ঢাকা , শনিবার, ০৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ২২ মাঘ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম
জাতীয় সংসদ -৪৪, চাঁপাইনবাবগঞ্জ-২ আসনের নব নির্বাচিত এমপিকে সংবর্ধনা নড়াইলে চিত্রশিল্পী এস এম সুলতান কমপ্লেক্স পরিদর্শন করলেন মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরের মহা-পরিচালক চট্টগ্রাম ৮ আসনের সাংসদ মোছলেম উদ্দিন আহমদ এম পি’র রোগ মুক্তি কামনায় বোয়ালখালীতে দোয়া মাহফিল। সালথায় নবকাম পল্লী কলেজে নবীন বরণ, গুণীজন সংবর্ধনা ও পিঠা মেলা অনুষ্ঠিত পাংশার বাহাদুরপুর ইউপিতে এমপি জিল্লুল হাকিমের উদ্যোগে দ্বিতীয় দফায় কম্বল বিতরণ মিষ্টিকুমড়া ও সিম চাষে সাবলম্বী ওবায়দুর পাঠক বৃদ্ধির লক্ষ্যে তরুণ সংঘ ও পাঠাগারে সভা অনুষ্ঠিত পাংশায় সাহিত্য উন্নয়ন পরিষদের মাসিক সভা অনুষ্ঠিত ট্রেন থেকে ৩লাখ টাকার মাদকদ্রব্য উদ্ধার রোজা উপলক্ষে ভারত থেকে ৩৮০০ মেট্রিক টন মসুর ডাল আমদানি

তাসকিনের সঙ্গে নৈশভোজ করলেন ইনফিনিক্সের ক্যাম্পেইন বিজয়ীরা

টি টুয়েন্টি বিশ্বকাপের উন্মাদনা উদযাপন করতে ইনফিনিক্স মোবাইল অক্টোবর মাসে আয়োজন করেছিল “বিয়ন্ড লিমিটস” ও “রোর ফর বিডি” ক্যাম্পেইন। ক্রিকেটপ্রেমী ও ইনফিনিক্সের ক্রেতারা এই ক্যাম্পেইনে অংশ নিয়েছিলেন। অংশগ্রহণকারীরা নিজেদের লক্ষ্য ও সীমা ছাড়িয়ে যাওয়ার গল্প শেয়ার করেছিলেন।
এই ক্যাম্পেইনটির উদ্দেশ্য ছিল অংশগ্রহণকারীদের নিজেদের সম্ভাবনার সীমা অতিক্রম করে গিয়ে দারুণ কিছু অর্জনের জন্য অনুপ্রাণিত করা। “রোর ফর বিডি” ক্যাম্পেইনের মাধ্যমে ফ্যানরা বিশ্বকাপে অংশ নেওয়া বাংলাদেশ দলের প্রতি তাদের সমর্থন ও শুভকামনা জানিয়েছিলেন।
দু’টি ক্যাম্পেইনেই তুমুল সাড়া পাওয়া গিয়েছিল। অনেকেই তাদের সীমা ছাড়িয়ে যাওয়ার অভিজ্ঞতার কথা জানিয়েছিলেন। বাংলাদেশ ক্রিকেট টিমকে শুভকামনা জানিয়ে বিশাল নোটও লিখেছিলেন অনেকে। সবার অংশগ্রহণে এই ক্যাম্পেইনটি হয়ে উঠেছিল ইনফিনিক্সের অন্যতম সফল ক্যাম্পেইন।
অংশগ্রহণকারীদের শেয়ার করা গল্পের ভিত্তিতে বিয়ন্ড লিমিটস ক্যাম্পেইনের বিজয়ীদের নির্বাচিত করা হয়। ভাগ্যবান বিজয়ীরা জিতে নিয়েছেন স্পিড মাস্টার নোট ১২ জি ৯৬ হ্যান্ডসেট। এর পাশাপাশি সবচেয়ে আকর্ষণীয় পুরস্কার হিসেবে ছিল বাংলাদেশ ক্রিকেটের স্পিডমাস্টার তাসকিন আহমেদের সঙ্গে নৈশভোজের সুযোগ। নৈশভোজ চলাকালীন তাসকিনের সাথে চমৎকার সময় কাটিয়েছিলেন তারা। তাসকিনকে কাছ থেকে জানতে পেরে বিজয়ীরা সবাই ছিলেন খুবই খুশি । “রোর ফর বিডি” ক্যাম্পেইনের বিজয়ীরা জিতেছেন তাসকিনের সাক্ষর করা ক্রিকেট বলসহ একটি বিশেষ গিফট বক্স।
নিজের আনন্দ প্রকাশ করে তাসকিন বলেন, “এই ক্যাম্পেইনটি আমি শুরু থেকেই ফলো করে আসছিলাম। সবার শুভকামনা পেয়ে আমি খুবই আনন্দিত। আর আজ ফ্যানদের সাথে দেখা হওয়ার পর আমি বুঝতে পারছি আমরা আসলে কতটা ভাগ্যবান। এসবই আমাকেও নিজের সীমা ছাড়িয়ে যাওয়ার প্রেরণা দেয়। ধন্যবাদ ইনফিনিক্সকে। আশা করছি ভবিষ্যতে এমন আরও ক্যাম্পেইন আয়োজিত হবে।
Tag :

