয়ের সাথে জড়িত ছিল নহাটা বারই পাড়ার মৃত জলিল মোল্লার ছেলে মোঃরওদাক হোসেন (৪০)এবং নারান্দিয়া জাকিরের ছেলে মোঃ জুয়েল(২৫)। তাদের বিরুদ্ধে এর আগেও এরকম বিভিন্ন অপকর্মের অভিযোগ আছে বলে জানা যায়।এ ঘটনার নেপথ্যে আরও কেউ জড়িত থাকতে পারে বলে অনেকেই ধারণা করছেন।
এ বিষয়ে নহাটা পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ মোঃবোরহানুল ইসলাম সাহেবের নিকট জানতে চাইলে বলেন, আমরা ঘটনাটি মৌখিকভাবে জানার পর তৎপর হয়ে  বিভিন্ন কৌশলে মালামাল উদ্ধার করেছি।লিখিত অভিযোগ পেলে অপরাধীদের বিরুদ্ধ  আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।
মালামাল উদ্ধারের বিষয়ে জানতে চাইলে ভুক্তভোগীর পরিবারও স্বীকার করেন আমরা  আমাদের মালামাল পেয়েছি। আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করবে কি না জানতে চাইলে বলেন মহিলার স্বামীর সাথে কথা বলে সিদ্ধান্ত নিবেন।ভুক্তভোগী মহিলার স্বামী একজন হাফেজ। তিনি মাগুরা পুলিশ লাইন জামে মসজিদের ইমামমতি করেন বলে জানা গেছে।
Tag :
এই অথরের আরো সংবাদ দেখুন

ঢাকায় সংবাদ সম্মেলনে কান্নাজড়িত কণ্ঠে আঞ্জুমান আরা

error: Content is protected !!

মহম্মদপুরের নহাটায় এক মহিলার স্বর্ণালংকার ও স্মার্টফোন ছিনতাই

আপডেট টাইম : ১০:৩১ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২১
গতকাল ২২শে ফেব্রুয়ারী ২০২১ রোজ সোমবার সন্ধ্যার পরে মাগুরা জেলার মহম্মদপুর উপজেলার নহাটা ইউনিয়নে জনৈক মহিলার স্বর্ণালংকার ও স্মার্টফোন ছিনতাই হয়েছে।
জানা যায় ঐ মহিলা নহাটা বাজার থেকে মোটরসাইকেল ভাড়াকরে পিতার বাড়ি খলিশাখালী যাওয়ার পথে চাকুলিয়া পার হলে নির্জন স্থানে গাড়ি থামিয়ে প্রথমে শারিরীক ভাবে শ্লীলতাহানি করে অতঃপর  মহিলার হাতে  থাকা স্মার্টফোন, গলার স্বর্ণের চেন ও কানের দুল নিয়ে পালিয়ে যায়।
কোন উপায় অন্তর না পেয়ে মহিলা পিতার বাড়ি গিয়ে সমস্ত ঘটনা খুলে বললে তাৎক্ষণিক নহাটা পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রে অবগত করে।পুলিশ দ্রুত প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করে ভিকটিম ও অপরাধীদের সনাক্ত করতে সক্ষম হয়।মহিলার পরিচয় বিষয়ে জানা যায়, নাম-মোছাঃ সালমা (২২) পিতা-তবিবার শেখ, গ্রাম -খলিশাখালী।
স্বামীর নাম-হাফেজ মোঃ দেলোয়ার হোসেন,গ্রাম – বলরামপুর,মহম্মদপুর, মাগুরা।ছিনতাইয়ের সাথে জড়িত ছিল নহাটা বারই পাড়ার মৃত জলিল মোল্লার ছেলে মোঃরওদাক হোসেন (৪০)এবং নারান্দিয়া জাকিরের ছেলে মোঃ জুয়েল(২৫)। তাদের বিরুদ্ধে এর আগেও এরকম বিভিন্ন অপকর্মের অভিযোগ আছে বলে জানা যায়।এ ঘটনার নেপথ্যে আরও কেউ জড়িত থাকতে পারে বলে অনেকেই ধারণা করছেন।
এ বিষয়ে নহাটা পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ মোঃবোরহানুল ইসলাম সাহেবের নিকট জানতে চাইলে বলেন, আমরা ঘটনাটি মৌখিকভাবে জানার পর তৎপর হয়ে  বিভিন্ন কৌশলে মালামাল উদ্ধার করেছি।লিখিত অভিযোগ পেলে অপরাধীদের বিরুদ্ধ  আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।
মালামাল উদ্ধারের বিষয়ে জানতে চাইলে ভুক্তভোগীর পরিবারও স্বীকার করেন আমরা  আমাদের মালামাল পেয়েছি। আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করবে কি না জানতে চাইলে বলেন মহিলার স্বামীর সাথে কথা বলে সিদ্ধান্ত নিবেন।ভুক্তভোগী মহিলার স্বামী একজন হাফেজ। তিনি মাগুরা পুলিশ লাইন জামে মসজিদের ইমামমতি করেন বলে জানা গেছে।