ঢাকা , বৃহস্পতিবার, ২০ জুন ২০২৪, ৬ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
প্রতিনিধি নিয়োগ
দৈনিক সময়ের প্রত্যাশা পত্রিকার জন্য সারা দেশে জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে প্রতিনিধি নিয়োগ করা হচ্ছে। আপনি আপনার এলাকায় সাংবাদিকতা পেশায় আগ্রহী হলে যোগাযোগ করুন।

নড়াইল পৌরসভা নির্বাচন

নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ালেন বিদ্রোহী মেয়র প্রার্থী, সংবাদ সম্মেলন

সংবাদ সম্মেলনে বিদ্রোহী মেয়র প্রার্থী সরদার আলমগীর হোসেন বক্তব্য রাখছেন।

তৃতীয়ধাপে অনুষ্ঠিত নড়াইল পৌরসভা নির্বাচনে আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী মেয়র প্রার্থী সরদার আলমগীর হোসেন নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়িয়েছেন।
সোমবার বেলা ১১টায় জেলা বাস মিনিবাস মালিক সমিতির কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে তিনি সরে দাঁড়ানোর ঘোষণা দেন। একই সাথে তিনি আওয়ামীলীগের মনোনীত মেয়র প্রার্থী আঞ্জুমান আরাকে সমর্থন করেন। আগামী ৩০ জানুয়ারী অনুষ্ঠিত নির্বাচন নৌকাকে বিজয়ী করতে সকলকে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করার অনুরাধ জানান।
এদিকে নড়াইলের কালিয়া পৌরসভা নির্বাচন আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী প্রার্থী ফকির মুশফিকুর রহমান লিটন পৃথকভাবে সংবাদ সম্মেলন করেছেন। গতকাল বিকালে সংবাদ সম্মেলনে তিনি দাবি করেন তার নির্বাচনকে বানচাল করতে প্রতিদ্বন্দ্বী নৌকার প্রার্থী নিজেদের অফিস পুড়িয়ে তার নতাকর্মীদের হয়রানী ও মামলায় জড়ানোর চেষ্টা করছে। এ ব্যাপারে জেলা প্রশাসক, পুলিশ সুপার, রিটার্ণিং অফিসারসহ নির্বাচন সংশ্লিষ্টদের হস্তক্ষপ কামনা করছেন।
Tag :
এই অথরের আরো সংবাদ দেখুন

জনপ্রিয় সংবাদ
error: Content is protected !!

নড়াইল পৌরসভা নির্বাচন

নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ালেন বিদ্রোহী মেয়র প্রার্থী, সংবাদ সম্মেলন

আপডেট টাইম : ০৩:৫৭ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৫ জানুয়ারী ২০২১
তৃতীয়ধাপে অনুষ্ঠিত নড়াইল পৌরসভা নির্বাচনে আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী মেয়র প্রার্থী সরদার আলমগীর হোসেন নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়িয়েছেন।
সোমবার বেলা ১১টায় জেলা বাস মিনিবাস মালিক সমিতির কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে তিনি সরে দাঁড়ানোর ঘোষণা দেন। একই সাথে তিনি আওয়ামীলীগের মনোনীত মেয়র প্রার্থী আঞ্জুমান আরাকে সমর্থন করেন। আগামী ৩০ জানুয়ারী অনুষ্ঠিত নির্বাচন নৌকাকে বিজয়ী করতে সকলকে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করার অনুরাধ জানান।
এদিকে নড়াইলের কালিয়া পৌরসভা নির্বাচন আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী প্রার্থী ফকির মুশফিকুর রহমান লিটন পৃথকভাবে সংবাদ সম্মেলন করেছেন। গতকাল বিকালে সংবাদ সম্মেলনে তিনি দাবি করেন তার নির্বাচনকে বানচাল করতে প্রতিদ্বন্দ্বী নৌকার প্রার্থী নিজেদের অফিস পুড়িয়ে তার নতাকর্মীদের হয়রানী ও মামলায় জড়ানোর চেষ্টা করছে। এ ব্যাপারে জেলা প্রশাসক, পুলিশ সুপার, রিটার্ণিং অফিসারসহ নির্বাচন সংশ্লিষ্টদের হস্তক্ষপ কামনা করছেন।