এই অথরের আরো সংবাদ দেখুন

জাতীয় সংসদ -৪৪, চাঁপাইনবাবগঞ্জ-২ আসনের নব নির্বাচিত এমপিকে সংবর্ধনা

error: Content is protected !!

তাসকিনের সঙ্গে নৈশভোজ করলেন ইনফিনিক্সের ক্যাম্পেইন বিজয়ীরা

আপডেট টাইম : ০১:৩১ অপরাহ্ন, রবিবার, ১ জানুয়ারী ২০২৩
টি টুয়েন্টি বিশ্বকাপের উন্মাদনা উদযাপন করতে ইনফিনিক্স মোবাইল অক্টোবর মাসে আয়োজন করেছিল “বিয়ন্ড লিমিটস” ও “রোর ফর বিডি” ক্যাম্পেইন। ক্রিকেটপ্রেমী ও ইনফিনিক্সের ক্রেতারা এই ক্যাম্পেইনে অংশ নিয়েছিলেন। অংশগ্রহণকারীরা নিজেদের লক্ষ্য ও সীমা ছাড়িয়ে যাওয়ার গল্প শেয়ার করেছিলেন।
এই ক্যাম্পেইনটির উদ্দেশ্য ছিল অংশগ্রহণকারীদের নিজেদের সম্ভাবনার সীমা অতিক্রম করে গিয়ে দারুণ কিছু অর্জনের জন্য অনুপ্রাণিত করা। “রোর ফর বিডি” ক্যাম্পেইনের মাধ্যমে ফ্যানরা বিশ্বকাপে অংশ নেওয়া বাংলাদেশ দলের প্রতি তাদের সমর্থন ও শুভকামনা জানিয়েছিলেন।
দু’টি ক্যাম্পেইনেই তুমুল সাড়া পাওয়া গিয়েছিল। অনেকেই তাদের সীমা ছাড়িয়ে যাওয়ার অভিজ্ঞতার কথা জানিয়েছিলেন। বাংলাদেশ ক্রিকেট টিমকে শুভকামনা জানিয়ে বিশাল নোটও লিখেছিলেন অনেকে। সবার অংশগ্রহণে এই ক্যাম্পেইনটি হয়ে উঠেছিল ইনফিনিক্সের অন্যতম সফল ক্যাম্পেইন।
অংশগ্রহণকারীদের শেয়ার করা গল্পের ভিত্তিতে বিয়ন্ড লিমিটস ক্যাম্পেইনের বিজয়ীদের নির্বাচিত করা হয়। ভাগ্যবান বিজয়ীরা জিতে নিয়েছেন স্পিড মাস্টার নোট ১২ জি ৯৬ হ্যান্ডসেট। এর পাশাপাশি সবচেয়ে আকর্ষণীয় পুরস্কার হিসেবে ছিল বাংলাদেশ ক্রিকেটের স্পিডমাস্টার তাসকিন আহমেদের সঙ্গে নৈশভোজের সুযোগ। নৈশভোজ চলাকালীন তাসকিনের সাথে চমৎকার সময় কাটিয়েছিলেন তারা। তাসকিনকে কাছ থেকে জানতে পেরে বিজয়ীরা সবাই ছিলেন খুবই খুশি । “রোর ফর বিডি” ক্যাম্পেইনের বিজয়ীরা জিতেছেন তাসকিনের সাক্ষর করা ক্রিকেট বলসহ একটি বিশেষ গিফট বক্স।
নিজের আনন্দ প্রকাশ করে তাসকিন বলেন, “এই ক্যাম্পেইনটি আমি শুরু থেকেই ফলো করে আসছিলাম। সবার শুভকামনা পেয়ে আমি খুবই আনন্দিত। আর আজ ফ্যানদের সাথে দেখা হওয়ার পর আমি বুঝতে পারছি আমরা আসলে কতটা ভাগ্যবান। এসবই আমাকেও নিজের সীমা ছাড়িয়ে যাওয়ার প্রেরণা দেয়। ধন্যবাদ ইনফিনিক্সকে। আশা করছি ভবিষ্যতে এমন আরও ক্যাম্পেইন আয়োজিত হবে।